সদ্য সংবাদ

 দুবাইয়ের ব্যবসায়ীর সঙ্গে বাগদান সারলেন বেনজিরের মেয়ে   বর্তমান সরকারের পতনের অবস্থা চলছে: ডা. জাফরুল্লাহ   বঙ্গবন্ধু রেলসেতুর ব্যয় হবে ১৭ হাজার কোটি টাকা  পঞ্চগড়ে কৃষকদের মাঝে সার-বীজ বিতরণ   নারায়ণগঞ্জ সদর থানার নতুন ওসি ধর্ষণ মামলায় অভিযুক্ত  ঝিনাইদহ আইনজীবী সমিতির নির্বাচন অনুষ্ঠিত  মোবারকগঞ্জ চিনিকল শ্রমিকদের মানববন্ধন  ডেপুটি স্পিকার অ্যাড.ফজলে রাব্বীকে গণসংবর্ধনা  যুক্তরাজ্যে নারীদের 'কুমারীত্ব পরীক্ষার'   পার্বত্য চট্টগ্রামের বছরে ৪শ’কোটি টাকার চাঁদাবাজি   না’গঞ্জে অবৈধ যানবাহনের দাপটে ঘটছে দুর্ঘটনা।   বাল্যবিয়ে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে এলাকাবাসীর ক্ষোভ   ‘প্রিয় বন্ধু’র মৃত্যুর দিনেই বিদায় নিলেন ম্যারাডোনা   নারীদের ‘জানোয়ারের’ সঙ্গে তুলনা করলেন ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী   কৌশানী মুখার্জির `ফিগার সিক্রেট’  বনানী কবরস্থানে শায়িত হলেন আলী যাকের  বিশ্বকে নেতৃত্ব দিতে এসেছে আমেরিকা: বাইডেন   দ্রুত ভ্যাকসিন পেতে সব প্রস্তুতি নিয়েছে সরকার: কাদের   চাল-তেলসহ বেড়েছে ৮ নিত্যপণ্যের দাম   করোনার মধ্যেই ডেঙ্গুর হানা, ২৪ ঘণ্টায় ১৮ রোগী হাসপাতালে

সরকারি অনুদানের চলচ্চিত্রে রাজকন্যা ও ‘রাগী’ নিয়ে ব্যস্ত মুনমুন

 Mon, Dec 26, 2016 12:28 PM
সরকারি অনুদানের চলচ্চিত্রে রাজকন্যা ও ‘রাগী’ নিয়ে ব্যস্ত মুনমুন

বিনোদন ডেস্ক :: দেখতে দেখতে চলচ্চিত্রে প্রায় দুই দশক পার করলেন চিত্রনায়িকা মুনমুন। মাঝে পারিবারিক কারণে চলচ্চিত্রে অভিনয় থেকে দূরে থাকলেও বর্তমান সময়ে আবারো তিনি চলচ্চিত্রে নিয়মিত হয়ে উঠছেন।

 অভিনয় করছেন একের পর এক মানসম্পন্ন চলচ্চিত্রে। বর্তমানে দু’টি চলচ্চিত্রের শুটিং নিয়ে ব্যস্ত রয়েছেন মুনমুন। একটি জাভেদ জাহিদের ‘দুই রাজকন্যা’; অন্যটি মিজানুর রহমান মিজানের ‘রাগী’।

দু’টি চলচ্চিত্রেই মুনমুন গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করছেন। বিশেষ করে ‘রাগী’ চলচ্চিত্রে মুনমুন চ্যালেঞ্জিং একটি চরিত্রে অভিনয় করছেন, যা নিয়ে একটু বেশিই আশাবাদী। মুনমুন জানান, এ ধরনের চরিত্রে তিনি এর আগে কখনোই অভিনয় করেননি।

সম্প্রতি মুনমুন শেষ করেছেন দেলোয়ার জাহান ঝন্টুর ‘৫২ থেকে ৭১’ এবং ড্যানি সিডাকের নির্দেশনায় ‘কাঁসার থালায় রুপালী চাঁদ’। এ দুটি সরকারি অনুদানে নির্মিত চলচ্চিত্র। একই সাথে দু’টি সরকারি অনুদানের চলচ্চিত্রে কাজ করেও বেশ গর্বিত মুনমুন।

বর্তমান কাজ ও চলচ্চিত্রে আবার নিয়মিত হওয়া প্রসঙ্গে মুনমুন বলেন, ‘আমি তো মনেপ্রাণে একজন চলচ্চিত্রের মানুষ। চলচ্চিত্রই আমাকে আজকের মুনমুনে পরিণত করেছে। তাই এ শিল্পের প্রতি আমার আজীবন ভালোবাসা থাকবে। মাঝে পরিবার নিয়ে ভীষণ ব্যস্ত থাকায় চলচ্চিত্রে বেশ কয়েকটি বছর কাজ করা থেকে দূরে ছিলাম। আবারো চলচ্চিত্রে নিয়মিত কাজ করছি। তাই নিজের মধ্যে অন্য রকম ভালো লাগা কাজ করছে। বর্তমান সময়ের রাগী চলচ্চিত্রের চরিত্রটি নিয়ে আমি খুব আশাবাদী। চলচ্চিত্রে যারা আমাকে সবসময় সহযোগিতা করেছেন তাদের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ।’

১৯৯৭ সালে এহতেশাম পরিচালিত ‘মৌমাছি’ চলচ্চিত্রে মুনমুন প্রথম অভিনয় করলেও জীবন রহমান পরিচালিত ‘আজকের সন্ত্রাসী’ চলচ্চিত্রটির মাধ্যমে নায়িকা হিসেবে তার অভিষেক হয়। এতে তার বিপরীতে ছিলেন বাপ্পারাজ। তার অভিনীত রোমান্টিক চলচ্চিত্র শেখ জামাল পরিচালিত ‘লঙ্কাকাণ্ড’। এতে তার বিপরীতে ছিলেন জুয়েল। মুনমুন অভিনীত সর্বশেষ মুক্তিপ্রাপ্ত চলচ্চিত্র বাবুল রেজা পরিচালিত ‘কুমারী মা’। এটি ২০১৪ সালে মুক্তি পায়। এখন পর্যন্ত মুনমুন ৮৬টি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন।

তার অভিনীত একমাত্র কাহিনীচিত্র বিবেশ রায় পরিচালিত ‘ধানের কাব্য’। ২০০১ সালে এর শুটিং হয়েছিল সুনামগঞ্জের মধ্যনগর বাজারে। ‘ধানের কাব্য’তে অভিনয় করাটাও তার অভিনয় জীবনের এক বিশেষ অর্জন বলে মনে করেন মুনমুন। কারণ ‘ধানের কাব্য’ নির্মিত হয় প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক শাহেদ আলীর ছোটগল্প ‘ফসল তোলার কাহিনী’ অবলম্বনে। এতে মুনমুনের সঙ্গে আরো অভিনয় করেন মাহমুদুল ইসলাম মিঠু, ডা. গোপীরঞ্জন রায় পোদ্দার, হুমায়ূন কবির, প্রদীপ দেবনাথ, রজনী, হেনা, বিজন বিহারী রায় প্রমুখ।


Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন