সদ্য সংবাদ

 সিদ্ধিরগঞ্জে কোনো মাদক,ভূমি দস্যু ও সন্ত্রাসীদের স্থান হবে না- এসপি  এমপি কামরুল ইসলামের ফোন রেকর্ড প্রকাশ: ডিশ ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার  করোনার টিকা বন্টনে ১৫৬ দেশের ‘ঐতিহাসিক চুক্তি’  নুরের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী  মিথ্যা মামলা রাজপথেই মোকাবিলা করব: ভিপি নুর   কম্বোডিয়ায় নারীর খোলামেলা পোশাক পরার ওপর নিষেধাজ্ঞা   রিমান্ড শেষে তিতাসের ৮ কর্মকর্তা-কর্মচারী জামিনে মুক্ত  স্বাস্থ্যের ২০ জনের সম্পদের হিসাব তলব   ট্রাম্পকে বিষ মেশানো চিঠি : এক নারী গ্রেফতার  বিক্ষোভ মিছিল থেকে ভিপি নুর আটক  আড়াইহাজারে ডাকাতদের অস্ত্রের আঘাতে মহিলাসহ আহত ৪  ডিপিডিসির প্রকৌশলী মাহাবুব ক্ষমতার দাপটে তিনটি পদ দখলে!  স্বাস্থ্য অধিদফতরের ড্রাইভারের ঢাকায় দুটি ৭ তলা বিলাসবহুল ভবন!  শীতে করোনা পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে পারে, প্রস্তুতি নিন: প্রধানমন্ত্রী  ওসি প্রদীপ ও স্ত্রী চুমকির সম্পত্তি জব্দের নির্দেশ  থাই রাজতন্ত্রের বিরুদ্ধে তরুণদের বিক্ষোভ   কে হচ্ছেন আহমদ শফীর উত্তরসূরি?  সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্ঠনী তৈরী করা হবে- রেল মন্ত্রী   নৌ প্রতিমন্ত্রীর সুস্থতা কামনায় বিআইডব্লিউটিএ দোয়া   করোনায় পুলিশের ‘বীরত্বগাঁথা’ নিয়ে বই

সংসদে অবজারভারের বিরুদ্ধে শামিম ওসমানের নোটিশ গ্রহণ

 Thu, Feb 16, 2017 11:42 AM
সংসদে অবজারভারের বিরুদ্ধে শামিম ওসমানের নোটিশ গ্রহণ

ডেস্ক রিপোর্ট:: গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরের জের ধরে সংসদ সদস্য শামীম ওসমানের দেওয়া বিশেষ অধিকার ক্ষুণেœর তিনটি পৃথক নোটিশ সংসদ গ্রহণ করেছে।

শামীম ওসমান ও তার পরিবারকে ‘জড়িয়ে’ইংরেজি পত্রিকা অবজারভার, প্রথম আলো ও অনলাইন নিউজ পোর্টাল বাংলা ট্রিবিউনে প্রকাশিত সংবাদের প্রেক্ষিতে নোটিশ দেন তিনি। নোটিশ তিনটির মধ্যে অবজারভার পত্রিকায় প্রকাশিত খবরের ভিত্তিতে দেওয়া নোটিশ গ্রহণ করলেও অন্য দুটি নিউজ কার্যপ্রণালী বিধির শর্ত পূরণ না হওয়ায় স্পিকার তা নাকচ করে দেন।

বুধবার জাতীয় সংসদের বৈঠকে প্রশ্নোত্তর টেবিলে উপ¯’াপন ও ৭১ বিধির নোটিশ ¯’গিতের পর স্পিকার শামীম ওসমানের নোটিশের প্রসঙ্গটি তোলেন। নারায়ণগঞ্জের সরকারি দলের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান গত ২৩ জানুয়ারি অবজারভার পত্রিকায় চড়ষরপব ধিরঃ চগ ড়ৎফবৎ ঃড় পৎধপশফড়হি ড়হ ফৎঁমং ষড়ৎফ ও গত ১ জুন ২০১৪ তারিখে প্রথম আলোয় ‘আইনজীবীকে হত্যায় অনুতপ্ত র‌্যাবের সাবেক তিন কর্মকর্তা’ শিরোনামে প্রকাশিত দুটি প্রতিবেদনে তাকে জড়িয়ে এবং গত ২৭ নভেম্বর ২০১৬ তারিখে সংসদ সদস্যের বাবাকে জড়িয়ে রিপোর্টে ব্যক্তিগত অধিকার ক্ষুণেœর অভিযোগ এনে ১৬৪ বিধিতে ব্যব¯’া নেয়ার জন্য স্পিকারের প্রতি অনুরোধ করেন।
নোটিশ তিনটির বিষয় কার্যপ্রণালী বিধি অনুযায়ী পরীক্ষা করা হয়েছে উল্লেখ করে স্পিকার সংসদকে বলেন, দ্বিতীয় ও তৃতীয় নোটিশটি বিশেষ অধিকার সম্পর্কিত বিধি ১৬৫ (২) অনুযায়ী বিশেষ অধিকার প্রশ্ন উত্থাপনের শর্তাবলী পূরণ করেনি মর্মে প্রতীয়মান হয়। কেননা কার্যপ্রণালী বিধির ১৬৫ (১) এ বলা হয়েছে, কোন সদস্য এক বৈঠকে অনুরূপ একাধিক প্রশ্ন উত্থাপন করতে পারবেন না। ১৬৫(২) বিধিতে বলা হয়েছে, প্রশ্নটি সাম্প্রতিক সংঘটিত কোন সুনির্দিষ্ট বিষয়ের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকবে এবং তা প্রথম সুযোগেই উত্থাপন করতে হবে।
এ প্রসঙ্গে স্পিকার বলেন, চলতি অধিবেশনের ২৬ জানুয়ারি সংসদ সদস্য এনামুল হক প্রথম নোটিশের অনুরূপ একটি নোটিশ দেওয়ার পর সংসদের ওইদিনের বৈঠকে তা উত্থাপিত হয় এবং কার্যপ্রণালী বিধির ১৬৮ বিধি অনুযায়ী সংসদ কর্তৃক তা বিশেষ অধিকার সম্পর্কিত ¯’ায়ী কমিটিতে প্রেরিত হয়। সংসদ সদস্য শামীম ওসমানের দ্বিতীয় এবং তৃতীয় নোটিশসমুহ ১৬৫ (২) অনুযায়ী বিশেষ অধিকার প্রশ্ন উত্থাপনের শর্তাবলী পূরণ করেনি তবে প্রথম নোটিশটি কার্যপ্রণালী বিধির ১৬৯ বিধি অনুযায়ী বিশেষ অধিকার সম্পর্কিত ¯’ায়ী কমিটিতে প্রেরণ করা হলো।

স্পিকারের সিদ্ধান্ত মেনে ফ্লোর নিয়ে নারায়ণগঞ্জের সেভেন মার্ডার হত্যা মামলার প্রতি ইঙ্গিত করে শামীম ওসমান বলেন, আপনি যে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তা মেনে নিয়েছি। কিš‘ প্রথম আলো ও ডেইলি স্টার এই দুটি পত্রিকা ক্রমান্নয়ে শুধু আমাকে নয়, তারা বিভিন্ন সময়ে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা পরিবর্তনে ভূমিকা রেখেছে। তবে আপনি বলেছেন, যেই সময় ঘটনা সংঘটিত হবে সেই সময়ে আমাকে এটা উত্থাপন করতে হবে। আমি এটার সঙ্গে একমত। কিš‘ যখন কোন বিষয় আদালতে বিচারাধীন থাকে সেই বিষয়ে কিš‘ আলোচনার সুযোগ থাকে না। সেই কারণে সেই সুযোগ আমার কাছে ছিল না। আপনি লক্ষ্য করেছেন ৩৮ মাস আমি অপেক্ষা করেছি। আইনি কারণেই এটা বিলম্বিত হয়েছে। এখানে আমার কিছু করার ছিল না। আমি আইনি বেড়াজালে পড়েছি। বিচারাধীন বিষয় বিধায় আমি আলোচনা করতে পারব না। যেহেতু রায় হয়েছে আমি আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল বলেই এখন উত্থাপন করছি।

ডেইলি স্টার ও প্রথম আলোর নাম উল্লেখ করে তিনি বলেন, এই দুটি পত্রিকা ওয়ান ইলেভেনে আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে দুর্নীতিবাজ বানানোর চেষ্টা করলেন। আল্লাহর রসুল (স.) নিয়ে এই পত্রিকা কটুক্তি করেছে। তাহলে কি তারা কোথাও জবাব দেবে না। আমি জানি তারা সুযোগ পেলে আবারও আমাকে ক্ষতবিক্ষত করবে। আমি এতে কেয়ার করি না। কারণ আমি আল্লাহ ও রসুলের (স.) পথে আছি এবং আমি এমন কোন কাজ করি না যে পৃথিবীর কোন বান্দার কাছে আমাকে মাথা নত করতে হবে। আমি ক্ষতবিক্ষত হতে পারি তবে আমার অজুহাতে যাতে আর কেউ ক্ষতবিক্ষত না হয় সেই ব্যব¯’া আপনি করেন।


Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন