সদ্য সংবাদ

 কালকিনিতে ১৩১ বাড়িতে লাল নিশানা লাগিয়ে দিলো প্রশাসন  করোনার বিরুদ্ধে সাইফুল ইসলাম শান্তির অভিযান শুরু  রংপুরে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে মাস্ক বিতরণ  নরসিংদীতে হোম কোয়ারেন্টিনে ২০৫ প্রবাসী  কালকিনির বিভিন্ন হাট-বাজারে হাতধোয়ার জন্য বেসিন স্থাপন  পঞ্চগড়ে সাড়ে ৭শ’ পিস হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ  রংপুরে করোনা প্রতিরোধে মাস্ক বিতরণ  পার্বতীপুরে শুধুমাত্র পূজার মধ্যদিয়ে ঐতিহ্যবাহী ‘বাহা পরব’ উদযাপিত  রংপুরে এরশাদের জন্মদিন পালিত  বিএফআরআইতে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী এবং জাতীয় শিশু দিবস পালিত  করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে পঞ্চগড়ে জরুরি বৈঠক  আতঙ্কিত না হয়ে সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে : সাদ এরশাদ এমপি  কালকিনিতে দুই প্রবাসীকে আর্থিক জরিমানা  পঞ্চগড়ে সীমিত পরিসরে মুজিববর্ষ পালিত  রংপুরে ৮টি রাস্তা পাকাকরণ ও ড্রেন নির্মাণ কাজ শুরু  কালকিনিতে বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী পালিত  পঞ্চগড়ে মুজিব উতসব পালিত  কালিয়াকৈর প্রেসক্লাবে বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী পালিত  রংপুরে যথাযোগ্য মর্যাদায় বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী পালিত  পঞ্চগড়ে কীটনাশক মুক্ত সবজির চাষ!

পদোন্নতিতে জটিলতা: এসপির পদ বাড়ছে ২১৫টি কমছে অতিরিক্ত এসপি

 Fri, Feb 7, 2020 12:30 AM
পদোন্নতিতে জটিলতা: এসপির পদ বাড়ছে ২১৫টি কমছে অতিরিক্ত এসপি

এশিয়া খবর ডেস্ক:: পুলিশের নিম্নপর্যায়ের পদে অনেক জনবল নিয়োগ দিয়েছে সরকার।

সে অনুযায়ী উচ্চপর্যায়ে পদ সৃজন ও পদোন্নতি হয়নি। এর ফলে বিসিএস পুলিশ ক্যাডারের অনেক কর্মকর্তা সন্তোষজনক চাকরিকাল অতিক্রম করার পরও পাচ্ছেন না পদোন্নতি। এমন জটিলতার মধ্যে অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের ২১৫ পদ বিলুপ্ত করে সমানসংখ্যক পুলিশ সুপারের (এসপি) পদ রাজস্ব খাতে স্থায়ীভাবে সৃজনের অনুমোদন দিয়েছে প্রশাসনিক উন্নয়ন-সংক্রান্ত সচিব কমিটি।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় ও অর্থ বিভাগের অনুমোদন পাওয়ার পর সচিব কমিটিতে অনুমোদিত এ প্রস্তাব এখন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগে যাবে। সেখান থেকে এ-সংক্রান্ত সারসংক্ষেপ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে পাঠানো হবে। প্রধানমন্ত্রী অনুমোদন দিলে এ বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করবে জননিরাপত্তা বিভাগ। এর ফলে পুলিশ সুপারের (এসপি) ২১৫টি পদ বাড়বে, কমবে অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের পদ। এতে বঞ্চিত হবেন এএসপি পদের কর্মকর্তারা। জট সৃষ্টি হবে অতিরিক্ত ডিআইজি পদে পদোন্নতিতে।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় এসপির ২১৫টি পদ সৃজনের সঙ্গে শর্ত দিয়েছে, পরবর্তী সময়ে বাংলাদেশ পুলিশে অতিরিক্ত ডিআইজি বা তদূর্ধ্ব অন্য কোনো ক্যাডার পদ বিচ্ছিন্নভাবে সৃজনের প্রস্তাব করা যাবে না। অথচ এসপির ২১৫টি পদ সৃজনের ফলে অতিরিক্ত ডিআইজির প্রায় ১০০টি পদ সৃজন করা জরুরি হয়ে পড়বে। কারণ বর্তমানে অতিরিক্ত ডিআইজির পদ রয়েছে মাত্র ১০৫টি। পদোন্নতির পিরামিড কাঠামো ঠিক রাখতে একই সঙ্গে পুলিশের ডিআইজি এবং অতিরিক্ত আইজিপি পদও বাড়াতে হবে। ইতোমধ্যে পুলিশের বর্তমান জনবল কাঠামোর আওতায় জরুরি ভিত্তিতে ডিআইজি ও অতিরিক্ত আইজিপির পদ সৃষ্টির দাবি জানিয়েছেন পুলিশ ক্যাডারের কর্মকর্তারা। বর্তমানে অতিরিক্ত আইজিপি আছেন ১৭ জন। এর মধ্যে ১৫ জন গ্রেড-২ এবং দু'জন গ্রেড-১ পদমর্যাদার।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (পুলিশ ও এনটিএমসি) মু. মোহসিন চৌধুরী  বলেন, পুলিশ সুপারের ২১৫টি পদ প্রশাসনিক উন্নয়ন-সংক্রান্ত সচিব কমিটি অনুমোদনের পর আবার জননিরাপত্তা বিভাগে পাঠাবে। এরপর প্রধানমন্ত্রী অনুমোদন দিলে এ-সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সূত্রে জানা যায়, অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের ২১৫ পদ বিলুপ্ত করে সমানসংখ্যক পুলিশ সুপারের (এসপি) পদ রাজস্ব খাতে স্থায়ীভাবে সৃজনের অনুমোদন প্রস্তাব গত মঙ্গলবার প্রশাসনিক উন্নয়ন-সংক্রান্ত সচিব কমিটি অনুমোদন দিয়েছে।

পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের অতিরিক্ত ডিআইজি (সংগঠন ও ব্যবস্থাপনা) এসএম আক্তারুজ্জামান বলেন, পদোন্নতির পিরামিড কাঠামো ঠিক রাখতে পুলিশ ক্যাডারের ওপরের পদগুলোতে নতুন পদ সৃষ্টি করা খুবই জরুরি। নতুন পদ সৃষ্টি না হওয়ায় নিচের কিছু পদ বিলুপ্ত করে ওপরের পদে পদোন্নতি দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এখন আবার অতিরিক্ত ডিআইজি থেকে ওপরের পদ সৃষ্টি করা প্রয়োজন। তিনি বলেন, বর্তমান সরকার পুলিশ ক্যাডারের বিষয়ে খুবই ইতিবাচক। তাই পর্যায়ক্রমে সব সমস্যা সমাধান হচ্ছে। আশা করি নতুন পদ সৃজনের মাধ্যমে দ্রুত সব সমস্যার সমাধান হবে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) বলেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের পদগুলো বিলুপ্ত না করে নতুন এসপি পদ সৃষ্টি করার প্রয়োজন ছিল। কারণ অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের পদগুলো বিলুপ্ত হওয়ায় এখন এএসপি পদে কর্মরতদের পদোন্নতিতে দেরি হবে।

যেসব পদ বিলুপ্ত ও সৃজন হচ্ছে :পুলিশ সদর দপ্তরে অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের ২০টি পদ বিলুপ্ত করে এসপির ১৭টি পদ সৃজন করার অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। একইভাবে ডিএমপিতে ২৫টি পদ বিলুপ্ত করে ১৫টি পদ সৃজন করা হয়েছে। পিবিআইয়ে ৪২টি পদ বিলুপ্ত করে ৩৯টি পদ সৃষ্টি করা হয়েছে। সিআইডিতে ১০টি পদ বিলুপ্ত করে ৩০টি পদ সৃজন করা হয়েছে। এ ছাড়া আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নে আটটি, চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন, গাজীপুর মেট্রোপলিটন ও ট্যুরিস্ট পুলিশে পাঁচটি করে, রংপুর মেট্রোপলিটন ও নৌ পুলিশে চারটি করে, অ্যান্টিটেররিজম ও সিলেট মেট্রোপলিটনে তিনটি করে, পুলিশ স্টাফ কলেজ, পুলিশ টেলিকম, রেলওয়ে পুলিশ, শিল্পাঞ্চল পুলিশ, খুলনা মেট্রোপলিটন, রাজশাহী মেট্রোপলিটন, বরিশাল মেট্রোপলিটন ও ঢাকা, চট্টগ্রাম, খুলনা, রাজশাহী, রংপুর, বরিশাল, সিলেট, ময়মনসিংহ রেঞ্জ অফিসে দুটি করে, চার জেলার পিটিসিতে একটি করে এবং ৩০টি জেলার ইন-সার্ভিস ট্রেনিং সেন্টারে এসপির একটি করে পদ সৃষ্টির অনুমোদন দিয়েছে সচিব কমিটি।

উল্লেখ্য, যোগ্যতা থাকার পরও বিভিন্ন ব্যাচের কয়েকশ' শীর্ষ কর্মকর্তা দীর্ঘদিন পদোন্নতি পাননি- এমন প্রেক্ষাপটে একাদশ জাতীয় নির্বাচনের আগে পুলিশ সুপারের (পঞ্চম গ্রেড) ২৩০টি সুপারনিউমারারি (সংখ্যাতিরিক্ত পদ) পদ মাত্র এক বছরের জন্য সৃষ্টি করা হয়। এরপর বিভিন্ন ব্যাচের কর্মকর্তাদের এসব পদে পদোন্নতি দেওয়া হয়। ওই সময় এসব কর্মকর্তাকে নিজ নিজ পদে ইনসিটু (আগের কর্মস্থলে) করা হয়। কিন্তু উপযুক্ত পদ না থাকায় তাদের আর পদায়ন করা হয়নি।

এসব কর্মকর্তাকে উপযুক্ত স্থানে পদায়ন করতে নতুন নতুন পদ সৃষ্টির দাবি জানিয়ে আসছিল বাংলাদেশ পুলিশ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশন। কিন্তু গত এক বছরেও তাদের কাঙ্ক্ষিত পদ সৃষ্টি করা হয়নি। অবশেষে সুপারনিউমারারি হিসেবে পদোন্নতিপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তাদের দ্রুত নিয়মিত পদে পদায়নের ক্ষেত্রে নতুন পদ সৃষ্টির কোনো বিকল্প পথ না পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের পদ বিলুপ্ত করে পুলিশ সুপারের পদ সৃষ্টি করতে রাজি হন পুলিশ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের কর্মকর্তারা। এর আগে ২০১৮ সালে ২৫৩ জন সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপারের পদ বিলুপ্ত করে সমানসংখ্যক অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের পদ তৈরি করা হয়েছিল।

গত বছরের ৪ জুলাই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সারাদেশের ৪৯৫ পুলিশ কর্মকর্তাকে সুপারনিউমারারি পদে পদোন্নতি দিতে প্রস্তাব পাঠায় পুলিশ সদর দপ্তর। প্রস্তাবে বলা হয়, সরকারের উপসচিব থেকে তদূর্ধ্ব পর্যায়ে সুপারনিউমারারি পদোন্নতি দিয়ে এ-সংক্রান্ত জট নিরসন করা হয়েছে। অন্যান্য ক্যাডারেও এ পদোন্নতির প্রচলন রয়েছে। এসব কর্মকর্তার পদোন্নতির ক্ষেত্রে সরকারের অতিরিক্ত কোনো অর্থেরও প্রয়োজন হবে না। কারণ তারা এরই মধ্যে পদোন্নতি পাওয়ার পর যে স্কেলে বেতন পাবেন, তা বর্তমানেই পাচ্ছেন। এমন বাস্তবতায় পুলিশের যোগ্য ও দক্ষ কর্মকর্তাদের সুপারনিউমারারি পদোন্নতি দেওয়ার প্রয়োজনীয় কার্যক্রম নেওয়ার অনুরোধ করা হয়। কিন্তু সুপারনিউমারারি পদোন্নতিপ্রাপ্ত ২৩০ কর্মকর্তার মেয়াদ এক বছর বেঁধে দেওয়ায় এই জটিলতা সৃষ্টি হয়েছে। অথচ সরকারের উপসচিব থেকে তদূর্ধ্ব পর্যায়ে বিপুলসংখ্যক কর্মকর্তা সুপারনিউমারারি পদোন্নতি পেয়েই চাকরিজীবন শেষ করছেন।

বর্তমানে পুলিশের জনবল কাঠামোতে পদ রয়েছে- এএসপি এক হাজার ৩১৮টি, অতিরিক্ত এসপি এক হাজার ১৫৪টি, এসপি ৩৭৬টি, অতিরিক্ত ডিআইজি ১০৫টি, ডিআইজি ৬৭টি, অতিরিক্ত আইজিপি ১৭টি এবং আইজিপি একটি।

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন