সদ্য সংবাদ

 কালকিনিতে ১৩১ বাড়িতে লাল নিশানা লাগিয়ে দিলো প্রশাসন  করোনার বিরুদ্ধে সাইফুল ইসলাম শান্তির অভিযান শুরু  রংপুরে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে মাস্ক বিতরণ  নরসিংদীতে হোম কোয়ারেন্টিনে ২০৫ প্রবাসী  কালকিনির বিভিন্ন হাট-বাজারে হাতধোয়ার জন্য বেসিন স্থাপন  পঞ্চগড়ে সাড়ে ৭শ’ পিস হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ  রংপুরে করোনা প্রতিরোধে মাস্ক বিতরণ  পার্বতীপুরে শুধুমাত্র পূজার মধ্যদিয়ে ঐতিহ্যবাহী ‘বাহা পরব’ উদযাপিত  রংপুরে এরশাদের জন্মদিন পালিত  বিএফআরআইতে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী এবং জাতীয় শিশু দিবস পালিত  করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে পঞ্চগড়ে জরুরি বৈঠক  আতঙ্কিত না হয়ে সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে : সাদ এরশাদ এমপি  কালকিনিতে দুই প্রবাসীকে আর্থিক জরিমানা  পঞ্চগড়ে সীমিত পরিসরে মুজিববর্ষ পালিত  রংপুরে ৮টি রাস্তা পাকাকরণ ও ড্রেন নির্মাণ কাজ শুরু  কালকিনিতে বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী পালিত  পঞ্চগড়ে মুজিব উতসব পালিত  কালিয়াকৈর প্রেসক্লাবে বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী পালিত  রংপুরে যথাযোগ্য মর্যাদায় বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী পালিত  পঞ্চগড়ে কীটনাশক মুক্ত সবজির চাষ!

নায়িকা শাবনূর-পূর্ণিমার চাওয়া

 Wed, Jan 17, 2018 3:41 AM
নায়িকা শাবনূর-পূর্ণিমার চাওয়া

বিনোদন ডেস্ক :: ঢাকাই চলচ্চিত্রের দুই নন্দিত নায়িকা শাবনূর ও পূর্ণিমা। দু’জনই চলচ্চিত্রে অভিনয়ের

 সর্বোচ্চ স্বীকৃতিস্বরূপ পেয়েছেন একবার করে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। মোস্তাফিজুর রহমান মানিকের ‘দুই নয়নের আলো’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য শাবনূর জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ভূষিত হন। অন্যদিকে কাজী হায়াতের ‘ওরা আমাকে ভালো হতে দিলো না’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ভূষিত হন পূর্ণিমা। দু’জন একসঙ্গে তিনটি চলচ্চিত্রে অভিনয়ও করেছেন। দীর্ঘদিন বিরতির পর সম্প্রতি একটি অনুষ্ঠানে এই দুই নন্দিত নায়িকা একসঙ্গে উপস্থিত হয়েছিলেন।

দু’জনে একসঙ্গে বসে খোশগল্পে মেতে উঠেছিলেন। ক্যামেরার একই ফ্রেমে বাঁধা পড়েনও দু’জন। পূর্ণিমা প্রসঙ্গে শাবনূর বলেন, আমরা দু’জন একসঙ্গে বেশ কয়েকটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছি। হয়তো আমার কাজের ধারাবাহিকতা নিয়মিত থাকলে আরো কয়েকটি চলচ্চিত্রে কাজ করা হয়ে উঠতো। তারপরও সময়োপযোগী গল্প হলে আমি আর পূর্ণিমা আবারো একসঙ্গে কাজ করতেও পারি। তার পুরোটাই নির্ভর করছে গল্পের ওপর, চরিত্রের ওপর। পূর্ণিমা খুব ভালো অভিনেত্রী। আর ইদানীংতো উপস্থাপনায় সে খুব ভালো করছে। আমাদের চলচ্চিত্রেরই একজন হয়ে উপস্থাপনায় সে প্রতিনিধিত্ব করছে, এটা আমাদের জন্য অনেক আনন্দের। শাবনূর প্রসঙ্গে পূর্ণিমা বলেন, শাবনূর আপুর সঙ্গে অভিনয় করতে আমার খুব ভালো লাগে। তিনি অনেক বড় মাপের একজন অভিনেত্রী। তার সঙ্গে অভিনয় করতে পারাটা আমার জন্য সৌভাগ্যের। বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে তার মতো এত বড় মাপের অভিনেত্রী তার পরে আর কেউই আসেনি। শাবনূর এবং পূর্ণিমা দু’জনই জানান যদি ভালো গল্প, ভালো প্রযোজনা সংস্থা এবং দক্ষ পরিচালক উদ্যোগী হয়ে এগিয়ে আসেন তবে দু’জন আবারো একসঙ্গে   কাজ করতে চান। 

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন