সদ্য সংবাদ

 সানারপাড় উচ্চ বিদ্যালয়ের অভিভাবক সদস্যদের থেকে জোরপূর্বক স্বাক্ষর আদায়ের অভিযোগ  এবারও ব্রিটেনের নির্বাচনে টিউলিপসহ ৪ বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত নারী বিজয়ী  কাদের মোল্লাকে ‘শহীদ’ বলায় দৈনিক সংগ্রাম পত্রিকার অফিস ভাংচুর   নারায়ণগঞ্জে এসপির তৎপরতায় আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির আগের চেয়ে ভালো।  ফোর্বসের প্রভাবশালী ১০০ নারীর তালিকায় শেখ হাসিনা  উত্তাল আসাম : এবার ভারত সফর বাতিল করলেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী  সংকট মোকাবেলায় ২০ লাখ পাসপোর্ট কিনছে সরকার  মধুচন্দ্রিমায় নার্ভাস মিথিলা!  কারাগারেই থাকতে হচ্ছে খালেদা জিয়াকে  বিএনপি কর্মী ভেবে পুলিশকে পেটালেন ওসি  দেশের রাজনীতিতে স্থায়ী সংঘাত সৃষ্টি হল: মির্জা ফখরুল   থানায় যুবলীগ নেতার জন্মদিন পালন করা সেই ওসি মোস্তফাকে প্রত্যাহার  চাটখিলে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষনের চেষ্টা ,গ্রেফতার ২  আসামে কারফিউ ভেঙে বিক্ষোভ, পুলিশের গুলিতে নিহত ৩   এবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ভারত সফর স্থগিত  গোপালগঞ্জস্থ কোটালীপাড়া সমিতি'র সভাপতি জলিল খান, সম্পাদক গোলাম হায়দার  রেলের সকল ভূ-সম্পত্তি অবৈধ দখলমুক্ত করা হবে  রংপুরে দিনব্যাপী ‘আঁশকল’ যন্ত্র ব্যবহারের অভিজ্ঞতা বিনিময় বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত  পঞ্চগড়ে কেয়ারটেকারের বিরুদ্ধে পৈত্তিক বাড়ী ও জমি দখলের অভিযোগ  ঝিনাইদহ পৌরসভায় পাইলট প্রকল্পের কাজ বাস্তবায়নে মতবিনিময় ও প্রশিক্ষণ কর্মশালা

প্রধান বিচারপতির ছুটি- দরখাস্তে বানান ভুল ও স্বাক্ষর নিয়ে যা হচ্ছে তার দায় আ. লীগকে নিতে হবে : গোলাম মাওলা রনি

 Fri, Oct 6, 2017 6:00 AM
প্রধান বিচারপতির ছুটি- দরখাস্তে বানান ভুল ও স্বাক্ষর নিয়ে যা হচ্ছে তার দায় আ. লীগকে নিতে হবে : গোলাম মাওলা রনি

ডেস্ক রিপোর্ট : : কোন রকম ঘুরিয়ে পেচিয়ে নয়- একেবারে সরাসরি বলছি- আমাদের দেশের বর্তমান প্রধান বিচারপতির ছুটিতে যাওয়া

 এবং এতদসংক্রান্ত ছুটির দরখাস্তে বানান ভুল এবং বাংলায় স্বাক্ষর করা নিয়ে যা হচ্ছে তার দায় আওয়ামী লীগকে বহু বছর ধরে বহন করতে হবে।


বর্তমান মেয়াদের সরকারকে বলা হয় Gift of a judgement তত্ত্বাবধায়ক প্রথা বাতিলের সেই রায়ের পেছনে জনাব সিনহার অবদান কোন অংশে কম ছিলো না। যুদ্ধাপরাধের বিচার এবং বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার সম্পন্ন করার মাধ্যমে জনাব সিনহা যা করেছেন তার সুফলের কারণে বর্তমান সরকার ইতিহাসের সর্বোত্তম সুসময় পার করে চলেছেন। কাজেই জনাব সিনহার সঙ্গে সরকারের দূরত্ব ও ভুল বুঝাবুঝির কোন ব্যাকারণগত ত্রুটি থাকার কথা নয়।


এ কথা সত্য যে, ষোড়শ সংশোধনী বাতিল এবং সেই সংক্রান্ত রায়ে জনাব সিনহার কিছু মন্তব্য সরকারকে নিদারুণভাবে সংক্ষুব্দ করেছে। সরকার যদি একটু মাথা ঠান্ডা করে ভাবতেন তবে লক্ষ্য করতেন যে, একধরনের হতাশা থেকেই পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। মূলত, আইন মন্ত্রণালয়, সুপ্রীমকোর্টের প্রশাসনিক দপ্তর এবং বিচারপতিদের স্বাধীনচেতা মনোভাবের মধ্যে পড়ে জনাব সিনহার পক্ষে পরিস্থিতি সামাল দেয়া সম্ভব হচ্ছিলো না।

নানা ঘটনা-দুর্ঘটনা, বিশ্বাস-অবিশ্বাস এবং অর্ন্তদ্বন্দ্ব সত্ত্বেও সব দিক থেকে জনাব সিনহাই ছিলেন সরকারের জন্য সর্বোত্তম ব্যক্তি। এটা যে কতটা নির্মম সত্য তা সরকার আগামী দিনগুলোতে হাড়ে হাড়ে টের পাবেন। জনাব সিনহার সরকারের কারো কারো প্রতি অভিমান ছিলো কিন্তু শত্রুতা ছিলো না। তিনি উপকার কতোটা করতেন তার চেয়েও মূখ্য ছিলো যে, তার দ্বারা কোনোদিন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কোনো ক্ষতি হতো না।


সরকার জনাব সিনহার অতীত কর্মকা-কে বিবেচনায় না এনে তার সাম্প্রতিক কিছু বক্তব্যকে প্রাধান্য দিয়ে যে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তা যেমন অতীব আশ্চর্যজনক তেমনি তার চেয়েও আশ্চর্যজনক বিষয় হলো তাকে নিয়ে সরকার বিরোধীদের মায়াকান্না। জনাব সিনহার অতীত ইতিহাস, লেখাপড়া, ব্যক্তিত্ব ও চরিত্রের কারণে সরকার যে সুবিধাটুকু পেয়েছে এবং অনাগত দিনে পেতো তা অন্য কারো নিকট থেকে পাওয়া যাবে কিনা সন্দেহ।


এবার ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি সম্পর্কে কিছু বলি। তার সততা এবং দূর্বার সাহস প্রশ্নাতীত। তিনি ধার্মিক এবং সত্য নিষ্ঠ। আপীল বিভাগের কয়েকটি রায়ে তিনি ভিন্নমত পোষণ করে যে ব্যতিক্রমী রায় দিয়েছেন তা অনাগত দিনে উজ্জল ইতিহাস হয়ে থাকবে। তার জনপ্রিয়তা, গ্রহণযোগ্যতা, দৃঢ়তা এবং মেধাদীপ্ত দক্ষতার সমপর্যায়ের প্রধান বিচারপতি অতীতে কতোজন ছিলো তা খোজা খুবই দুষ্কর বিষয়। কাজেই তিনি আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় কতটা দৃঢ় এবং কঠোর হবেন তা সহজেই অনুমেয়।


কোনো পরিবর্তন ছাড়াই গোলাম মাওয়া রনির ফেসবুক থেকে নেওয়া

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন