সদ্য সংবাদ

 কালকিনিতে ১৩১ বাড়িতে লাল নিশানা লাগিয়ে দিলো প্রশাসন  করোনার বিরুদ্ধে সাইফুল ইসলাম শান্তির অভিযান শুরু  রংপুরে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে মাস্ক বিতরণ  নরসিংদীতে হোম কোয়ারেন্টিনে ২০৫ প্রবাসী  কালকিনির বিভিন্ন হাট-বাজারে হাতধোয়ার জন্য বেসিন স্থাপন  পঞ্চগড়ে সাড়ে ৭শ’ পিস হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ  রংপুরে করোনা প্রতিরোধে মাস্ক বিতরণ  পার্বতীপুরে শুধুমাত্র পূজার মধ্যদিয়ে ঐতিহ্যবাহী ‘বাহা পরব’ উদযাপিত  রংপুরে এরশাদের জন্মদিন পালিত  বিএফআরআইতে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী এবং জাতীয় শিশু দিবস পালিত  করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে পঞ্চগড়ে জরুরি বৈঠক  আতঙ্কিত না হয়ে সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে : সাদ এরশাদ এমপি  কালকিনিতে দুই প্রবাসীকে আর্থিক জরিমানা  পঞ্চগড়ে সীমিত পরিসরে মুজিববর্ষ পালিত  রংপুরে ৮টি রাস্তা পাকাকরণ ও ড্রেন নির্মাণ কাজ শুরু  কালকিনিতে বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী পালিত  পঞ্চগড়ে মুজিব উতসব পালিত  কালিয়াকৈর প্রেসক্লাবে বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী পালিত  রংপুরে যথাযোগ্য মর্যাদায় বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী পালিত  পঞ্চগড়ে কীটনাশক মুক্ত সবজির চাষ!

অভিনেত্রী কঙ্গনার কপালে তলোয়ারের আঘাতে ১৫টি সেলাই, আইসিসিইউতে ভর্তি

 Fri, Jul 21, 2017 12:58 PM
অভিনেত্রী কঙ্গনার কপালে তলোয়ারের আঘাতে ১৫টি সেলাই, আইসিসিইউতে ভর্তি

এশিয়া খবর২৪ ডেস্ক :: বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত শুটিং করতে গিয়ে গুরুতর আহত হয়েছেন। জানা গেছে, আসল তরোয়াল নিয়েই শুটিং চলছিল।

 শুটিং চলাকালীন তরোয়ালটি এসে লাগে অভিনেত্রীর কপালে। তখন রক্ত বের হতে থাকে। পরে দ্রুত শুটিং স্পট থেকে তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালে।


আপাতত হায়দরাবাদের অ্যাপোলো হাসপাতালের আইসিসিউ বিভাগে ভর্তি রয়েছেন কঙ্গনা। জানা গেছে, কপালের জখমটি বেশ গুরুতর। ১৫টি সেলাই পড়েছে অভিনেত্রীর কপালে। আগামী কয়েকদিন চিকিৎসকের পর্যবেক্ষণে রাখা হবে তাকে।


ডাক্তারের মতে, অল্পের জন্য বেঁচে গেছেন তিনি। হাড়ের খুব কাছাকাছি পৌঁছে দিয়েছিল আঘাত। এর চেয়ে বেশি জখম হওয়ার সম্ভাবনা ছিল কঙ্গনার।


এ বিষয়ে প্রযোজক কমল জৈন জানান, নিহার পান্ডেয়ার সঙ্গে এই অ্যাকশন দৃশ্য শুট করতে বডি ডাবল নিতে চাননি কঙ্গনা। ছবির প্রতিটি অ্যাকশন দৃশ্য নিজেই শুট করবেন বলে জেদ করেছিলেন অভিনেত্রী। তাই শুট করার আগে বহুবার রিহার্সাল করা হয়, কিন্তু তারই মাঝে টাইমিংএ গণ্ডগোল হয়ে যায়। তরোয়াল গিয়ে সটান লাগে কঙ্গনার কপালে। দুই ভ্রুর মাঝখান থেকে শুরু হয় রক্তপাত। শুটিং সেট থেকে ৩০ মিনিটের দূরত্বে অ্যাপোলো হাসপাতালে আনা হয় তাঁকে।


এই ঘটনায় খুবই দুঃখিত হয়ে পড়েন অভিনেতা নিহার, ক্ষমাও চান কঙ্গনার কাছে। কিন্তু রক্তাক্ত অবস্থাতেও নিহারকে চিন্তা করতে বারণ করেন অভিনেত্রী।


তিনি বলেন, এটা নিছকই একটা দুর্ঘটনা। কিন্তু এত ব্যথা ও রক্তাক্ত অবস্থায় কঙ্গনা যে সাহসিকতা দেখিয়েছেন, তা নিয়ে গর্বিত তাঁর ছবির গোটা টিম। তবে এই আঘাতের ফলে কঙ্গনার কপালে এক ক্ষতের চিহ্ন রয়ে যাবে বলা জানান চিকিৎসকরা। সেই ক্ষত এতটাই গভীর যে তাঁর দাগ সরাতে প্লাস্টিক সার্জারি করাতে হবে অভিনেত্রীকে।

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন