সদ্য সংবাদ

 পঞ্চগড়ে টিসিবি’র পেয়াঁজ বিক্রি শুরু  পঞ্চগড় থেকে দুর্নীতি বিরোধী নতুন ক্যাম্পেইনে  কোটচাঁদপুরে জোরপুর্বক অসহায় কৃষকের জমি দখলের চেষ্টা ১৪৪ ধারা জারী  ঝিনাইদহ গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎে দায়ে অবশেষে বদলী  আড়াইহাজারে অস্ত্র সহ ৫ ডাকাত গ্রেফতার  নবীনগরে সেচ্ছাশ্রমে পল্লী চিকিৎসকদের চিকিৎসা সামগ্রী বিতরণ  সাংবাদিকতায় বিশেষ অবদান রাখায় সাংবাদিক মোঃ জাফরুল হাসানকে সম্মাননা পদক প্রদান  পার্বতীপুরে পিকেএসএফ এর প্লট প্রদর্শনী  রংপুরে আন্তর্জাতিক ও জাতীয় প্রতিবন্ধি দিবস পালিত  পাটলাই নদীতে চাঁদা আদায়কালে ছয় চাঁদাবাজ আটক  তহশীলদার সহ সুনামগঞ্জে চার জুয়ারী কারাগারে!  নবীনগরে কৃষকের সম্পত্তি দখলের পায়তারা জোরপূর্বক ঘরের ভিটি তৈরী  ইয়োগার মাধ্যমে স্বাস্থ্যসেবা দিচ্ছে ঝিনাইদহের ইয়োগা মেডিটেশন সেন্টার  ঝিনাইদহের মধুহাটি ইউপি নায়েবের বিরুদ্ধে ব্যাপক ঘুষ বানিজ্য ও কর পরিশোধ রশিদ ছিড়ে ফেলার অভিযোগ  মহেশপুর নিশ্চিন্তপুর গ্রামের এতিম চারটি ভাই বোনের ঠিকানা এখন রাস্তায় !  ঝিনাইদহে নিম্নমানের ইট বালি দিয়ে গুরুত্বপূর্ণ মহাসড়ক নির্মাণ  আগামী দিনের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় তথ্যপ্রযুক্তি ভিত্তিক জ্ঞান অর্জন করতে হবে : রেলপথ মন্ত্রী  ঝিনাইদহে নিখোঁজের ৪ দিন পর মাদ্রাসাছাত্রের গলাকাটা লাশ উদ্ধার  পরিবার কল্যাণ সেবা ও প্রচার উপলক্ষে পঞ্চগড়ে এ্যাডভোকেসি প্রেস ব্রিফিং  পঞ্চগড়ে সীমান্ত কল্যাণ পরিবার সমিতির শীতবস্ত্র বিতরণ

আমি সব বললে সিদ্দিক গ্রেফতার হবে: মিম

 Tue, Oct 15, 2019 11:31 PM
আমি সব বললে সিদ্দিক গ্রেফতার হবে: মিম

বিনোদন ডেস্ক:: তিনমাস ধরে আলাদা থাকছেন অভিনেতা সিদ্দিক ও মারিয়া মিম।

এ দম্পতির পরিবারে ছয় বছরের পুত্র সন্তান থাকলেও ভাঙ্গনের মুখে তাদের সংসার। কেন বিচ্ছেদ হচ্ছে তাদের?অথচ প্রেমের টানে স্পেনের বিলাসী জীবন ছেড়ে অভিনেতা সিদ্দিকুর রহমানের কাছে ছুটে এসেছিলেন মারিয়া। পরিবারের সম্মতি নিয়ে ভালোবেসেই ঘর বেঁধেছিলেন দু’জন। সেই ভালোবাসার ঘর আজ ভাঙনের মুখে!

বিচ্ছেদের আগে একে অপরের বিরুদ্ধে আনছেন নানা অভিযোগ। এর আগে সিদ্দিক জানান, কেবল মিডিয়ায় কাজ করতে না দেওয়াতে আলাদা থাকছেন মিম। মিমকে তিনি তার সংসারে ফিরে আসার আহ্বানও জানান।

এদিকে সিদ্দিকের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ তার স্ত্রী মারিয়া মিমের। তিনি বলছেন, 'শুধু মিডিয়ায় কাজ করতে না দেওয়াই কারণ নয়; সিদ্দিকের সঙ্গে সংসার না করার শত শত কারণ রয়েছে। এমন অনেক বিষয় রয়েছে যা বললে গ্রেফতার হবেন সিদ্দিক।'

মারিয়া মিম বলেন, 'সত্য কথা হলো, বিয়ের পর থেকে আমাদের মধ্যে মনের অ-মিল শুরু হয়। বিয়ের আগে আমার কোনো কিছু নিয়ে সিদ্দিকের আপত্তি ছিল না। কিন্ত বিয়ের পর সে আস্তে আস্তে পরিবর্তন হতে থাকে। বিয়ের আগের সিদ্দিক আর বিয়ের পরের সিদ্দিকের মধ্যে মিল খুজে পেতাম না। সব মেয়েদের স্বপ্ন থাকে, তার স্বামী একজন ভালো মনের মানুষ হবে। পাশাপাশি একটা সুন্দর সংসার গড়ার স্বপ্ন দেখে দু'জনে মিলে। আমি সেটাই চেয়েছিলাম মনে প্রাণে।' 

মারিয়া আরও বলেন, 'সিদ্দিক আমার সব কাজ নিয়ে অভিযোগ করে। আমি সব কিছু ছেড়ে দিতাম। যদি আমার স্বামী আমাকে মানসিকভাবে শান্তি দিতো ও ভালোবাসতো। সিদ্দিক ঠিক হয়ে যাবে, সুন্দর একটি পরিবার হবে- এই আশায় সাত বছর পার করলাম। সব সহ্য করে গেছি এতোদিন। তবে এখন অনুভব করছি, আসলে জোর করে কিছু হয়না। অন্তত সংসার-সম্পর্ক হয় না।'

সিদ্দিকের বিরুদ্ধে প্রতারণা অভিযোগও আনেন মারিয়া মিম। তিনি বলেন, 'আমার পরিবার আর সিদ্দিকের সম্মানের কথা ভেবে ওর সবকিছু মেনে নিয়ে সংসার করে যাচ্ছি। বিয়ের পর থেকে সিদ্দিক আমার সঙ্গে নানাভাবে প্রতারণা করে আসছে। তারপর ছেলের মুখের দিকে তাকিয়ে সংসার করতে চেয়েছিলাম। সব কিছু তো আর বলা সম্ভব নয়, যদি বলতাম তাহলে এতদিনে ওকে জেলে থাকতে হতো।'

সন্তানের জন্য স্ত্রীকে সংসারে ফিরতে বলেছেন সিদ্দিক। এ বিষয়ে মিম বলেন, 'সন্তানের কথা ভেবেই তো এতোদিন চুপচাপ সব সহ্য করে সংসার করেছি। অথচ সে আমাকে সবসময় মানসিক টর্চারে রেখেছে।  আমি তো একটা মানুষ। আমারও সঠিকভাবে বাঁচার অধিকার আছে। এত কষ্ট আর সহ্য হচ্ছিল না। ওর সংসারে আমার কোন স্বাধীনতা নেই। এখন সেই আমাকে হুমকি দিচ্ছে বিভিন্নভাবে। তার নামে জিডিও করেছি। সে এখন মিডিয়ার সামনে মিথ্যা কথা বলে বেড়াচ্ছে আমার নামে। সব থেকে বড় কথা, আমার সন্তানের সঙ্গে আমাকে দেখা করতে দেয়না, কথা বলতে দেয়না। এটা একজন মায়ের জন্য কতটা কষ্টের তা কেবল মায়েরা বুঝতে পারবে। সিদ্দিকের ঘরে একরূপ, বাইরে আরেক রূপ।' 

২০১২ সালের ২৪ মে বিয়ে হয় বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত স্পেনের নাগরিক মারিয়া মিম ও সিদ্দিকের।

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন