সদ্য সংবাদ

 সরকার ইভিএমের ওপর ভর করেছে: মির্জা ফখরুল  নায়িকা দেখতে পাঁচ রাত ফুটপাতে কাটালেন এক ভক্ত   রোহিঙ্গাদের সঙ্গে যা করা হয়েছে তা গণহত্যার শামিল: আইসিজে   দেশকে সন্ত্রাস-দুর্নীতিমুক্ত করতে চাই: প্রধানমন্ত্রী  বাসাবাড়ির চুলায় নয়, শিল্পে গ্যাস দেব: সংসদে প্রতিমন্ত্রী  মেহেরপুরে ফেনসিডিল রাখার দায়ে যুবকের জেল  মেহেরপুর শ্মশানঘাট মন্দিরে ৩ দিনব্যাপী কালী পূজা  ডুমুরিয়ায় এমপি পুত্রের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন  কালিয়াকৈরে তৃতীয় শ্রেণীর কর্মচারীদের কর্মবিরতি  রংপুরে নিবন্ধনকৃত শিশুদের মাঝে স্কুল ব্যাগ বিতরণ  পলাশে শিক্ষার্থীদের মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিতকরণে অভিভাবকদের ভূমিকা শীর্ষক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত  পঞ্চগড়ে কালেক্টরেট সহকারী সমিতি’র উদ্যোগে কর্মবিরতি ও সমাবেশ  কালিয়াকৈরে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত  পার্বতীপুরে পল্লীশ্রী’র অবহিতকরণ সভা অনুষ্ঠিত  রংপুর কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালের নির্মাণ কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলেছে  বাংলাদেশের নতুন বোলিং কোচ ওয়েস্ট ইন্ডিজের গিবসন  সিদ্ধিরগঞ্জে হত্যা মামলার পলাতক আসামি শরীফ গ্রেফতার  বিমানে লাগেজ হারালে বা নষ্ট হলে কেজি প্রতি লক্ষাধিক টাকা ক্ষতিপূরণ  ৯ লাখ নারী কর্মী বিদেশে গেছেন: প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী  ফতুল্লায় ধর্ষককে ছেড়ে দেওয়া যুবলীগ নেতা শ্যামল গ্রেফতার

এস কে সিনহার বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল

 Tue, Dec 10, 2019 9:48 PM
 এস কে সিনহার বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল

এশিয়া খবর ডেস্ক:: ফারমার্স ব্যাংকের ৪ কোটি টাকা আত্মসাতের মামলায় সাবেক প্রধান বিচারপতি

 এস কে সিনহার বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

সোমবার ঢাকার জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ কে এম ইমরুল কায়েশের আদালতে তা জমা দেন দুদক কর্মকর্তা বেনজির আহমেদ। মোট ১১ জনকে আসামি করে এই অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়।

অন্য আসামিরা হলেন- ফারমার্স ব্যাংকের অডিট কমিটির চেয়ারম্যান মাহবুবুল হক চিশতী ওরফে বাবুল চিশতী, সাবেক এমডি এ কে এম শামীম, সাবেক এসইভিপি গাজী সালাহউদ্দিন, ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট সাফিউদ্দিন আসকারী, ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট স্বপন কুমার রায়, ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. লুৎফুল হক, টাঙ্গাইলের মো. শাহজাহান, নিরঞ্জন চন্দ্র সাহা, রনজিৎ চন্দ্র সাহা এবং তার স্ত্রী সান্ত্রী রায়।

অভিযোগপত্র থেকে জানা যায়, আসামিরা অবৈধভাবে ভুয়া ঋণ সৃষ্টির মাধ্যমে বিভিন্ন ব্যাংক হিসাবে টাকা স্থানান্তর করেন। এরপর সেগুলো নগদে উত্তোলন ও পে-অর্ডারের মাধ্যমে স্থানান্তর এবং গোপনে পাচার করা হয়।

দুদকের মামলার এজাহারে বলা হয়, ২০১৬ সালের নভেম্বর থেকে ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বর মধ্যে আসামি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা অসৎ উদ্দেশ্যে নিজ ক্ষমতার অপব্যবহার করে অপরাপর আসামিদের সহযোগিতায় ফারমার্স ব্যাংক (বর্তমান পদ্মা ব্যাংক) থেকে শাহজাহান ও নিরঞ্জনের নামে ভুয়া ঋণ উত্তোলন করেন। এরপর সেই অর্জিত অপরাধলব্ধ টাকা নিজ নামীয় ব্যাংক হিসাবে স্থানান্তর করেন। পরে তা উত্তোলন করে নিজ আত্মীয়ের মাধ্যমে আত্মসাৎ করে নিজেদের ভোগদখলে রেখে ঐ অর্থের অবৈধ প্রকৃতি উত্স অবস্থান গোপন বা এর ছদ্মাবরণে পাচার করেন। যা মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইন, ২০১২-এর ৪(২), (৩) সংশ্লিষ্ট ধারায় ও দণ্ডবিধির ৪০৯, ৪২০, ১০৯ এবং ১৯৪৭ সালের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারায় শাস্তিযোগ্য অপরাধ।

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন