সদ্য সংবাদ

 চিকিৎসকের আচরণের প্রতিবাদ করেছেন পুলিশ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশন  ডাক্তার -পুলিশের মাঠ পর্যায়ের বাস্তবতা  করোনা আক্রান্ত হয়ে না ফেরার দেশে চলে গেলেন অভিনেত্রী কবরী  আশা ও তামাশার লকডাউন  কত বছর করোনার সঙ্গে থাকতে হবে কেউ জানিনা- ডা ফাহিম  ডলারের লোভে দুই মেয়েই অপহরণ করেছিলেন ম্যারাডোনাকে!  জনবল নিয়োগে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে অবিশ্বাস্য দুর্নীতি, কঠোর শাস্তি চায় টিআইবি  অভিষেক 'উমরাও জান' ছবিতে ঐশ্বরিয়ার প্রেমে পড়েন।   ছাত্রলীগ নেতার জিন্স প্যান্ট চুরির ভিডিও ভাইরাল   লকডাউনে পুলিশের কাছ থেকে ‘মুভমেন্ট পাস’ নিতে হবে।   নরেন্দ্র মোদির পরিকল্পনায় ৪ মুসলমানকে গুলি করে হত্যা-মমতা   এক সপ্তাহ সব ধরনের অফিস ও পরিবহন চলাচল বন্ধ থাকবে  র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার হেফাজতের ৪ নেতা  আহমদ শফীর মৃত্যু: বাবুনগরীসহ ৪৩ জনের বিরুদ্ধে প্রতিবেদন দিল পিবিআই  অপরিকল্পিত লকডাউন বিপজ্জনক পরিস্থিতির : রব  আড়াইহাজারে নবম শ্রেনীর ছাত্রীর ধর্ষক গ্রেফতার   নতুন নির্দেশনা, সাত দিন বন্ধ থাকবে ব্যাংক   অভিনেত্রী পায়েলের ওপর হামলা   বৃহত্তর জাতীয় ঐক্যের ডাক মির্জা ফখরুলের  নারায়ণগঞ্জ ডি‌বি পু‌লি‌শের সোর্স প‌রিচ‌য়ে বেপরোয়া সেই মোফাজ্জল ও মিশু চক্র

সুন্দরী অফিসারের হাতে গ্রেফতার হতে চান অপরাধীরা!

 Fri, Nov 24, 2017 3:51 AM
সুন্দরী অফিসারের হাতে গ্রেফতার হতে চান অপরাধীরা!

ডেস্ক রিপোর্ট : : সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সম্প্রতি এক সুন্দরী পুলিশ কর্মকর্তার ছবি নিয়ে বেশ সোরগোল চলছে ভারতে।

দেশটির অন্ধকার জগতের রথী-মহারথী ছাড়াও পুচকে অপরাধীরা নাকি এই পুলিশ কর্মকর্তার হাতে গ্রেফতার হওয়ার জন্য আকুল হয়ে উঠেছেন।


পাঞ্জাবের এই নারী পুলিশ কর্মকর্তার নাম ‘হরলীন মান’। মাঝারি উচ্চতার গৌরবর্ণ এই পুলিশ অফিসার সম্প্রতি চাকরিতে বহাল হয়েছেন বলে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে কথা চলছে।


তবে পাঞ্জাবের এই নারী পুলিশ কর্মকর্তা কিন্তু আসল পুলিশ নন। এই সুন্দরী পুলিশ অফিসার ‘গ্রেট গ্র্যান্ড মাস্তি’ ছবিতে চুটিয়ে অভিনয় করেছিলেন। সেই ছবিতে তার অ্যাপিয়ারেন্স সেবারও মাথা ঘুরিয়ে দিয়েছিল দর্শকদের।


এই সুন্দরী পুলিশ কর্মকর্তার নাম কাইনাত অরোরা। ‘জগ্গা জিউনদা ই’ নামে একটি পাঞ্জাবি ছবিতে ‘হরলীন মান’ নামে পুলিশ অফিসারের ভূমিকায় অভিনয় করছেন তিনি।


ছবিতে তার সঙ্গে অভিনয় করছেন জ্যাকি শ্রফ ও দলজিৎ কলসি। সম্প্রতি সেই ছবির শুটিংয়ের কয়েকটি ছবি নিজের ইনস্টাগ্রাম পেজে আপলোড করেছিলেন তিনি। আর মুহূর্তের মধ্যে ভাইরাল হয়ে গেছে তার ছবি।


এর মধ্যে ছিল পুলিশি পোশাকের ছবি, যা ছড়িয়ে পড়ে হাতে হাতে। সবাই ভেবে ফেলেন- সত্যিই হরলীন নামে ওই রকম চোখ ধাঁধানো সুন্দরী পুলিশ অফিসার নিয়োগ হয়েছে পাঞ্জাবে।


এতে বেশ বিড়ম্বনায় পড়েছেন কাইনাতও।


দেশটির গণমাধ্যমকে কাইনাত বলেন, প্রথমবার যখন শুনেছিলাম আমার ছবি কেউ পাঞ্জাবি পুলিশ অফিসার পরিচয় দিয়ে ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দিয়েছেন, তখন বেশ ঘাবড়েই গিয়েছিলাম। এর পর একের পর এক ফোন ও মেসেজ আসতে শুরু করে। প্রশংসায় ভরে গিয়েছিল মেসেজ বক্স।


সবাই তো চাইছেন আপনার হাতেই গ্রেফতার হতে, এমন প্রশ্নে কাইনাতের উত্তর- ‘আমি আপ্লুত।’

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন