সদ্য সংবাদ

 বাড়ির জন্য ব্যাংক ঋণ পাওয়া যাবে ২ কোটি টাকা   ২ ভাইয়ের বাড়ি-প্লটের সংখ্যা মেলাতে হিমশিম খাচ্ছে সিআইডি  পেঁয়াজ লবণ চাল নিয়ে কৃত্রিম সংকট সৃষ্টিকারী কারও রেহাই নেই:  কাশ্মীর ইস্যুতে আর্থিক ক্ষতি ১১ হাজার কোটি টাকা!  গুজবে লবণের বাজারে অস্থিরতা, ১৭ ব্যবসায়ীকে আটক, ২২ জনকে জরিমানা  পঞ্চগড়ে কাজী ফার্মস এর জোনাল অফিসে হামলা, ভাংচুর ও লুটপাট  ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার  প্রথম বর্ষ ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ  হাসপাতালের লিফট ছিঁড়ে নিচে আমীর খসরুসহ ১২ বিএনপি নেতা   সড়ক আইনের বিরোধিতা করে বাস বন্ধ, দুর্ভোগে মানুষ  লিবিয়ায় বিস্কুট কারখানায় বিমান হামলায় ৫ বাংলাদেশি নিহত   শাকিব খানকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করেছে রাজউক  সানারপাড় হাই স্কুলের দুর্নীতিবাজ প্রধান শিক্ষক জহিরুলের বিরুদ্ধে এবার স্বাক্ষর জাল’র অভিযোগ  বিএসএফের গুলিতে দুই বাংলাদেশি নিহত   রাঙ্গামাটিতে গোলাগুলি, নিহত ৩   ইসরাইলি গুলিতে চোখ হারালেন ফিলিস্তিনি সাংবাদিক  পেঁয়াজ নিয়ে কারসাজি, আড়াই হাজার ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা   নবীনগরে আশ্রীতা জান্নাত পেল মাথা গোঁজার ঠাই   অপরাধীদের বিরুদ্ধে শুদ্ধি অভিযান: হারুনের চেয়েও কঠোর এসপি মনিরুল ইসলাম   এসপি হারুনের প্রেতাত্মারা জেলাকে অস্থিতিশীল করার যড়যন্ত্র করছে

রহস্যজনক’ ভাবে সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা দিলেন মিঠুন চক্রবর্তী

 Tue, Dec 27, 2016 12:26 PM
রহস্যজনক’ ভাবে সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা দিলেন মিঠুন চক্রবর্তী

ডেস্ক রিপোর্ট:: কলকাতা নির্ধারিত সময়ের আগেই সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা দিলেন মিঠুন চক্রবর্তী।

 তৃণমূলের তরফ থেকে সবুজ সঙ্কেত পাওয়ার পরেই আজ সোমবার ইস্তফা দেন মিঠুন। শারীরিক অসুস্থতার কারণেই এই ইস্তফা বলে জানা গিয়েছে। যদিও রাজনৈতিকমহলে এই ইস্তফা ঘিরে শুরু হয়েছে  নানা জল্পনা।

প্রসঙ্গত,  সারদা-কাণ্ডে নাম জড়ানোর পর থেকেই ‘রহস্যজনক’ ভাবে উধাও হয়ে যান তৃণমূল সাংসদ মিঠুন চক্রবর্তী। এমনকি, রাজ্যসভাতেও সেই ভাবে উপস্থিত হতে দেখা যায়নি মিঠুন চক্রবর্তীকে। একাধিকবার রাজ্যসভাতে চিঠি পাঠিয়ে ছুটি চেয়ে নিয়েছেন তৃণমূলের এই সাংসদ। সম্প্রতি শারীরিকভাবেও অসুস্থ তিনি। গত কয়েকদিন আগে হাসপাতালেও ভরতি করা হয়েছিল তাকে। আর সেই কারণে এই ইস্তফা বলে জানা গিয়েছে।

জানা গিয়েছে, তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে জানিয়েই এই ইস্তফা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মিঠুন। রাজ্যসভায় তাঁর মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা ২০২০ সালের এপ্রিলে। মিঠুনের জায়গায় কাকে পাঠাবেন তা এখনও মমতা ভাবেননি বলেই তৃণমূল সূত্রে খবর।


Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন