সদ্য সংবাদ

  নারায়ণগঞ্জে বেড়েছে হত্যাকান্ড, প্রশ্ন উঠেছে নিরাপত্তা নিয়ে   কণ্ঠশিল্পী আসিফের বিরুদ্ধে গায়িকা মুন্নির মামলা   বদলিতে তদবির কালচার চিরতরে বিদায় করতে চান আই‌জি‌পি   জমি ও ফ্লাটের নিবন্ধন ফি কমলো  আকাশ ডিটিএইচ সংযোগে এক হাজার টাকা মূল্যছাড়  তাপসীর পান্নুর বিরুদ্ধে দলবাজির অভিযোগ করলেন কঙ্গনা  ইরানের পারমাণবিক স্থাপনায় অগ্নিকাণ্ডের নেপথ্যে সাইবার হামলা?  ঐতিহাসিক সোনা বিবি সড়কের নাম এখন আলী আহাম্মদ চুনকা সড়ক  শূকর থেকে পাওয়া ভাইরাস ‘জিফোর’ নিয়ে যা বলল চীন  করোনা টেস্ট ফি বাতিলসহ পানি-গ্যাস-বিদ্যুতের দাম কমাতে হবে: মান্না   ইন্টারনেট বন্ধের হুমকি দিল আইএসপিএবি   ভুতুড়ে বিলে ব্যবস্থা নিচ্ছে ডিপিডিসি, ৪ জন বহিষ্কার   ক্ষুদ্রঋণ: ৩ হাজার কোটির মধ্যে আড়াই মাসে মাত্র ২০ কোটি টাকা বিতরণ   ট্রাম্পকে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা  সারাদেশে করোনায় আক্রান্ত ১১৩০২ পুলিশ সদস্য   দেবীগঞ্জে ভারি বর্ষণ পানি তোড়ে ভেসে গেছে সড়ক  পুরনো এক্স-রে মেশিনে নতুন রঙ: দুর্নীতি ধরলেন সংসদ সদস্য  নবীনগরে চাচাতো ভাইয়ের ঘুষির আঘাতে বড় ভাই নিহত  সাঘাটায় নিরাপদ সড়ক নিশ্চিতকরণে ওয়ার্কসপ অনুষ্ঠিত  প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে ১২ সদস্যের ডেল্টা কাউন্সিল গঠন

আধুনিকতার নামে ভেঙ্গে ফেলা ২৭১ বছরের পুরনো মসজিদটি

 Fri, Jan 20, 2017 11:13 AM
আধুনিকতার নামে ভেঙ্গে ফেলা ২৭১ বছরের পুরনো মসজিদটি

ডেস্ক রিপোর্ট:: জায়গার সংকুলান না হওয়ার কারণ দেখিয়ে ১৭৪৬ খ্রিস্টাব্দে নির্মিত পুরনো ঢাকার আজিমপুরের নিউ পল্টন এলাকার শাহী মসজিদটি ভেঙ্গে ফেলা হ”েছ।

 প্রাচীন নিদর্শনটি রক্ষার পরিবর্তে নিশ্চিহ্ন করে ফেলার সিদ্ধান্তে বিভিন্ন মহলে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে।

এলাকাবাসীর সাথে কথা বলা জানা গেছে, ¯’ানীয় প্রভাবশালীদের ভয়ে ইতিহাস, ঐতিহ্য সম্পর্কে সচেতন মানুষরা ঐতিহ্যবাহী এ মসজিদটি ভাঙ্গার কাজে শক্তভাবে বাঁধা দিতে পারছেন না। প্রাচীন এই ¯’াপত্যটি রক্ষায় সরকারের উ”চমহল থেকে হস্তক্ষেপ কামনা করছেন তারা।

জানাগেছে, নতুন ছয়তলা মসজিদ নির্মাণের জন্য ২৭১ বছরের পুরনো এ মসজিদটি ভাঙ্গার কাজ শুরু করেছিলেন মসজিদ কর্তৃপক্ষ। ইতোমধ্যে মসজিদের প্রায় অর্ধেক ভেঙ্গে ফেলা হয়েছে। ¯’ানীয় কয়েকজন সচেতন মানুষ বাঁধা দেয়ায় আপাতত ভাঙ্গার কাজ বন্ধ রয়েছে।
বৃহস্পতিবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, দেয়ালের বিভিন্ন ¯’ানে দৃষ্টি নন্দন কারুকাজ করা মসজিদটি অর্ধেকের বেশি ভেঙ্গে ফেলায় তুরস্কের অটোম্যান আমলের ¯’াপত্য শৈলীর নষ্ট হয়ে গেছে।

এলাকার কয়েকজন মানুষ এ ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করে জানান, এলাকার প্রভাবশালীরা আধুনিকতার নামে ইতিহাস আর ঐতিহ্যের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে। তাদের ভয়ে কেউ জোরালোভাবে বাধাও দিতে পারছে না।

আব্দুল গফুর নামে ¯’ানীয় এক ব্যক্তি আমাদের অর্থনীতির কাছে ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ‘আমরা আধুনিক সভ্যতার ছোঁয়া পেয়ে প্রাচীন ঐতিহ্যের নিদর্শন গুলো নিচিহ্ন করছি। চারশ বছরের প্রাচীন নির্দশনটি কর্তৃপক্ষ ভবিষ্যৎ প্রজম্মের জন্য রক্ষা না হঠাৎ করে ভেঙ্গে ফেলার কাজ শুরু করেছে। এটার দায়ভার সম্পূন্ন মসজিদ কমিটির।’

তবে শাহী মসজিদ কমিটির সাধারণ সম্পাদক আবুল কাসেম মৃধা আমাদের অর্থনীতিকে বলেছেন, ‘এলাকায় জনসংখ্যা বৃদ্ধির কারণে এখন মসজিদে জায়গার সংকুলান হ”েছনা । সে কারণে এ মসজিদ ভেঙ্গে ছয়তলা মসজিদ তৈরির উদ্যোগ নেয়া হয়েছিল। সরকারি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিয়েই তারা মসজিদ ভেঙ্গে নতুন মসজিদ নির্মাণের কাজে হাত দিয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘মসজিদ ভাঙ্গার কাজ শুরুর আগে তারা প্রতœতত্ত্ব অধিদপ্তরের কাছে চিঠি দিয়ে জানতে চেয়েছেন এ মসজিদটি তাদের তালিকায় রয়েছে কিনা। কিš‘ প্রতœতত্ত্ব অধিদপ্তর চিঠি দিয়ে মসজিদ কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছে যে, এ ¯’াপনাটি তাদের তালিকায় নেই।’

প্রসঙ্গত, ঢাকায় মোগলযুগের এক গম্বুজ বিশিষ্ট মসজিদের সংখ্যা অপেক্ষাকৃত কম। গম্বুজটির আকার,অষ্টকোণাকার ড্রাম ও শিখর চুড়া বিশ্ববিখ্যাত মোগল ¯’াপত্যের মনুমেন্টালিটির একটি চমৎকার উদাহরণ।

মসজিদটির আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ বৈশিষ্ট্যহলো এটি একটি দ্বিতল বিশিষ্ট ইমারত। মসজিদটির কেন্দ্রীয় প্রার্থনাগৃহের দেয়ালে প্রাপ্ত শিলালিপি হতে জানা যায় মসজিদটি ১৭৪৬ খৃষ্টাব্দে নির্মিত হয়েছিল। মোগল যুগের ঢাকায় দ্বিতল বিশিষ্ট বাতাহখানা যুক্ত মসজিদ নির্মাণের রীতি প্রথম প্রবর্তন করেন শায়েস্তা খান (চকবাজারমসজিদ)। পরবর্তীসময়ে এধরনের ¯’াপত্য শৈলীর ধারাবাহিকতা বজায় থাকে। মুর্শিদকুলীখান (করতলব খান মসজিদ /বেগমবাজারমসজিদ) ও তারপরবর্তী সময়কালে (খান মোহাম্মদ মৃধা মসজিদ) এ ¯’াপত্যিক ধারার নিদর্শন পরিলক্ষিত হয়। কেন্দ্রীয় প্রার্থনা গৃহটি দ্বিতীয় তলার পশ্চিম পাশে অব¯ি’ত এবং এর পূর্বদিকে রয়েছে একটি উন্মুক্ত চত্বরবাসাহন।

এ বিষয়ে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতœতত্ত্ব বিভাগের শিক্ষক নুরুল কবির বলছেন, এ মসজিদের একটি শিলালিপি দেখে ধারণা পাওয়া যায় যে এটি ১৭৪৬ সালে নির্মিত। তখন নবাব আলীবর্দি খাঁ বাংলার শাসনকর্তা। এ মসজিদের গম্বুজ অনেকটা তুরস্কের অটোম্যান আমলের ¯’াপত্য শৈলীর মিল আছে।


Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন