সদ্য সংবাদ

 হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্রের কিংবদন্তী বাস্কেটবল তারকাসহ নিহত ৯   ইইই পাস পুলিশ পরিচয়ে ছিনতাইয়ের মূল হোতা ইঞ্জিনিয়ার গ্রেপ্তার  বিএসএমএমইউর পরিচালকের বক্তব্য মনগড়া: বিএনপি   ৫৭৬৮ কোটি টাকার ঋণ জালিয়াতি এনন টেক্স ও বিসমিল্লাহ গ্রুপের   বিমানবন্দরে চুরি ঠেকাতে পকেটবিহীন পোশাক বাধ্যতামূলক   পোষাক পরে তোপের মুখে প্রিয়াঙ্কা চোপড়া।  ইরানের কাছে ক্ষমা চেয়ে ১০ হাজার আমেরিকানের চিঠি  ইরানে ১৫০ যাত্রী নিয়ে বিমান ছিটকে পড়ল মহাসড়কে  সাঘাটায় প্রকল্পের উপকারভোগীদের ক্যাশকার্ড বিতরণ  সহস্রাধিক তরুণীকে মধ্যপ্রাচ্যের ড্যান্সবারে পাচার, গ্রেপ্তার ৮  আফগানিস্তানে ৮৩ যাত্রী নিয়ে বিমান বিধ্বস্ত  দেশে করোনাভাইরাস নিয়ে সতর্ক থাকার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর  দুই মাস আগে চীন ভ্রমণ করায় বাংলাদেশিকে ঢুকতে দেয়নি ভারত  শিশু আবিদ হাসান বাঁচতে চায়  পঞ্চগড়ে পাথর শ্রমিকদের সাথে পুলিশের সংঘর্ষ, পৃথক দুই মামলা  রংপুর টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজের আনন্দ র‌্যালী  ঝিনাইদহে স্বাধীন কৃষক সংগঠনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের শুভ উদ্বোধন  সুনামগঞ্জের সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে পাথর পাচাঁরের অভিযোগ   ইশরাকের বাসায় ব্রিটিশ হাইকমিশনার  দেশে দিনের ভোট রাতে হয়: সংসদে রুমিন ফারহানা

এসপি হারুন দুই তৈল ব্যবসায়ীর কাছ থেকে আদায় করেন ৩৮ লাখ টাকা

ডিবি পুলিশের গ্রেফতার বাণিজ্যের আতংকে ছিলেন ব্যবসায়ীরা

 Tue, Nov 12, 2019 11:24 PM
এসপি হারুন দুই তৈল ব্যবসায়ীর কাছ থেকে আদায় করেন ৩৮ লাখ টাকা

এশিয়া খবর ডেস্ক:: সিদ্ধিরগঞ্জের ব্যবসায়ীর ট্যাংকলরী আটক করে মোটা অংকের টাকা নিয়ে ছেড়ে দেয়ার

অভিযোগ উঠেছে নারায়ণঞ্জ জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের বিরুদ্ধে। সিদ্ধিরগঞ্জের এসও রোড ও বর্মাস্ট্যান্ড এলাকার তেল ব্যবসায়ী নান্নু মুন্সী ও মনিরের তেলের ২টি গাড়ী ও ৫ চালক-সহকারীকে ডিবি পুলিশ ৯ অক্টোবর বুধবার রাতে আটকের পর ১ কোটি ৮০ লাখ টাকা দাবি করে। দাবি অনুযায়ী টাকা না দেয়ায় গাড়ি দু’টি পুলিশ লাইনে নিয়ে তাদের হেফাজতে রাখে। এ ঘটনার পর  ১২ অক্টোবর ডিবিকে ৩৮ লাখ টাকা দিয়ে শনিবার রাতে তেলের ২ গাড়ী ও ৬ আসামীকে ছাড়িয়ে আনে ব্যবসায়ীরা। ঘটনার ভুক্তভোগী সিদ্ধিরগঞ্জের এসও রোড ও বার্মা স্ট্যান্ড এলাকার ২ জন তেল ব্যবসায়ী। এ ঘটনার পর থেকে স্থানীয় তেল ব্যবসায়ীদের মাঝে আতংক বিরাজ করছে।



জানা যায়, এসও রোড এলাকার জ্বালানী তেল ব্যবসায়ী নান্নু মুন্সীর মালিকানাধীন মেসার্স সবুজ ব্রাদ্রাসের ট্যাংকলরী (নং- রংপুর-ড-৪১-০০০৯) এবং মনির হোসেনের মালিকানাধীন সিয়াম ট্রেডার্সের ট্যাংকলরী (নং- ঢাকা-মেট্রো-ঢ-৪৪-০৫৯৩) তিতাসের বাংলা পেট্রোল নিয়ে দিয়ে ঘোড়াশালস্থ ডিপো থেকে গত বুধবার সিদ্ধিরগঞ্জে আসছিল। বুধবার রাতে ডিবি পুলিশের সোর্স আনোয়ারের দেয়া তথ্যে নরসিংদীর গাউছিয়া এলাকায় আসার পর ট্যাংকলরী দু’টি আটক করে গোয়েন্দা পুলিশের এস আই আলমগীর ও এস আই শরীফ। এসময় ট্যাংকলরীর চালক শুক্কুর আলী ও মোস্তফা এবং সহকারী হালিম, রাতুল ও সুমনকে আটকে রাখে। এসময় গাড়ি দু’টি ছাড়িয়ে নিতে নান্নু মুন্সীর নিকট এক কোটি টাকা ও মনিরের নিকট ৮০ লাখ টাকা দাবি করে ডিবি পুলিশ। দাবি অনুযায়ী টাকা না দেয়ায় ডিবি পুলিশ গাড়ি দু’টি ও চালক-সহকারীদের নারায়ণগঞ্জ পুলিশ লাইনে নিয়ে তাদের হেফাজতে রাখে।


এরপর থেকে দফায় দফায় তেল ব্যবসায়ীদের সাথে ডিবি পুলিশের দেন-দরবার চলতে থাকে। এসময় নান্নু মুন্সীর ছেলে জাহিরুল ইসলাম রনি চালক ও সহকারীকে ছাড়িয়ে আনতে গেলে ডিবি পুলিশ তাকেও আটক করে। এরপর বিষয়টি মহানগর আওয়ামী লীগের এক শীর্ষ নেতাকে অবহিত করলে ওই নেতা পুলিশ সুপারকে জানায়। এরপরও ডিবি পুলিশ তাদের দাবি আদায়ে অনড় থাকে। পরে কোন উপায় না দেখে নান্নু মুন্সী ৩০ লাখ ও মনির হোসেন ৮ লাখ টাকা ডিবি পুলিশকে দিয়ে শনিবার রাতে গাড়িসহ আটককৃতদের ছাড়িয়ে আনে।


জাহিরুল ইসলাম রনি ৩০ লাখ টাকা দেয়ার কথা স্বীকার করে জানায়, আল্লাহর দোহাই লাগে এ বিষয়ে কিছু লিখবেন না। ব্যবসায়ী নান্নু মুন্সী টাকা দেয়ার বিষয়টি স্বীকার করে জানায়, পুলিশের হয়রানীর কারণে ব্যবসা করা যাবে না। ব্যবসায়ী মনির জানায়, অকারণে পুলিশ হয়রানী করছে। এতে ব্যবসা করার মত পরিস্থিতি নাই। এ নিয়ে এসও রোড ও বার্মাস্ট্যান্ড এলাকার ব্যবসায়ীরা ডিবি আতংকে রয়েছে। ডিবি এস আই আলমগীর হোসেন জানান, আমি এসপির হুকুমের বাহিরে এক পা ও নড়তে পারিনা। তবে এ নিয়ে রিপোট না করার হুমকি দিয়ে  টাকা নেয়ার বিষয়টি অস্বীকার করে জানান, গাড়ির কাগজপত্র আনতে দেরি হওয়ায় তিনদিন আটক ছিলেন । আমরা কেউ ব্যবসায়ীদের হয়রানী করিন। এদিকে এসপির বদলীর দিন রাতেই এস আই আলমগীর এ জেলা থেকে বদলি করিয়ে নেন জনরোষ থেকে বাঁচার জন্য।



Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন