সদ্য সংবাদ

 কালকিনিতে ১৩১ বাড়িতে লাল নিশানা লাগিয়ে দিলো প্রশাসন  করোনার বিরুদ্ধে সাইফুল ইসলাম শান্তির অভিযান শুরু  রংপুরে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে মাস্ক বিতরণ  নরসিংদীতে হোম কোয়ারেন্টিনে ২০৫ প্রবাসী  কালকিনির বিভিন্ন হাট-বাজারে হাতধোয়ার জন্য বেসিন স্থাপন  পঞ্চগড়ে সাড়ে ৭শ’ পিস হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ  রংপুরে করোনা প্রতিরোধে মাস্ক বিতরণ  পার্বতীপুরে শুধুমাত্র পূজার মধ্যদিয়ে ঐতিহ্যবাহী ‘বাহা পরব’ উদযাপিত  রংপুরে এরশাদের জন্মদিন পালিত  বিএফআরআইতে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী এবং জাতীয় শিশু দিবস পালিত  করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে পঞ্চগড়ে জরুরি বৈঠক  আতঙ্কিত না হয়ে সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে : সাদ এরশাদ এমপি  কালকিনিতে দুই প্রবাসীকে আর্থিক জরিমানা  পঞ্চগড়ে সীমিত পরিসরে মুজিববর্ষ পালিত  রংপুরে ৮টি রাস্তা পাকাকরণ ও ড্রেন নির্মাণ কাজ শুরু  কালকিনিতে বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী পালিত  পঞ্চগড়ে মুজিব উতসব পালিত  কালিয়াকৈর প্রেসক্লাবে বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী পালিত  রংপুরে যথাযোগ্য মর্যাদায় বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী পালিত  পঞ্চগড়ে কীটনাশক মুক্ত সবজির চাষ!

অভিনয়ের সুযোগ পেতে বিছানায় যেতে হয়- পার্বতী

 Wed, Aug 16, 2017 11:03 AM
অভিনয়ের সুযোগ পেতে বিছানায় যেতে হয়- পার্বতী

ডেস্ক রিপোর্ট : : চলচ্চিত্র জগতে শারীরিক সম্পর্কের বিনিময়ে অভিনয়ের সুযোগ দেওয়ার কথা অজানা নয়।

বলিউডের একাধিক অভিনেতা-অভিনেত্রীরা এই নির্মম সত্যের কথা স্বীকার করেছেন।

মালায়ালাম ইন্ডাস্ট্রিতেও একই চিত্র দেখা যায়। মালায়ালাম অভিনেত্রী পার্বতী স্বীকার করেছেন কাস্টিং কাউচের কথা। তিনি জানান, মালায়লাম ইন্ডাস্ট্রিতেও অভিনেতা-অভিনেত্রীরা কাস্টিং কাউচের শিকার।


সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে পার্বতী বলেন, ইন্ডাস্ট্রিতে আমাকে ও আমার মত একাধিক জনকে বিছানায় যাওয়ার প্রস্তাব করেছিল। অভিনয়ের সুযোগ পেতে বিছানায় যেতে বলা হয়েছিল। যৌন সম্পর্ক করতে বলা হয়েছিল। এমন ঘটনার শিকার বেশিরভাগ ক্ষেত্রে মেয়েরাই হয়। অথচ এই মেয়েরাই পারে এর সমাধান করতে। প্রস্তাব এলে সরাসরি না বলে দিতে পারে। তাতে আজ না হোক কাল, এমন সমস্যার মুখোমুখি হবে না ইন্ডাস্ট্রির কোনো শিল্পী।

পার্বতীর কথার সমর্থন দিয়েছে উইমেন ইন সিনেমা কালেক্টিভ (ডব্লিউসিসি)। কেরালার এই সংস্থা জানিয়েছে, ইন্ডাস্ট্রিতে কাস্টিং কাউচ আছে। বিষয়টি নিয়ে তদন্তের জন্য তারা সরকারের কাছে আবেদন জানিয়েছে।

কাস্টিং কাউচ আটকানোর জন্য ডব্লিউসিসি’র প্রতিনিধিরা ভারতের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়নের কাছে গিয়েছিলেন। তারপর বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করার জন্য সরকার একটি কমিশন গঠন করেছিল। হাইকোর্টের সাবেক বিচারপতি কে হেমারের নেতৃত্বে কমিশন তদন্ত শুরু করে।

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন