সদ্য সংবাদ

 কালকিনিতে ১৩১ বাড়িতে লাল নিশানা লাগিয়ে দিলো প্রশাসন  করোনার বিরুদ্ধে সাইফুল ইসলাম শান্তির অভিযান শুরু  রংপুরে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে মাস্ক বিতরণ  নরসিংদীতে হোম কোয়ারেন্টিনে ২০৫ প্রবাসী  কালকিনির বিভিন্ন হাট-বাজারে হাতধোয়ার জন্য বেসিন স্থাপন  পঞ্চগড়ে সাড়ে ৭শ’ পিস হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ  রংপুরে করোনা প্রতিরোধে মাস্ক বিতরণ  পার্বতীপুরে শুধুমাত্র পূজার মধ্যদিয়ে ঐতিহ্যবাহী ‘বাহা পরব’ উদযাপিত  রংপুরে এরশাদের জন্মদিন পালিত  বিএফআরআইতে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী এবং জাতীয় শিশু দিবস পালিত  করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে পঞ্চগড়ে জরুরি বৈঠক  আতঙ্কিত না হয়ে সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে : সাদ এরশাদ এমপি  কালকিনিতে দুই প্রবাসীকে আর্থিক জরিমানা  পঞ্চগড়ে সীমিত পরিসরে মুজিববর্ষ পালিত  রংপুরে ৮টি রাস্তা পাকাকরণ ও ড্রেন নির্মাণ কাজ শুরু  কালকিনিতে বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী পালিত  পঞ্চগড়ে মুজিব উতসব পালিত  কালিয়াকৈর প্রেসক্লাবে বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী পালিত  রংপুরে যথাযোগ্য মর্যাদায় বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী পালিত  পঞ্চগড়ে কীটনাশক মুক্ত সবজির চাষ!

এবার ভেঙে গেলো বাপ্পা-চাঁদনীর সংসার!

 Sun, Feb 25, 2018 12:52 PM
এবার ভেঙে গেলো বাপ্পা-চাঁদনীর সংসার!

এশিয়া খবর২৪ ডেস্ক :: অবশেষে ভেঙেই গেলো বাপ্পা-চাঁদনীর সংসার। তারকা ও অন্যান্য সাধারণের মতই প্রেম-ভালোবাসায়

 বুঁদ হয়েই এক ছাদের নিচে থাকার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন বাপ্পা মজুমদার ও মেহবুবা মাহনুর চাঁদনী। একজন খ্যাতিমান সঙ্গীত শিল্পী আর একজন জনপ্রিয় নৃত্য শিল্পী ও অভিনেত্রী।


কিন্তু দুই তারকার সংসারটা সুখের শেষ হয়নি। বিচ্ছেদের ঘুণপোকা চূড়ান্ত ভাবে খেয়ে দিয়েছে ভালোবাসার স্তম্ভ। তাই অবশেষে ভেঙেই গেল বাপ্পা মজুমদার ও মেহবুবা মাহনুর চাঁদনীর সাজানো সংসার। অবশ্য এমন একটা খবর বাতাসে ভেসে বেড়াচ্ছিল বেশ কিছুদিন ধরেই।


এবার বাপ্পা নিজেই জানিয়ে দিলেন, ‘ আমরা এখন আলাদা থাকছি।’ এমনকি ফেসবুকে রিলেশন স্ট্যাটাসটাও পাল্টে নিয়েছেন দুজন। সরিয়ে ফেলছেন একে অন্যের ছবি। তবে ডিভোর্স প্রসঙ্গে সরাসরি কিছু বলতে নারাজ দুজনই। বাপ্পা সাংবাদিকদের বলেন, ‘দেখুন, এই নিয়ে আমি কিছুই বলতে চাই না।’ একই কথা চাঁদনীর মুখেও।


২০০৮ সালের ২১ মার্চ ধানমন্ডির ২৭ সিয়ার্স রেস্টুরেন্টে আনুষ্ঠানিকভাবে বাপ্পা মজুমদার ও চাঁদনীর বাগদান হয়। বাপ্পা ও চাঁদনী ভিন্ন ভিন্ন ধর্মের হলেও বাগদানের আগেই বাপ্পা ধর্মান্তরিত হয়ে আহমেদ বাপ্পা মজুমদার হন। দুই পরিবারের সম্মতিতেই এই বাগদান সম্পন্ন হয়। পরে তাদের দুই পরিবার একসাথ হয়ে ঘরোয়াভাবে বিয়ের কাজ সম্পন্ন করেন।

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন