সদ্য সংবাদ

 এসপি জানতেন ওসি প্রদীপের ‘জলসা ঘরে’ চলত ভ’য়ংকর সব অপরাধ!  এবার রাজশাহী রেঞ্জ এসপির বিরুদ্ধে ব্যবসায়ীর চাঁদাবাজির মামলা  আড়াইহাজারে মার্কেটের ছাদে যুবকের গলাকাটা লাশ  সুশাসনের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় টিআইবির নয় দফা  নির্বাচনে দলীয় টিকেট নিশ্চিত করেছেন ইলহান ওমর   ক্রসফায়ারের ভয় দেখিয়ে অর্থ আদায়, পাঁচ পুলিশের বিরুদ্ধে মামলা   ওসি শিশিরের অপকর্ম তদন্তে পুলিশ হেডকোয়াটার্সের টিম বরিশালে   বাড়ার পর এবার স্বর্ণের দাম কমল   সিফাতের ভাষ্য: বাংলাদেশ কাম ডাউন, কাম ডাউন, এরপর গুলি..   মেজর সিনহা হত্যা মামলা: ১৬ আগস্ট গণশুনানি করবে তদন্ত কমিটি   মেজর সিনহার হত্যাকাণ্ড নিয়ে যা বললেন এমপি হারুন  বর্ধিত বাসভাড়া বাতিলের দাবিতে সীতাকুণ্ডে যাত্রী কল্যাণ সমিতির সমাবেশ  শৈলকুপায় প্রেমের ফাঁদে ফেলে ৬ মামলার আসামী গ্রেফতার   ঝিনাইদহে মোট আক্রান্ত ১২১৩ ও মৃত্যু ৪০ জন  পঞ্চগড়ে শিক্ষক নিয়োগে হাতিয়ে নিয়েছে ৩০ লাখ টাকা   মেজর সিনহার খুনী পুলিশ পরিদর্শক লিয়াকতের বিরুদ্ধে যত অভিযোগ  নিজের জন্ম শহরে ৫০টি ভেন্টিলেটর দিলেন মেসি   পুলিশের সংস্কার প্রয়োজন- এসপি মোহাম্মদ জায়েদুল আলম   নায়িকার শরীর নিয়ে মন্তব্য করে বিপাকে পরিচালক  সরকার পদত্যাগের পরও যে কারণে বিক্ষোভে উত্তাল বৈরুত

জেনেভা থেকে ২ মানবাধিকার কর্মীকে অপহরণ করেছে সৌদি!

 Tue, Nov 12, 2019 10:20 PM
জেনেভা থেকে ২ মানবাধিকার কর্মীকে অপহরণ করেছে সৌদি!

এশিয়া খবর ডেস্ক:: সুইজারল্যান্ডের শহর জেনেভা থেকে দুই সৌদি সমালোচককে অপহরণ করে নিয়ে গেছে সৌদি আরব।

ব্রিটেনভিত্তিক মানবাধিকার সংস্থা প্রিজনার্স অব কনসাসের বরাতে দ্য নিউজআরাবিয়ার খবরে এমন তথ্য পাওয়া গেছে।

আইনজীবী হাসান আল-ওমারিকে ২০১৭ সালের অক্টোবরে অপহরণ করা হয়েছিল। এছাড়া চলতি বছরের মার্চে মানবাধিকার কর্মী হাসান আল-কানানিকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

প্রিজনার্স অব কনসাস সাধারণত সৌদি আরবের মানবাধিকার লঙ্ঘন নিয়ে কাজ করে। সংস্থাটি বলছে, সৌদি কর্তৃপক্ষ দেশটির এই দুই সমালোচককে অপহরণ করে নিয়েছে।

তাদের নিখোঁজে নেপথ্যে সৌদির ভূমিকা রয়েছে বলে দাবি করেছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল।

ধর্মীয়ভাবে রক্ষণশীল দেশটির বিরুদ্ধে সমালোচনা থেকে বিরত রাখতে তাদের আগেও বেশ কয়েকবার হুমকি দেয়া হয়েছিল।

ইয়েমেনে বিমান হামলা চালিয়ে হাজার হাজার বেসামরিক লোককে হত্যার ঘটনায় রিয়াদের সমালোচনা করে আসছিলেন আল-ওমারি।

গৃহযুদ্ধ কবলিত প্রতিবেশী দেশটি থেকে অতিসত্বর সেনা প্রত্যাহারের আহ্বান জানিয়েছিলেন তিনি।

তবে এই অপহরণের খবর নিয়ে সৌদি ও সুইস কর্তৃপক্ষের কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

ইস্তানবুলের সৌদি কনস্যুলেটে মার্কিন দৈনিক ওয়াশিংটন পোস্টের সাংবাদিক জামাল খাসোগিকে নির্মমভাবে হত্যার পর সৌদি আরবের মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে বিশ্বজুড়ে উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়েছে।

এছাড়া দেশটিতে ভিন্নমতাবলম্বীদের ওপর ব্যাপক ধরপাকড় অব্যাহত রয়েছে। গত দুই বছর শত শত মানবাধিকারকর্মী ও অ্যাকটিভিস্টকে আটক করেছে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী।

মিডল ইস্ট মনিটরের খবর বলছে, ওমারির নিখোঁজ হওয়ার আগে সুইজারল্যান্ড থেকে এক সৌদি প্রিন্সেরও খোঁজ পাওয়া যায়নি। তিনি কোথায় আছেন, সেই খবর নেই সুইস কর্তৃপক্ষের কাছে।

২০১৮ সালের ১৫ অক্টোবর সৌদি প্রিন্স খালিদ বিন ফারহান আল সৌদ অভিযোগ করেন, সৌদি কর্তৃপক্ষ তাকে অপহরণের চেষ্টা চালিয়েছে।

তার এই অভিযোগের দুই সপ্তাহ পরেই হত্যার শিকার হয়েছেন সাংবাদিক জামাল খাসোগি।

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন