সদ্য সংবাদ

  খুনি নূর হোসেনের ভাতিজা বাদল ভালো, মেয়র আইভী ব্যর্থ!   সরকারি কর্মচারীদের গ্রেফতারে অনুমতির বিধান কেন অবৈধ নয়: হাইকোর্ট  বাড়ি ভারতে, অফিস করেন সিলেটে  আবারও ষড়যন্ত্র হচ্ছে: ওবায়দুল কাদের   ই-কমার্সের প্রতারনায় ভুক্তভোগী বাণিজ্যমন্ত্রী  সাবেক প্রতিমন্ত্রী মান্নান খান ও তার স্ত্রীর বিচার শুরু   ১০ হাজার ৫০০ শ্রমিককে ভিসা দেবে যুক্তরাজ্য  দেবীগঞ্জে বাসর রাতে পাত্রের রহস্যজনক মৃত্যু  ‘চুনকা কুটির নয়, আইভীর হোয়াইট ওয়াশের জ্বালা বিরোধী পক্ষ  বিয়ের পর আমাদের বন্ধুত্ব গাঢ় হচ্ছে: মাহি  বাংলাদেশে কেউ ভালো নেই : মির্জা ফখরুল  টিকা প্রয়োগেই কয়েক হাজার কোটি টাকা ব্যয় হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী  টানা তৃতীয়বার জয়লাভ করলেন জাস্টিন ট্রুডো   আটোয়ারীতে ফেন্সিডিলসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক  ১১ লাখ টাকা ও হেরোইনসহ ৫মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে না:গঞ্জ ডিবি  প্যারিস চুক্তির কঠোর প্রয়োগের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর   সাংবাদিক নেতাদের ব্যাংক হিসাব তলবের চিঠির উৎপত্তি কোথায় সেটাও দেখছি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী  সরকার থেকে সাংবাদিকরাও রেহাই পাচ্ছেন না: ফখরুল   ৯০ দিনের মিশন শেষে পৃথিবীতে ফিরেছেন চীনা নভোচারীরা   দৌলতদিয়া যৌনপল্লীতে সংশ্লিষ্টতা, যুবলীগ নেতা বহিষ্কার

পাকিস্তানের মডেল কিন্দিল বেলুচ হত্যায় ফেঁসে যাচ্ছেন সেই মুফতি

 Sat, Oct 14, 2017 6:13 AM
পাকিস্তানের মডেল কিন্দিল বেলুচ হত্যায় ফেঁসে যাচ্ছেন সেই মুফতি

ডেস্ক রিপোর্ট : : পাকিস্তানের আলোচিত মডেল কিন্দিল বেলুচ হত্যায় এবার ফেঁসে যাচ্ছেন বিতর্কিত মুফতি আব্দুল কাভি।

 জুডিশিয়াল মেজিস্ট্রেট বৃহস্পতিবার মুফতী আব্দুল কাভীর বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে। তিনি পুলিশকে হত্যাকাণ্ড তদন্তে কোনো রকম সহযোগিতা করছেন না অভিযোগ এনে তাকে গ্রেফতারের নির্দেশ দেওয়া হয়।


মডেল কিন্দিল বেলুচকে গত বছরের ১৫ জুলাই রাতে হত্যা করা হয়। হত্যাকাণ্ডে অভিযুক্ত তার ভাই ওয়াসিম ও কাজিন হক নওয়াজ কারাগারে বন্দি রয়েছেন। মূলত মুফতি কাভির সঙ্গে বিবাদে জড়ানোর পরই কিন্দুল বেলুচকে হত্যা করা হয়। ওই মুফতীর বিরুদ্ধে কুপ্রস্তাবের অভিযোগ এনেছিল মডেল কিন্দুল বেলুচ। এ নিয়ে দু,জনের মাঝে বাক বিতণ্ডা চরমে পৌঁছলেই কিন্দিল বিলুচকে হত্যার ঘটনা ঘটে। তবে এ হত্যাকাণ্ডের সুস্পষ্টের কোনো প্রমাণ এখনো উদঘাটন করতে পারেনি আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। অশ্লীলতা প্রচারের অভিযোগে ওই মডেলের ওপর আগ থেকেই ক্ষিপ্ত ছিল তার ভাই ও পরিবারের অন্য সদস্যরা। মুফতির বিরুদ্ধে অভিযোগ আনলে সে সময় পাকিস্তানের মিডিয়াপাড়া সগরম হয়ে উঠে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে কিন্দিলকে তার ভাই হত্যা করতে পারেন বলেও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মনে করছেন।


এদিকে মুফতি আব্দুল কাভী জানান, তাকে জামিনযোগ্য গ্রেফতার করা হতে পারে। এ হত্যাকাণ্ড তদন্তে তিনি পুলিশকে সব রকম সহযোগিতার জন্য তৈরি রয়েছেন। পুলিশ চাইলেই যেকোনো সময়ে তার থেকে জবানবন্দি নিতে পারেন।


সূত্র : জিও উর্দু

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন