সদ্য সংবাদ

 গাইবান্ধায় প্রথম আলো ট্রাষ্টের ত্রাণ বিতরণ   মুজিবনগর স্মৃতিসৌধে পুষ্পার্ঘ অর্পন করলে দুই ডিসি   সাঘাটায় টাকা নিয়ে দলিল করে না দিয়ে উল্টো গাছ কর্তন  অস্ট্রেলিয়া থেকে সঙ্গা ও সপ্তক ফেরার পরই সমাহিত হবেন এন্ড্রু কিশোর  ঝিনাইদহে পথচারীদের মাঝে ট্রাফিক সার্জেন্ট মোস্তাফিজুর রহমানের মাস্ক বিতরণ  ঝিনাইদহে গাঁজাসহ আদালতে কর্মরত পুলিশ সদস্য আটক  ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট বলসোনারো করোনায় আক্রান্ত   উপনির্বাচনের ব্যালটে ধানের শীষ না রাখার দাবি বিএনপির  ১৬ বছরেই মিলবে জাতীয় পরিচয়পত্র  কেনিয়ায় স্কুল শিক্ষাবর্ষ থেকে ২০২০ সাল ‘হাওয়া’   অনলাইন প্রতারক চক্রের মূল হোতা আটক  বাংলাদেশ থেকে ইতালির সব ফ্লাইট বন্ধ   তদন্তের স্বার্থে প্রকাশ করা যাচ্ছে না লঞ্চ দুর্ঘটনার কারণ : নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী   রিজেন্ট হাসপাতাল বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর।  নারায়ণগঞ্জ জেলা পিবিআই'র পুলিশ সুপার পদে মনিরুল ইসলামের যোগদান   কুড়িগ্রামের ডিসি সুলতানার বিরুদ্ধে আবারও তদন্ত হবে   রাজধানীর রিজেন্ট হাসপাতালে টেস্ট ছাড়াই করোনা পজিটিভ-নেগেটিভ সনদ  অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোশারফ হোসেন যোগ দিলেন নারায়ণগঞ্জে   রাত থেকেই আন্তর্জাতিক ফ্লাইটে আবারো নিষেধাজ্ঞা  এবার ভুটানের একটি অঞ্চল দাবি করছে চীন

তেঁতুলিয়ায় বৃহত্তম সৌরবিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী

 Thu, Nov 14, 2019 9:49 PM
তেঁতুলিয়ায় বৃহত্তম সৌরবিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী

পঞ্চগড় প্রতিনিধি॥: দেশের উত্তরের সম্ভাবনাময় পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম সোলার বিদ্যুৎ উৎপাদন

 কেন্দ্রটি উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বুধবার সকালে গনভবন থেকে সরাসরি ভিডিও কনফারেন্সিং এর মাধ্যমে ওই বিদ্যূত কেন্দ্রটির উদ্বোধন করেন। পরিবেশবান্ধব ও সৌরশক্তিকে কাজে লাগিয়ে এই বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র থেকে ঘন্টায় ৮ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করে তেঁতুলিয়া ও পঞ্চগড়ে সরবরাহ করা হবে । পঞ্চগড় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠানটি সরাসরি সম্প্রচার করা হয়। এসময় পঞ্চগড়-১ আসনের সংসদ সদস্য মোঃ মজাহারুল হক প্রধান, জেলা প্রশাসক সাবিনা ইয়াসমিন, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ইউসুফ আলীসহ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তা ও বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন। এখানে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে উদ্বোধনী ফলক উম্মোচন করা হয়। অনুষ্ঠান শেষে সকলেই সরাসরি মোনাজাতে অংশ নেয়।  সিমপা সোলার পাওয়ার লিমিটেড সূত্রে জানা যায়, পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া উপজেলার মাঝিপাড়া এলাকার প্যারাগন গ্রুপের এ্যাকুয়া ব্রিডার্স লিমিটেড নামে মুরগির বাচ্চা উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের ভেতরে ৮ মেগাওয়াট সোলার বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র স্থাপনের কাজ শুরু হয় ২০১৮ সালের মে মাসে। সিমপা সোলার পাওয়ার লিমিটেড বিদ্যুৎ ও জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের সাথে ২০ বছরের চুক্তিবদ্ধ হয়ে কাজ শুরু করে। সিমপা সোলার পাওয়ার লিমিটেড বাংলাদেশের প্যারাগন গ্রুপ ও জার্মানের সিম্বায়র সোলার সিয়াম (ঝুসনরড়ৎ ঝড়ষধৎ ঝরধস) যৌথভাবে পরিচালনা করছে। প্যারাগন গ্রুপের মুরগির বাচ্চা উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের ঘরের উপরের শেড ও ফাঁকা জায়গায় সোলার প্যানেল বসানো হয়। তারপর বিদেশি প্রকৌশলীদের সমন্বয়ে তা বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য প্রস্তুত করা হয়। এ বছরের ২৪ জুলাই বাণিজ্যিকভাবে বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু করে প্রতিষ্ঠানটি। মোট ৩৭ হাজার ৫১২ টি সোলার প্যানেল স্থাপন করা হয়। সেখান থেকে ৯৪ টি ইনভাটারের মাধ্যমে প্রতি ঘন্টায় ৮ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করে তা ৩৩ হাজার ভোল্ট লাইনের মাধ্যমে তেঁতুলিয়ায় নেসকোর সাবস্টেশনে পাঠানো হয়। তেঁতুলিয়ার সাড়ে ৪ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ চাহিদা পূরণ করে বাকিটা পঞ্চগড়ে সরবরাহ করা হয় ।সিমপা সোলার পাওয়ার লিমিটেডের সাইট ম্যানেজার মোস্তফা মোঃ মহসিন বলেন, আমরা এই সোলার বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রে মোট ৩৭ হাজার ৫১২ টি মডিউল স্থাপন করেছি। এই মডিউলগুলো থেকে আমরা ১০ দশমিক ৩ মেগাওয়াট ডিসি বিদ্যুৎ পাচ্ছি। এই ডিসি বিদ্যুৎকে ৯৪ টি ইনভাটারের মাধ্যমে ৮ মেগাওয়াট এসি বিদ্যুতে রূপান্তর করে তা তিনটি ট্রান্সফরমারের মাধ্যমে ৩৩ হাজার ভোল্টে রূপান্তর করে ৭ কিলোমিটার দূরের তেঁতুলিয়া সাবস্টেশনে পাঠাই। সিমপা সোলার পাওয়ার লিমিটেডের প্রশাসনিক কর্মকর্তা নাসিক ইমতিয়াজ চৌধুরী বলেন, বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয় ও বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের সাথে আমাদের ২০ বছরের চুক্তি হয় যে আমরা তাদের সৌরশক্তির মাধ্যমে ৮ মেগাওয়াট করে বিদ্যুৎ উৎপাদন করে তা সরবরাহ করবো। এই সোলার বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র দেশের মধ্যে দ্বিতীয়।এ্যাকুয়া ব্রিডার্স লিমিটেড পঞ্চগড়ের ব্যবস্থাপক ডা. সাজ্জাদ হোসেন বলেন, আমাদের এটি যেহেতু মুরগি উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান তাই নিরাপত্তা ও সুরক্ষার জন্য প্রতিটি ঘরের দূরত্ব বজায় রাখা হয়। শুরুতে আমরা আমাদের ঘরগুলোর তাপ নিয়ন্ত্রণের জন্য শেডের উপরে সোলার প্যানেল বসানোর উদ্যোগ নেই। পরে প্যারাগন গ্রুপ আমাদের মোট ৪০ জমির মধ্যে মুরগির বাচ্চা রাখার ঘরগুলোর শেড ও ফাঁকা জায়গাগুলো ব্যবহার করে সোলার পাওয়ার প্ল্যান্ট করার উদ্যোগ নেয়। প্যারাগন গ্রুপ ৫১ শতাংশ ও জার্মান কোম্পানি সিম্বায়র সোলার সিয়াম ৪৯ শতাংশ শেয়ার রয়েছে এখানে। সোলার বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রের মাধ্যমে আমরা একই জমিকে দুইভাবে ব্যবহার করতে পারছি। সেই সাথে পরিবেশবান্ধব জ্বালানির মাধ্যমে বিদ্যুৎ ঘাটতি পূরণে কাজ করে যাচ্ছি। তেঁতুলিয়ায় আগে কলকারখানা লো ভোল্টেজের কারণে বন্ধ রাখতে হতো। এখন কারখানাগুলো পুরোদমে চলছে।
পঞ্চগড় জেলা প্রশাসক সাবিনা ইয়াসমিন বলেন, আমরা আনন্দিত যে পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় সোলার বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রের মাধ্যমে বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু হয়েছে। তেঁতুলিয়ার পাশাপাশি পুরো পঞ্চগড়ের মানুষ এর সুফল পাবে। আমরা আরও আনন্দিত যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এই বিদ্যুৎ কেন্দ্রের উদ্বোধন করেন। এটি পঞ্চগড়ের মানুষের জন্য এটি একটি বড় পাওয়া।উল্লেখ্য , পঞ্চগড়ের বিদ্যুৎ ঘাটতি পূরণে এই সোলার বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র বড় ভূমিকা রাখবে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা  এর আগে নেত্রকোনায় দেশের বৃহত্তম ১৮ মেগাওয়াটের সোলার বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র চালু হয়। #

 


Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন