সদ্য সংবাদ

 গাইবান্ধায় প্রথম আলো ট্রাষ্টের ত্রাণ বিতরণ   মুজিবনগর স্মৃতিসৌধে পুষ্পার্ঘ অর্পন করলে দুই ডিসি   সাঘাটায় টাকা নিয়ে দলিল করে না দিয়ে উল্টো গাছ কর্তন  অস্ট্রেলিয়া থেকে সঙ্গা ও সপ্তক ফেরার পরই সমাহিত হবেন এন্ড্রু কিশোর  ঝিনাইদহে পথচারীদের মাঝে ট্রাফিক সার্জেন্ট মোস্তাফিজুর রহমানের মাস্ক বিতরণ  ঝিনাইদহে গাঁজাসহ আদালতে কর্মরত পুলিশ সদস্য আটক  ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট বলসোনারো করোনায় আক্রান্ত   উপনির্বাচনের ব্যালটে ধানের শীষ না রাখার দাবি বিএনপির  ১৬ বছরেই মিলবে জাতীয় পরিচয়পত্র  কেনিয়ায় স্কুল শিক্ষাবর্ষ থেকে ২০২০ সাল ‘হাওয়া’   অনলাইন প্রতারক চক্রের মূল হোতা আটক  বাংলাদেশ থেকে ইতালির সব ফ্লাইট বন্ধ   তদন্তের স্বার্থে প্রকাশ করা যাচ্ছে না লঞ্চ দুর্ঘটনার কারণ : নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী   রিজেন্ট হাসপাতাল বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর।  নারায়ণগঞ্জ জেলা পিবিআই'র পুলিশ সুপার পদে মনিরুল ইসলামের যোগদান   কুড়িগ্রামের ডিসি সুলতানার বিরুদ্ধে আবারও তদন্ত হবে   রাজধানীর রিজেন্ট হাসপাতালে টেস্ট ছাড়াই করোনা পজিটিভ-নেগেটিভ সনদ  অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোশারফ হোসেন যোগ দিলেন নারায়ণগঞ্জে   রাত থেকেই আন্তর্জাতিক ফ্লাইটে আবারো নিষেধাজ্ঞা  এবার ভুটানের একটি অঞ্চল দাবি করছে চীন

ডিসির কাছে যুগ্মসচিব পরিচয় দিয়ে ধরা

 Thu, Oct 31, 2019 9:46 PM
ডিসির কাছে যুগ্মসচিব পরিচয় দিয়ে ধরা

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি:: টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসক (ডিসি) কার্যালয়ে যুগ্মসচিব পরিচয়ে প্রতারণার অভিযোগে ২ জনকে আটকের পর কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বুধবার রাতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রট সুখময় সরকার এই আদেশ দেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরাতরা হলেন- দিনাজপুর জেলার খানসাবা উপজেলার পাঠানপাড়া গ্রামের ইসমাইল হোসেনের ছেলে ও ভুয়া যুগ্মসচিব আশরাফ আলী এবং গাজীপুর জেলার কালিগঞ্জ উপজেলার উত্তর খইবাড়া গ্রামের হেলাল উদ্দিনের ছেলে মুমিন আকন্দ।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সুখময় সরকার বলেন, প্রতারক আশরাফ আলী নিজেকে যুগ্মসচিব পরিচয় দিয়ে জেলা প্রশাসক শহীদুল ইসলামের সঙ্গে দেখা করতে চান। গণশুনানী চলার সময় তিনি নিজেকে যুগ্মসচিব পরিচয় দিলে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের গোপনীয় শাখার কর্মচারিদের সন্দেহ হয়। পরে তারা তাকে বসতে বললে তিনি আরও উত্তেজিত হয়ে যান। এক পর্যায়ে গোপনীয় শাখার কর্মচারিদের হুমকি-ধমকি দেন তিনি। পরে জোরপূর্বক জেলা প্রশাসকের কক্ষে ঢুকে অসংলগ্ন আচরণ করেন। এ সময় জেলা প্রশাসকের সন্দেহ হলে তিনি পুলিশ ডাকেন। পরে বাইরে অবস্থানরত তার সহযোগীকেও গ্রেফতার করা হয়।

জিজ্ঞাসাবাদে আশরাফ পুলিশের কাছে বলেন, বিভিন্ন মানুষের কাছ থেকে চাকরির কথা বলে তিনি টাকা নেন। তারা গত তিন মাসের মধ্যে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরসহ বিভিন্ন কার্যালয়ে গিয়েছেন। বিভিন্ন দপ্তরে একেক পরিচয় দেন। কখনও যুগ্মসচিব, কখনও বিচারপতির ভাই, আবার কখনও রাজনৈতিক নেতার এপিএস পরিচয়ে চলতো তাদের প্রতারণা।

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন