সদ্য সংবাদ

  সব দেশ যাতে একসঙ্গে করোনা ভ্যাকসিন পায় তা নিশ্চিত করুন   মাদক নেয়ার কথা অস্বীকার করলেন দীপিকা  বঞ্চিতদের ৪ অক্টোবর টোকেন দেবে সৌদি এয়ারলাইন্স   নিরাপদ পানি সরবরাহে বিশ্বব্যাংকের ২০০ মিলিয়ন ডলার অনুমোদন  ইসরাইল শান্তির শেষ সুযোগ ধ্বংস করে দিচ্ছে : মাহমুদ আব্বাস   এলাকায় অপরিচিত হওয়ায় যুবককে গাছে বেঁধে অমানবিক নির্যাতন  এমসি কলেজে তরুণীকে গণধর্ষণের ঘটনায় তদন্তে কমিটি, ২ গার্ড সাসপেন্ড   মা আমি চলে যাচ্ছি, মাফ করে দিও...  মাদকসেবী ২৬ পুলিশের চাকরিচ্যুতির প্রক্রিয়া শুরু   অন্য করো বর্ধিত সভা ডাকার বৈধ্যতা নেই : ড. কামাল  শরিক প্রকল্পের অগ্রগতি পর্যালোচনা বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত  মতির সম্পদ অনুসন্ধানে দুদক, রিফিউজিদের নামে বরাদ্দ জমি ৫০ কোটি টাকায় বিক্রি!   ১৫ বছর ধরে নিজের মেকআপ নিজেই করেন ক্যাটরিনা  টানা বৃষ্টিপাত নাকাল পঞ্চগড় পৌরবাসি  কক্সবাজারে এবার ১১৪১ পুলিশকে একযোগে বদলি  নারায়ণগঞ্জের তল্লায় গ্যাসের লাইনে ৮১৪ লিকেজ  ‘৪৭ মাসে আমি যা করেছি, বাইডেন ৪৭ বছরেও তা পারেননি’  অর্থনৈতিক কূটনীতি জোরদারে নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর  আল্লামা শফীর মৃত্যুতে বিচার বিভাগীয় তদন্ত দাবি  কক্সবাজারের ৩৪ জন পরিদর্শককে একযোগে বদলি

তনু হত্যা ধামাচাপার আশঙ্কা , সিআইডির দাবি অগ্রগতি

 Tue, Nov 22, 2016 12:12 PM
তনু হত্যা ধামাচাপার আশঙ্কা , সিআইডির দাবি অগ্রগতি

এশিয়া খবর ডেস্ক :: চাঞ্চল্যকর কলেজ ছাত্রী সোহাগী জাহান তনু হত্যা মামলা ধামাচাপা পড়ে যা”েছ বলে আশঙ্কা করছেন সংশ্লিষ্টরা। কিš‘ তনু হত্যার তদন্তে ভালো অগ্রগতি হয়েছে বলে দাবি করেছেন সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার আবদুল কাহার আকন্দ।

সোমবার মালিবাগের সিআইডি কার্যালয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এ দাবি করেন। এ সময় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘আমরা চুপচাপ কাজ করি। মিডিয়াতে কম আসি। তনু হত্যা তদন্তে ভালো অগ্রগতি হয়েছে। শিগগিরই পরিপূর্ণ ফল পাওয়া যাবে বলে আশা করছি। পরিপূর্ণ ফল হাতে পেলে মিডিয়াকে জানানো হবে।

তনু হত্যার মামলার অগ্রগতি কি হয়েছে? তদন্ত কোন পর্যায়ে এসব প্রশ্নের জবাব এড়িয়ে গিয়ে কাহার আকন্দ বলেন, একটু ধৈর্য ধরুন-শিগগিরই সব জানতে পারবেন। প্রসঙ্গত, গত ২০ মার্চ সন্ধ্যায় সেনা নিবাসের ভেতর একটি ঝোপে তনুর লাশ পাওয়া যায়। তার শরীরে বিভিন্ন¯’ানে আঘাতের চিহ্ন ছিল। ২১ মার্চ সন্ধ্যায় তনুকে তাদের গ্রামের বাড়ি মুরাদনগর উপজেলার মির্জাপুর গ্রামে দাফন করা হয়।

সোহাগী হত্যার মামলা প্রথমে থানা পুলিশ মামলার তদন্ত শুরু করে। এরপর র‌্যাবের কাছে হস্তান্তর হয়। একদিন পরই মামলা সিআইডির নিকট হস্তান্তর করা হয়। সিআইডি পুলিশ মামলার দায়িত্ব নেয়ার পর লাশ কবর থেকে তুলে নিয়ে ময়না তদন্ত করে। এ ঘটনাটি সারাদেশে ব্যাপক তোলপাড় হয়। বিচারের দাবিতে সারাদেশে বিক্ষোভ সমাবেশ, মানববন্ধনসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে বিভিন্ন সংগঠন। তবে ঘটনার সাত মাসেও হত্যাকান্ডের কোনো কূল-কিনারা করতে পারেনি আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

তনু হত্যার ৮ মাস অতিবাহিত হ”েছ। কিš‘ এ পর্যন্ত আসামী চিহ্নিত, গ্রেফতার বা সন্তোষজনক কোনো অগ্রগতি হয়নি। তারপরও সোমবার সিআইডি শিগগিরই ভালো কিছু তথ্য মামলার চূড়ান্ত ফলে পাওয়া যাবে বলে দাবি করলো। আসলে এই হত্যার পেছনে কারা হত্যার মোটিভ কি সেটাই ৮ মাস পরও রয়ে গেছে অন্ধকারে। ফলে তনুর পরিবার ও যারা তনু হত্যার বিচারের দাবিতে আন্দোলন-সংগ্রাম করেছে তারা হতাশ। এ অব¯’ায় সিআইডির এ প্রেস ব্রিফিং তাদের মাঝে কি আশার আলো দেখাতে পারবে। সংশ্লিষ্টদের মতে, কোনো ব্রিফিং বা কারো বুলিতে আশার সঞ্চার হয়না। নিহত তনুর মা বাবাসহ পরিবারের সদস্যরা আশার আলো দেখতে পাবে তখনই যখন দেখবে সিআইডি পুলিশ হত্যার মোটিভ উদঘাটন করে প্রকৃত দুবৃর্ত্তদের গ্রেফতার করে আদালতের কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছে।

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন