সদ্য সংবাদ

 রংপুরকে গুড়িয়ে দিয়ে উড়ন্ত সূচনা করল কুমিল্লা  কেরানীগঞ্জে প্লাস্টিক কারখানায় অগ্নিকাণ্ডে নিহত ১, দগ্ধ ২৮  আমরা এখনও বিচার বিভাগকে বিশ্বাস করি: রিজভী  মিয়ানমারকে মানবাধিকার লঙ্ঘন বন্ধ করতে হবে: মিলার  জনগণকে সাথে নিয়ে অগ্নিসন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দমন করতে সক্ষম হয়েছি : আইজি  অমিত শাহর বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় যা বললেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী  কালিয়াকৈরে অজ্ঞাত যুবককে কুপিয়ে হত্যা  নাগেশ্বরী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ নবাগত চিকিতসকদের যোগদান  ‘মানবতার বন্ধনে রংপুর’ কর্তৃক মাদ্রাসায় খাবার বিতরণ  দেশে মূর্খের শাসন চলছে: ব্যারিস্টার মইনুল  থানায় জিডি করলেই আসবে ঢাকা রেঞ্জের ফোন  ফতুল্লায় কিশোরী গণধর্ষণে ৬ জন গ্রেফতার   এস কে সিনহার বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল  আদালতের কাঠগড়ায় পাথরের মতো বসে ছিলেন সু চি  পার্বতীপুরে রেলওয়ে জেলা স্কাউটস এর কাউন্সিল অনুষ্ঠিত  কালিয়াকৈরে কলেজ ছাত্র হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন  ভ্যাটের টাকায় দেশ উন্নয়নের উচ্চ শিখরে পৌঁছে যাবে  কুয়াশা পড়ছে মাঝ রাতে দিনে রোদ  নবীনগরে স্থানীয় এনজিও হোপের ২১ তম সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত  খুলনা জেলা ও নগর আওয়ামীলীগের সম্মেলন কাল

রংপুরের মেরিন একাডেমি ডিসেম্বরে উদ্বোধন

আগামী বছর শিক্ষা কার্যক্রম চালু

 Tue, Nov 12, 2019 8:53 PM
রংপুরের মেরিন একাডেমি ডিসেম্বরে উদ্বোধন

রংপুর থেকে রুকসানা রাফা: রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলায় নির্মাণাধীন মেরিন একাডেমি প্রকল্পের কাজ শেষ পর্যায়ে। আগামী ডিসেম্বরেই এর উদ্বোধন করা হবে বলে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ আশা করছেন। এর ফলে নির্ধারিত সময়ের আগেই আগামী ২০২০ সালের জানুয়ারী মাস থেকে নতুন বছরে রংপুরের মেরিন একাডেমির শিক্ষা কার্যক্রম চালু হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলা সদর থেকে প্রায় ৪ কিলোমিটার পশ্চিমে রায়পুর ইউনিয়নের সবুজ-শ্যামল প্রান্তরের ‘ফলির বিল’ নামক স্থানে ১০ একর জমির উপর গণপূর্ত অধিদপ্তরের তত্বাবধানে ১০০ কোটি ৫ লাখ টাকা ব্যয়ে এ মেরিন একাডেমি নির্মাণ করা হচ্ছে। প্রকল্পটির দ্বিতীয় দফার মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই এর নির্মান কাজ শেষ হচ্ছে বলে গণপূর্ত অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে। সম্প্রতি সরেজমিনে গণপূর্ত অধিদপ্তর, রংপুর অঞ্চলের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী আশরাফুল আলম, তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী আব্দুল গফফার, নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ শাকিউল আলম ও নির্বাহী প্রকৌশলী (ইএম) মোহাম্মদ জিয়াউর রহমান প্রকল্প এলাকা পরিদর্শন করেছেন। তারা সাংবাদিকদের জানান, বর্তমান সরকারের গৃহিত রূপকল্প-২০২১ এবং রূপকল্প-২০৪১ অনুযায়ী মানব সম্পদ উন্নয়ন, বেকার সমস্যার সমাধান, দারিদ্র্য দূরীকরণ এবং অর্থনৈতিক উন্নয়নের লক্ষ্যে নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে বাংলাদেশের ৪ জেলায় আন্তর্জাতিক মানের মেরিন একাডেমি নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলায় ১০০ কোটি ৫ লাখ টাকা ব্যয়ে এ মেরিন একাডেমি প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। এ প্রকল্পের আওতায় একাডেমিক ভবন ছাড়াও প্রশাসনিক ভবন, প্যারেড গ্রাউন্ড, ডরমেটরী ভবন, ৭টি আবাসিক ভবন, মসজিদ, অত্যাধুনিক জিমনেসিয়াম, সুইমিংপুলসহ ৩৫টি অবকাঠামোর প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। কার্যতঃ ২০১২ সালে এ প্রকল্পটির কার্যক্রম শুরু হয় এবং ২০১৫ সালের মধ্যেই এর কাজ শেষ হওয়ার কথা ছিল। তবে প্রকল্প সংক্রান্ত জমি অধিগ্রহণ ও হস্তান্তর, সংশোধিত ডিপিপি প্রনয়ণ এবং অনুমোদনের বিলম্বের কারণে এ প্রকল্পের মেয়াদ এবং এর ব্যয়ভার বেড়ে যায় বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। ফলে রংপুরসহ দেশের ৪টি মেরিন একাডেমি প্রকল্প বাস্তবায়নের মেয়াদ ২০১৫ সালের পরিবর্তে ২০২০ সালের জুন মাস নাগাদ প্রকল্প বাস্তবায়নের মেয়াদকাল শেষ হওয়ার সময় নির্ধারণ করা হয়। প্রকল্পের ব্যয়ভার পূর্বের মোট প্রকল্পমূল্য ৪৪০ কোটি ৩৭ লাখ টাকা থেকে বেড়ে বর্তমানে ৪৪৫ কোটি ৯৭ লাখ টাকায় দাঁড়িয়েছে। তবে প্রকল্প সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগণ আশা করছেন, বর্তমানে যে গতিতে এর কাজ চলছে, তাতে আগামী ডিসেম্বর মাসেই এসব ভবন এবং অবকাঠামো মেরিন একাডেমি কর্তৃপক্ষের নিকট হস্তান্তর করা সম্ভব হবে। এ প্রকল্পের সকল অবকাঠামো নির্মাণ কাজ ইতোমধ্যেই শেষ হয়েছে। এখন চলছে এসবের ফিনিসিং টাচ্। প্রকল্পের অবকাঠামো হস্তান্তর করা হলেই শুরু হবে এর বহু প্রত্যশিত শিক্ষা কার্যক্রম। রংপুরের মেরিন একাডেমি প্রকল্পটি চালু হলে উত্তরাঞ্চলের অবহেলিত এ জনপদের সাধারণ জনগোষ্ঠির শিক্ষা-দীক্ষা ও দক্ষতা বৃদ্ধিসহ এখান থেকে দেশ-বিদেশের চাহিদা অনুযায়ী দক্ষ নৌ-কর্মকর্তা ও নৌ-প্রকৌশলী তৈরী হবে। প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের কারিকুলাম মোতাবেক ৪ বছর মেয়াদ কালের এ কোর্সের প্রথম পর্যায়ে প্রতি বছর ১০০ জন করে দক্ষ নাবিক ও নৌ-প্রকৌশলী বের হবে। এছাড়া দেশের সকল জেলায় সমুদ্র বিষয়ক জ্ঞানচর্চার সুযোগ তৈরী হবে। এর ফলে দক্ষ ও বিশেষজ্ঞ নাবিক ও নৌ-প্রকৌশলী তৈরী করে তাদের বিদেশে প্রেরণের মাধ্যমে অধিক পরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের সুযোগ সৃষ্টি হবে। সেইসাথে মানবসম্পদ উন্নয়নের মাধ্যমে বেকার সমস্যারও সমাধান করা সম্ভব হবে। প্রকল্পটির কার্যক্রম শুরু হলে এখানে ১০০ জনের স্থায়ী কর্মসংস্থান এবং ১০০ জনের আউটসোর্সিংসহ প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষভাবে দুই শতাধিক ব্যক্তির কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে বলে প্রকল্প সংশ্লিষ্ট সুত্র জানিয়েছে।

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন