সদ্য সংবাদ

  এসপি মিজানের মৃত্যুতে সাতক্ষীরা জেলা পুলিশের শোকবার্তা।   আরব আমিরাতে নারী পাচারকারী ড্যান্সবারের মালিক কে এই আজম খান   খাশোগি হত্যার প্রধান সন্দেহভাজন সৌদি যুবরাজ : জাতিসংঘ   ধর্ষণের হুমকি পাচ্ছেন শাহিন এবং আলিয়া ভাট   ৫০ মণ ওজনের যুবরাজের দাম ৩০ লাখ!   পঞ্চগড়ে ভারিবর্ষণে নিমাঞ্চল তলিয়ে গেছে  সচিবের মেয়ে সাবরিনা নায়িকা হতে চেয়ে হলেন প্রতারক ডাক্তার   মরহুম রাষ্ট্রপতি এরশাদের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী মঙ্গলবার  তাহিরপুর উপজেলা প্রেসক্লাবের শোক প্রকাশ  আড়াইহাজারে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে গ্রেফতার ৪   আদালতে কেঁদে যা বললেন ডা. সাবরিনা  মানবপাচারে দুই কুয়েতি এমপিকে প্রায় ১৬ কোটি টাকা ঘুষ দেন পাপুল  সাহেদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি   যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম আর নেই  আড়াইহাজারে ক্ষতবিক্ষত এক বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার   নবীনগরে অগ্নিকান্ডে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি   সাহেদের দ্বিতীয় স্ত্রী সাদিয়ার সন্ধানে তৎপর আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী   ইসরাইলে সরকারের বিরুদ্ধে হাজার হাজার লোকের বিক্ষোভ  গোদাগাড়ীতে মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিকের উপর হামলা   বদরগঞ্জ কলেজের সাবেক প্রিন্সিপ্যাল করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত

ফেসবুকে গোপন তথ্য ফাঁস, কেঁদে ফেললেন প্রাক্তন পর্নস্টার!

 Thu, Sep 22, 2016 10:30 PM
ফেসবুকে গোপন তথ্য ফাঁস, কেঁদে ফেললেন প্রাক্তন পর্নস্টার!

ডেস্ক রিপোর্ট:: পর্নস্টারদের কি গোপনীয়তা বলে কিছু থাকতে নেই? এই প্রশ্নটাই এখন তুলে ধরেছেন বছর তিরিশের মারিয়া ওজাওয়া। যদিও এখন আর নীলছবিতে অভিনয় তাঁর পেশা নয়। এখন তিনি ফিলিপাইনসের ম্যানিলার এক পানশালার মালকিন!

কিন্তু একশোরও বেশি নীলছবিতে ইতিমধ্যে তাঁকে দেখেছেন অনেকেই! কখনও পুরুষের সঙ্গে, কখনও নারীর সঙ্গে, কখনও বা দলীয় যৌথ মৈথুনে ধরা দিয়েছে তাঁর লীলায়িত শরীরটি! ফলে, বর্তমান জীবিকার অনুমতিপত্রটি রিনিউ করাতে তিনি যখন পৌঁছলেন ফিলিপাইনসের ইমিগ্রেশন দফতরে, এক নজরেই তাঁকে চিনে ফেললেন ইমিগ্রেশন অফিসাররা!
এর পরের ঘটনা সংক্ষিপ্ত। মারিয়া তাঁর পাসপোর্টটি জমা দিয়ে চলে গেলেন নিশ্চিন্ত মনে। তাঁর যা কর্তব্য ছিল, তা পালন করা হয়ে গিয়েছে। এর পর বাকি দায়িত্ব ইমিগ্রেশন অফিসারের যাঁর কাছে তিনি পাসপোর্টটি জমা দিয়ে এসেছেন!
তবে ওই অফিসার কিন্তু নিজের দায়িত্ব পালন করেননি। উল্টে তিনি মারিয়ার পাসপোর্টটি আপলোড করে দিয়েছেন ইন্টারনেটে। সঙ্গে লিখেছেন, ”বাজি ধরছি এই মহিলাকে আপনারা সবাই চেনেন!” খানকতক কান্না আর হাসির স্মাইলি দিয়ে পোস্টটি ছাড়েন তিনি ইন্টারনেটে!
মারিয়া কিন্তু এসবের কিছুই জানতেন না। এক বন্ধু ওই ফেসবুক পোস্টটি দেখে তাঁকে গোটা ব্যাপারটা জানান। মারিয়া পোস্টটা দেখেন। এবং কেঁদে ফেলেন!
”প্রাক্তন পর্নস্টার বলে কি আমি মানুষকে বিশ্বাসও করতে পারব না? কোনও সাধারণ মানুষ যদি এই কাজটা করতেন, আমার কিছু বলার থাকত না। কিন্তু ইমিগ্রেশন অফিসার, যাঁদের বিশ্বাস করে আমরা আমাদের গোপন নথি তাঁদের হাতে তুলে দিই, সেই তাঁরাই যদি এমনটা করেন, তবে নিরাপত্তা বলে কিছু কি আর থাকে?” দু’ চোখ জল নিয়েই প্রশ্ন তুলেছেন মারিয়া।
অবশ্য এত কিছুর পরেও ওই ইমিগ্রেশন অফিসারের নামে আদালতে মামলা দায়ের করেননি মারিয়া। কেন না, এই ব্যবস্থার একটা বিহিত করা হবেই- এমনটাই আশ্বাস তাঁকে দিয়েছে ইমিগ্রেশন দফতর। আপাতত সেই মর্মে তারা ঘটনাটার তদন্তে নেমেছে।

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন