সদ্য সংবাদ

 গাইবান্ধায় প্রথম আলো ট্রাষ্টের ত্রাণ বিতরণ   মুজিবনগর স্মৃতিসৌধে পুষ্পার্ঘ অর্পন করলে দুই ডিসি   সাঘাটায় টাকা নিয়ে দলিল করে না দিয়ে উল্টো গাছ কর্তন  অস্ট্রেলিয়া থেকে সঙ্গা ও সপ্তক ফেরার পরই সমাহিত হবেন এন্ড্রু কিশোর  ঝিনাইদহে পথচারীদের মাঝে ট্রাফিক সার্জেন্ট মোস্তাফিজুর রহমানের মাস্ক বিতরণ  ঝিনাইদহে গাঁজাসহ আদালতে কর্মরত পুলিশ সদস্য আটক  ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট বলসোনারো করোনায় আক্রান্ত   উপনির্বাচনের ব্যালটে ধানের শীষ না রাখার দাবি বিএনপির  ১৬ বছরেই মিলবে জাতীয় পরিচয়পত্র  কেনিয়ায় স্কুল শিক্ষাবর্ষ থেকে ২০২০ সাল ‘হাওয়া’   অনলাইন প্রতারক চক্রের মূল হোতা আটক  বাংলাদেশ থেকে ইতালির সব ফ্লাইট বন্ধ   তদন্তের স্বার্থে প্রকাশ করা যাচ্ছে না লঞ্চ দুর্ঘটনার কারণ : নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী   রিজেন্ট হাসপাতাল বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর।  নারায়ণগঞ্জ জেলা পিবিআই'র পুলিশ সুপার পদে মনিরুল ইসলামের যোগদান   কুড়িগ্রামের ডিসি সুলতানার বিরুদ্ধে আবারও তদন্ত হবে   রাজধানীর রিজেন্ট হাসপাতালে টেস্ট ছাড়াই করোনা পজিটিভ-নেগেটিভ সনদ  অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোশারফ হোসেন যোগ দিলেন নারায়ণগঞ্জে   রাত থেকেই আন্তর্জাতিক ফ্লাইটে আবারো নিষেধাজ্ঞা  এবার ভুটানের একটি অঞ্চল দাবি করছে চীন

সরকারি অনুদানের চলচ্চিত্রে রাজকন্যা ও ‘রাগী’ নিয়ে ব্যস্ত মুনমুন

 Mon, Dec 26, 2016 12:28 PM
সরকারি অনুদানের চলচ্চিত্রে রাজকন্যা ও ‘রাগী’ নিয়ে ব্যস্ত মুনমুন

বিনোদন ডেস্ক :: দেখতে দেখতে চলচ্চিত্রে প্রায় দুই দশক পার করলেন চিত্রনায়িকা মুনমুন। মাঝে পারিবারিক কারণে চলচ্চিত্রে অভিনয় থেকে দূরে থাকলেও বর্তমান সময়ে আবারো তিনি চলচ্চিত্রে নিয়মিত হয়ে উঠছেন।

 অভিনয় করছেন একের পর এক মানসম্পন্ন চলচ্চিত্রে। বর্তমানে দু’টি চলচ্চিত্রের শুটিং নিয়ে ব্যস্ত রয়েছেন মুনমুন। একটি জাভেদ জাহিদের ‘দুই রাজকন্যা’; অন্যটি মিজানুর রহমান মিজানের ‘রাগী’।

দু’টি চলচ্চিত্রেই মুনমুন গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করছেন। বিশেষ করে ‘রাগী’ চলচ্চিত্রে মুনমুন চ্যালেঞ্জিং একটি চরিত্রে অভিনয় করছেন, যা নিয়ে একটু বেশিই আশাবাদী। মুনমুন জানান, এ ধরনের চরিত্রে তিনি এর আগে কখনোই অভিনয় করেননি।

সম্প্রতি মুনমুন শেষ করেছেন দেলোয়ার জাহান ঝন্টুর ‘৫২ থেকে ৭১’ এবং ড্যানি সিডাকের নির্দেশনায় ‘কাঁসার থালায় রুপালী চাঁদ’। এ দুটি সরকারি অনুদানে নির্মিত চলচ্চিত্র। একই সাথে দু’টি সরকারি অনুদানের চলচ্চিত্রে কাজ করেও বেশ গর্বিত মুনমুন।

বর্তমান কাজ ও চলচ্চিত্রে আবার নিয়মিত হওয়া প্রসঙ্গে মুনমুন বলেন, ‘আমি তো মনেপ্রাণে একজন চলচ্চিত্রের মানুষ। চলচ্চিত্রই আমাকে আজকের মুনমুনে পরিণত করেছে। তাই এ শিল্পের প্রতি আমার আজীবন ভালোবাসা থাকবে। মাঝে পরিবার নিয়ে ভীষণ ব্যস্ত থাকায় চলচ্চিত্রে বেশ কয়েকটি বছর কাজ করা থেকে দূরে ছিলাম। আবারো চলচ্চিত্রে নিয়মিত কাজ করছি। তাই নিজের মধ্যে অন্য রকম ভালো লাগা কাজ করছে। বর্তমান সময়ের রাগী চলচ্চিত্রের চরিত্রটি নিয়ে আমি খুব আশাবাদী। চলচ্চিত্রে যারা আমাকে সবসময় সহযোগিতা করেছেন তাদের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ।’

১৯৯৭ সালে এহতেশাম পরিচালিত ‘মৌমাছি’ চলচ্চিত্রে মুনমুন প্রথম অভিনয় করলেও জীবন রহমান পরিচালিত ‘আজকের সন্ত্রাসী’ চলচ্চিত্রটির মাধ্যমে নায়িকা হিসেবে তার অভিষেক হয়। এতে তার বিপরীতে ছিলেন বাপ্পারাজ। তার অভিনীত রোমান্টিক চলচ্চিত্র শেখ জামাল পরিচালিত ‘লঙ্কাকাণ্ড’। এতে তার বিপরীতে ছিলেন জুয়েল। মুনমুন অভিনীত সর্বশেষ মুক্তিপ্রাপ্ত চলচ্চিত্র বাবুল রেজা পরিচালিত ‘কুমারী মা’। এটি ২০১৪ সালে মুক্তি পায়। এখন পর্যন্ত মুনমুন ৮৬টি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন।

তার অভিনীত একমাত্র কাহিনীচিত্র বিবেশ রায় পরিচালিত ‘ধানের কাব্য’। ২০০১ সালে এর শুটিং হয়েছিল সুনামগঞ্জের মধ্যনগর বাজারে। ‘ধানের কাব্য’তে অভিনয় করাটাও তার অভিনয় জীবনের এক বিশেষ অর্জন বলে মনে করেন মুনমুন। কারণ ‘ধানের কাব্য’ নির্মিত হয় প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক শাহেদ আলীর ছোটগল্প ‘ফসল তোলার কাহিনী’ অবলম্বনে। এতে মুনমুনের সঙ্গে আরো অভিনয় করেন মাহমুদুল ইসলাম মিঠু, ডা. গোপীরঞ্জন রায় পোদ্দার, হুমায়ূন কবির, প্রদীপ দেবনাথ, রজনী, হেনা, বিজন বিহারী রায় প্রমুখ।


Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন