সদ্য সংবাদ

 দুদকে যেতেই হবে ডিএজি রুপাকে   জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার-২০১৯ বিজয়ীদের নাম ঘোষণা  সিদ্ধিরগঞ্জে এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে হত্যা  ঘুষ নেওয়ার ভিডিও ভাইরাল, এএসআই প্রত্যাহার   পাকিস্তানের ১৯৭১ সালের নৃশংসতা অমার্জনীয় : প্রধানমন্ত্রী  ‘আওয়ামী লীগ ও বিএনপি দেশের মানুষকে হতাশ করেছে’   ২৫ ব্যাংকে খেলাপি ঋণ ৮০ হাজার কোটি টাকা  ঢাকার যাত্রীদের জন্য গুগল ম্যাপে নতুন ফিচার  নবীনগরে অজ্ঞাতনামা মহিলার লাশ উদ্ধার   ভাসান চর যেতে জড়ো হচ্ছে শত শত রোহিঙ্গা   পিরামিডের সামনে ‘আপত্তিকর’ ছবি, মিসরীয় মডেল গ্রেপ্তার   সিদ্ধিরগঞ্জে প্রো-অ্যাকটিভ ডাক্তারের অবহেলায় রোগী মৃত্যুর অভিযোগ   প্রতিবন্ধী মানুষের উন্নয়নে সমন্বিতভাবে কাজ করুন : প্রধানমন্ত্রী  করোনার টিকা সরবরাহে হানা দিতে পারে দুর্বৃত্তরা: ইন্টারপোল   এমসি কলেজ হোস্টেলে গণধর্ষণে অভিযুক্ত ৬, চার্জশিট বৃহস্পতিবার   মার্কিন দূতাবাসের কাছে ফেলে যাওয়া সেই ব্যাগে ছিল বালু ও তার   সভা-সমাবেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা সংবিধান পরিপন্থী: ফখরুল   হতাশাগ্রস্ত হয়ে আত্মহত্যা, নেপথ্যে প্রেম?  দুর্নীতিবাজ রুই-কাতলদের আইনের আওতায় আনতে হবে : হাইকোর্ট  সিদ্ধিরগঞ্জে দৃষ্টি প্রতিবন্ধী বৃদ্ধার জমি দখল করতে হামলা ও ভাংচুর ॥

আমি সব বললে সিদ্দিক গ্রেফতার হবে: মিম

 Tue, Oct 15, 2019 11:31 PM
আমি সব বললে সিদ্দিক গ্রেফতার হবে: মিম

বিনোদন ডেস্ক:: তিনমাস ধরে আলাদা থাকছেন অভিনেতা সিদ্দিক ও মারিয়া মিম।

এ দম্পতির পরিবারে ছয় বছরের পুত্র সন্তান থাকলেও ভাঙ্গনের মুখে তাদের সংসার। কেন বিচ্ছেদ হচ্ছে তাদের?অথচ প্রেমের টানে স্পেনের বিলাসী জীবন ছেড়ে অভিনেতা সিদ্দিকুর রহমানের কাছে ছুটে এসেছিলেন মারিয়া। পরিবারের সম্মতি নিয়ে ভালোবেসেই ঘর বেঁধেছিলেন দু’জন। সেই ভালোবাসার ঘর আজ ভাঙনের মুখে!

বিচ্ছেদের আগে একে অপরের বিরুদ্ধে আনছেন নানা অভিযোগ। এর আগে সিদ্দিক জানান, কেবল মিডিয়ায় কাজ করতে না দেওয়াতে আলাদা থাকছেন মিম। মিমকে তিনি তার সংসারে ফিরে আসার আহ্বানও জানান।

এদিকে সিদ্দিকের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ তার স্ত্রী মারিয়া মিমের। তিনি বলছেন, 'শুধু মিডিয়ায় কাজ করতে না দেওয়াই কারণ নয়; সিদ্দিকের সঙ্গে সংসার না করার শত শত কারণ রয়েছে। এমন অনেক বিষয় রয়েছে যা বললে গ্রেফতার হবেন সিদ্দিক।'

মারিয়া মিম বলেন, 'সত্য কথা হলো, বিয়ের পর থেকে আমাদের মধ্যে মনের অ-মিল শুরু হয়। বিয়ের আগে আমার কোনো কিছু নিয়ে সিদ্দিকের আপত্তি ছিল না। কিন্ত বিয়ের পর সে আস্তে আস্তে পরিবর্তন হতে থাকে। বিয়ের আগের সিদ্দিক আর বিয়ের পরের সিদ্দিকের মধ্যে মিল খুজে পেতাম না। সব মেয়েদের স্বপ্ন থাকে, তার স্বামী একজন ভালো মনের মানুষ হবে। পাশাপাশি একটা সুন্দর সংসার গড়ার স্বপ্ন দেখে দু'জনে মিলে। আমি সেটাই চেয়েছিলাম মনে প্রাণে।' 

মারিয়া আরও বলেন, 'সিদ্দিক আমার সব কাজ নিয়ে অভিযোগ করে। আমি সব কিছু ছেড়ে দিতাম। যদি আমার স্বামী আমাকে মানসিকভাবে শান্তি দিতো ও ভালোবাসতো। সিদ্দিক ঠিক হয়ে যাবে, সুন্দর একটি পরিবার হবে- এই আশায় সাত বছর পার করলাম। সব সহ্য করে গেছি এতোদিন। তবে এখন অনুভব করছি, আসলে জোর করে কিছু হয়না। অন্তত সংসার-সম্পর্ক হয় না।'

সিদ্দিকের বিরুদ্ধে প্রতারণা অভিযোগও আনেন মারিয়া মিম। তিনি বলেন, 'আমার পরিবার আর সিদ্দিকের সম্মানের কথা ভেবে ওর সবকিছু মেনে নিয়ে সংসার করে যাচ্ছি। বিয়ের পর থেকে সিদ্দিক আমার সঙ্গে নানাভাবে প্রতারণা করে আসছে। তারপর ছেলের মুখের দিকে তাকিয়ে সংসার করতে চেয়েছিলাম। সব কিছু তো আর বলা সম্ভব নয়, যদি বলতাম তাহলে এতদিনে ওকে জেলে থাকতে হতো।'

সন্তানের জন্য স্ত্রীকে সংসারে ফিরতে বলেছেন সিদ্দিক। এ বিষয়ে মিম বলেন, 'সন্তানের কথা ভেবেই তো এতোদিন চুপচাপ সব সহ্য করে সংসার করেছি। অথচ সে আমাকে সবসময় মানসিক টর্চারে রেখেছে।  আমি তো একটা মানুষ। আমারও সঠিকভাবে বাঁচার অধিকার আছে। এত কষ্ট আর সহ্য হচ্ছিল না। ওর সংসারে আমার কোন স্বাধীনতা নেই। এখন সেই আমাকে হুমকি দিচ্ছে বিভিন্নভাবে। তার নামে জিডিও করেছি। সে এখন মিডিয়ার সামনে মিথ্যা কথা বলে বেড়াচ্ছে আমার নামে। সব থেকে বড় কথা, আমার সন্তানের সঙ্গে আমাকে দেখা করতে দেয়না, কথা বলতে দেয়না। এটা একজন মায়ের জন্য কতটা কষ্টের তা কেবল মায়েরা বুঝতে পারবে। সিদ্দিকের ঘরে একরূপ, বাইরে আরেক রূপ।' 

২০১২ সালের ২৪ মে বিয়ে হয় বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত স্পেনের নাগরিক মারিয়া মিম ও সিদ্দিকের।

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন