সদ্য সংবাদ

 হাসপাতালের লিফট ছিঁড়ে নিচে আমীর খসরুসহ ১২ বিএনপি নেতা   সড়ক আইনের বিরোধিতা করে বাস বন্ধ, দুর্ভোগে মানুষ  লিবিয়ায় বিস্কুট কারখানায় বিমান হামলায় ৫ বাংলাদেশি নিহত   শাকিব খানকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করেছে রাজউক  সানারপাড় হাই স্কুলের দুর্নীতিবাজ প্রধান শিক্ষক জহিরুলের বিরুদ্ধে এবার স্বাক্ষর জাল’র অভিযোগ  বিএসএফের গুলিতে দুই বাংলাদেশি নিহত   রাঙ্গামাটিতে গোলাগুলি, নিহত ৩   ইসরাইলি গুলিতে চোখ হারালেন ফিলিস্তিনি সাংবাদিক  পেঁয়াজ নিয়ে কারসাজি, আড়াই হাজার ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা   নবীনগরে আশ্রীতা জান্নাত পেল মাথা গোঁজার ঠাই   অপরাধীদের বিরুদ্ধে শুদ্ধি অভিযান: হারুনের চেয়েও কঠোর এসপি মনিরুল ইসলাম   এসপি হারুনের প্রেতাত্মারা জেলাকে অস্থিতিশীল করার যড়যন্ত্র করছে   নারায়ণগঞ্জের এসপি মনিরুলের উদ্যোগে ভবন ধসে নিহত ওয়াজিদের জন্য দোয়া  সিদ্ধিরগঞ্জে ফেন্সিডিলসহ চাঁদাবাজ মুন্নার ২ সহযোগি গ্রেফতার  ১৫০ যাত্রীসহ ভারতীয় বিমানকে ‘বাঁচাল’ পাকিস্তান  বিপিএলের প্লেয়ারেরা কে কোন দলে খেলবে   ঢাকার পথে পাথরঘাটার বিস্ফোরণে দগ্ধ অর্পিতা  থানার ভেতরে মারধর আ`লীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা , অপরাধীর পক্ষ নেওয়ায় ওসি তদন্ত ক্লোজড  আমির খানের মেয়ের ছবিতে মিডিয়ায় তোলপাড়   শেখ হাসিনা জনগণের সঙ্গে নির্মম রসিকতা করছেন: রিজভী

বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক সৈনিক সাবেক যুবলীগ নেতা শফিকুল সরকার

 Fri, Nov 8, 2019 10:51 PM
বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক সৈনিক সাবেক যুবলীগ নেতা শফিকুল সরকার

রাজশাহী প্রতিনিধিঃ: রাজশাহী জেলার গোদাগাড়ী উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি শফিকুল ইসলাম সরকারের

 সরব প্রত্যাবর্তনে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে ফের প্রাণচাঞ্চল্যর সৃষ্টি হয়েছে গোদাগাড়ীর সর্বত্রে। সাংগঠনিক কর্মকান্ড হয়েছে গতিশীল,নেতা ও কর্মী-সমর্থকগণ ফিরে পেয়েছে প্রাণশক্তি, এক কথায় বলতে গেলে এখন গোদাগাড়ীতে  আওয়ামী লীগের প্রাণ  শফিকুল ইসলাম সরকার। এলাকা ঘুরে জানা যায়, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের জনমত গড়ে তুলতে তিনি গোদাগাড়ী তানোর উপজেলায় জনগনের মাঝে অবস্থান করেন। এ সময় তিনি  গোদাগাড়ীর একপ্রান্ত থেকে এক প্রান্ত সর্বত্রে নৌকার প্রচার-প্রচারণা ও গণসংযোগের মাধ্যমে সরব বিচরণ করেন এবং নৌকার পক্ষে জনমত গড়ে তুলতে অনেকটা সফলতাও অর্জন করেন।শফিকুল সরকারের
ডাকে গোদাগাড়ী উপজেলাবাসীর আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের রাজনীতিতে ইতিবাচক নাটকিয় পরিবর্তন সাধিত হয়। এবং পথসভা,জনসভা,উঠান বৈঠকে জনতার স্রোত লক্ষ করা যায়। সফিকুল সরকারের এসব কর্মসূচির ফলে গোদাগাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের মধ্যেও ব্যাপক প্রাণচাঞ্চল্যর সৃষ্টি হয়েছে।

জানা গিয়েছে, গোদাগাড়ী আওয়ামী যুবলীগের সাবেক সভাপতি, বজ্রকন্ঠের অধিকারী বর্ষিয়ান যুবলীগ নেতা, এই জনপদের শ্রেষ্ঠ বক্তা ও সবার প্রিয় শফিকুল ইসলাম সরকার দীর্ঘদিন পরে আবারো রাজনীতিতে সক্রিয় হওয়ায় আওয়ামী লীগ ও যুবলীগের নেতাকর্মী-সমর্থকসহ সাধারণ জনগনের মাঝে রীতিমতো বিরাজ করছে উৎসবের আমেজ,ফিরে এসেছে প্রাণচাঞ্চল্য।অর্থলোভ,অবৈধ সম্পদ,ক্ষমতার লোভ কিছুই আ'লীগের এই ত্যাগী নেতাকে গ্রাস করতে পারেনি।এক সময়ে আ'লীগের এই ত্যাগী নেতা সফিকুল ইসলাম সরকারকে  নানানরকম প্রলোভন দিয়ে বিএনপি দলে ভেরাতে চেষ্টা করেছিলেন বিএনপি জামায়াতের নেতকর্মীগন।পরক্ষনে ব্যর্থ হয়ে তারা ত্যাগী ও নিবেদিতপ্রাণ এই নেতার ওপর জেল-জুলুম-মামলা-হামলাসহ নানান রকম নির্যাতন করেন। কিন্তু বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণিত এই নেতা আর কখনই আদর্শচ্যুত হয়নি, ছেড়ে যায়নি আওয়ামী লীগ দল। তবে তিনি ব্যক্তিগত কারণে দীর্ঘদিন রাজনীতিতে সক্রিয় ছিলেন না।

পরক্ষনে সরবে রাজনৈতিক অঙ্গনে  ফিরে এলে আবারো নেতা-কর্মীসহ গোদাগাড়ী উপজেলাবাসীর মাঝে রিতীমত স্পন্দন সৃষ্টি করেছেন।গোদাগাড়ীর রাজনীতিতে তিনি সক্রিয় হওয়ার পরই আওয়ামী লীগ ও যুবলীগের রাজনীতিতে ফের প্রাণচাঞ্চল্য ফিরে এসেছে।বজ্রকন্ঠের অধিকারী শফিকুল সরকারের বক্তব্য শোনার জন্য এখানো তাঁর ভক্ত-অনুরাগি ও হাজারো মানুষ অপেক্ষায় থাকে। এখানো তাঁর বক্তব্য শুনলে মনে পড়ে যায় ৫২-এর ভাষা আন্দোলন, ৭১-এর মুক্তিযুদ্ধ, বঙ্গবন্ধুর সেই বিখ্যাত ২৭শে মার্চের ভাষণ ও ৯০-এর গণঅভূখ্যানের কথা। এখানো তাঁর বক্তব্য শুনে অনেক আওয়ামী লীগবিরোধী আওয়ামী লীগের আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হয়।এই জনপদের হাজারো মানুষ আগামি দিনে আওয়ামী লীগের বিভিন্ন কর্মসূচিতে তাঁর বক্তব্য শোনার জন্য অধির অপেক্ষায় রয়েছে।

সফিকুল সরকার জানান, রাজনীতিতে তরুণ প্রজন্মের মেধা কিভাবে কাজে লাগানো যায় আমি সেই চেষ্টা করছি। বর্তমানে তরুণ প্রজন্ম রাজনীতির প্রতি চরম অনিহা দেখাচ্ছেন। আমি চেষ্টা করছি কিভাবে তরুণ প্রজন্মকে আধূনিক তথ্যসমৃদ্ধ করে রাজনীতির প্রতি পজেটিভ ধারণা দেয়া যায়। সেই লক্ষ পূরণের জন্য সেই পথ ধরেই এগুচ্ছি আমি। তিনি বলেন, এক সময় বিশেষ করে যুবলীগের নেতাকর্মীদের প্রতি এলাকার সাধারণ মানুষের নেতিবাচক ধারণা ছিল। স্থানীয় সাংসদ ও সাবেক শিল্প প্রতিমন্ত্রী ওমর ফারুক চৌধূরীর নেতৃত্বে ও দিক নির্দেশনায় আমি চেষ্টা করছি সেই ধারণা পাল্টে দিতে,ইতিমধ্যে আমরা অনেকটা সফলও হয়েছি।সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে দলীয় কর্মকান্ড কিভাবে ডিজিটালাইজড ও এই প্রজন্মের নতুন ভোটারদের আওয়ামী লীগের পক্ষে নিয়ে আসা যায় সে চিন্তা মাথায় নিয়ে গবেষণা ও কাজ শুরু করেছি,যা ইতিমধ্যে লক্ষনীয়। রাজনীতিতে কিভাবে পরিবর্তন আনা যায়, মেধাভিত্তিক রাজনীতি প্রচলন কিভাবে পুনরায় করা যায়, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অস্ত্রের ঝনঝনানি কিভাবে বন্ধ করা যায় এবং শিক্ষাঙ্গনের অস্থিরতা কিভাবে দুর করা যায় এসব নানা বিষয়ে আমরা নতুন কিছু আবিস্কারের চেষ্টা করছি। তিনি বলেন, স্থানীয় সাংসদ ও সাবেক শিল্প প্রতিমন্ত্রী ওমর ফারুক চৌধূরী রাজনৈতিক দূরদর্শি সম্পন্ন সৃষ্টিশীল মানুষ। তিনি রাজনীতিকে অর্থের কাছে নয় বরং মেধার কাছে জিম্মি রাখতে চান।
তার দিক নির্দেশনায় আমি যুবলীগের নেতাকর্মীদের সেইভাবে গড়ে তোলার কাজ করছি। শফিকুল সরকার ছোটবেলা থেকেই পরিবারের সবার মুখে জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু,গণতন্ত্রের মানসকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা ও মুক্তিযুদ্ধ এসব শব্দ শুনতে শুনতে বুঝতে শেখার পরপরই এ সংগঠনের প্রতি দুর্বল হয়ে পড়েন। এক সময় জাতীর জনক বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রানিত হয়ে তিনিআওয়ামী যুবলীগের লীগের রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হয়ে পড়েন। তিনি বলেন, সাধারণ মানুষের কল্যাণে আজীবন কাজ করে যেতে চাই।

আওয়ামী লীগ সম্পর্কে বলতে গিয়ে তিনি আরো বলেন, সরকারে থাকলে সেই দলের যে পরিস্থিতি হয় আওয়ামী লীগেরও তাই হয়েছে। তবে এটা ভাবার কোনো অবকাশ নেই যে আওয়ামী লীগ সাংগঠনিকভাবে আগের চেয়ে দুর্বল নয়। বরং যে কোন সময়েরচেয়ে এখানো আওয়ামী লীগ সাংগঠনিক ভাবে আরো বেশী সক্রিয় ও শক্তিশালী। বর্তমান সরকারের প্রচুর সাফল্য আছে উল্লেখ করে সেগুলো সঠিকভাবে তুলে ধরতে পারলে আওয়ামী লীগ আবারো রাষ্ট্রিয় ক্ষমতায় আসবে বলে তিনি দাবী করেন। তিনি বলেন, দেশ,দেশের মানুষ,নেতা ও দলের কাছে থেকে কি পেলাম বা কি পেলাম না সেটা না ভেবে বরং আমি বা আমরা দেশ, দেশের মানুষ, নেতা ও দলের প্রতি কি অবদান রাখতে পেরেছি বা পারিনি কেন পারিনি সেটা অন্তরে রেখে কাজ করতে হবে। তিনি তৃণমূলের নেতাকর্মী ও সমর্থকদের প্রতি আহবান জানিয়ে বলেন, দল,নেতা ও নেতৃত্বের প্রতি অবিচল আস্থা রেখে কাজ করে যেতে হবে। তিনি বলেন,গোদাগাড়ী উপজেলাবাসী ঐক্যবদ্ধ হয়ে আমাকে যেভাবে তাদের ভিতরে জায়গা করে সকল প্রকার সাহায্য  করার জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।এজন্য দলের নেতা কর্মীসহ,উপজেলাবাসীর নিকট কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এবং আজীবন সাধারণ জনগনের পাশে থেকে দলের পক্ষে কাজ করার আশাবাদব্যাক্ত করেন আ'লীগের এই ত্যাগী নেতা।

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন