সদ্য সংবাদ

 কালকিনিতে ১৩১ বাড়িতে লাল নিশানা লাগিয়ে দিলো প্রশাসন  করোনার বিরুদ্ধে সাইফুল ইসলাম শান্তির অভিযান শুরু  রংপুরে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে মাস্ক বিতরণ  নরসিংদীতে হোম কোয়ারেন্টিনে ২০৫ প্রবাসী  কালকিনির বিভিন্ন হাট-বাজারে হাতধোয়ার জন্য বেসিন স্থাপন  পঞ্চগড়ে সাড়ে ৭শ’ পিস হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ  রংপুরে করোনা প্রতিরোধে মাস্ক বিতরণ  পার্বতীপুরে শুধুমাত্র পূজার মধ্যদিয়ে ঐতিহ্যবাহী ‘বাহা পরব’ উদযাপিত  রংপুরে এরশাদের জন্মদিন পালিত  বিএফআরআইতে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী এবং জাতীয় শিশু দিবস পালিত  করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে পঞ্চগড়ে জরুরি বৈঠক  আতঙ্কিত না হয়ে সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে : সাদ এরশাদ এমপি  কালকিনিতে দুই প্রবাসীকে আর্থিক জরিমানা  পঞ্চগড়ে সীমিত পরিসরে মুজিববর্ষ পালিত  রংপুরে ৮টি রাস্তা পাকাকরণ ও ড্রেন নির্মাণ কাজ শুরু  কালকিনিতে বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী পালিত  পঞ্চগড়ে মুজিব উতসব পালিত  কালিয়াকৈর প্রেসক্লাবে বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী পালিত  রংপুরে যথাযোগ্য মর্যাদায় বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী পালিত  পঞ্চগড়ে কীটনাশক মুক্ত সবজির চাষ!

স্বামীর জামিনের বিরোধিতায় কান্নায় ভেঙে পড়েন মিলা

 Wed, Nov 15, 2017 3:48 AM
স্বামীর জামিনের বিরোধিতায় কান্নায় ভেঙে পড়েন মিলা

ডেস্ক রিপোর্ট : : স্বামী পারভেজ সানজারির জামিন আবেদনের শুনানিতে এজলাসে দাঁড়িয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন কণ্ঠশিল্পী মিলা ইসলাম।

ঢাকা মহানগর দায়রা জজ মো. কামরুল হোসেন মোল্লার আদালতে সানজারির জামিনের আবেদনের ওপর শুনানি হয়।


যৌতুকের দাবিতে মারধরের মামলায় সোমবার জামিনের বিরোধিতায় এজলাসে উঠে স্বামীর নির্যাতনের বর্ণনা দেয়ার সময় কেঁদে ফেলেন মিলা।  


মিলা দাবি করেন, বিয়ের চারদিন পর জোর করে আমাকে তালাক দিতে বলে সানজারি। আমি রাজি না হওয়ায় আমার সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করে। বিয়ের আগে তার সঙ্গে আমার ১১ বছরের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। ১১ বছরে কোনো সমস্যা হয়নি। কিন্তু বিয়ের চারদিনের মধ্যে তার আচরণ পরিবর্তন হয়ে যায়। আমি তার জামিন নামঞ্জুরের জন্য আদালতের কাছে অনুরোধ করছি।


এ কথা বলেই মিলা কান্নায় ভেঙে পড়েন। পরে আসামিপক্ষের আইনজীবীকে বাদীর সঙ্গে মীমাংসা করতে বলে আগামী ২৭ নভেম্বর পর্যন্ত সানজারির জামিনের মেয়াদ বাড়িয়ে দেন বিচারক।


এর আগে গত ২৫ অক্টোবর সানজারিকে অন্তর্বতী জামিন দিয়েছিলেন একই বিচারক। সোমবার মেয়াদ শেষ হলে আইনজীবী কাজী নজিবুল্যাহ হীরুর মাধ্যমে আত্মসমর্পণ করে ফের জামিনের আবেদন করেন সানজারি।


গত ৫ অক্টোবর রাজধানীর উত্তরা পশ্চিম থানায় মারধর ও যৌতুকের অভিযোগে মিলা বাদী হয়ে মামলাটি করেন। মামলা দায়েরের পরই সানজারিকে গ্রেফতার করে পুলিশ।


মামলার অভিযোগে বলা হয়, বিয়ের পর পর্যায়ক্রমে কয়েকবার মারধরের ঘটনা ঘটেছে। সর্বশেষ চলতি মাসের ৩ অক্টোবর মিলাকে মারধর করেন তার স্বামী। এর আগে স্বামী ৫ লাখ টাকা যৌতুক নিয়েছেন। আরও ১০ লাখ টাকা দাবি করলে তা না পেয়ে মিলাকে মারধর করা হয়।

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন