সদ্য সংবাদ

  করোনা শেষ না হতেই এবার 'টুইনডেমিক' আতঙ্ক  গণতন্ত্রের জন্য লড়াইয়ে নামতে হবে: মান্না   ব্রুনাইয়ে মানব পাচার: চক্রের তিনজন গ্রেফতার   পিবিআই এর অভিযানে অপহৃত লামিয়াকে ফতুল্লা থেকে উদ্ধার   পঞ্চগড়ে নারীর ক্ষমতায়ন জেন্ডার সমতা বিষয়ে আলোচনা   মহেশপুরে চাষ হচ্ছে মনিপুরি ইলিশ   শৈলকুপায় সাপের কামড়ে দুই মাসে ১১ জনের প্রাণহানী  ঝিনাইদহে নবাগত পুলিশ সুপার মুনতাসিরুল ইসলামের যোগদান  আটকেপড়া প্রবাসীদের সৌদি ফেরাতে বিমানের বিশেষ ফ্লাইট  সিদ্ধিরগঞ্জে কোনো মাদক,ভূমি দস্যু ও সন্ত্রাসীদের স্থান হবে না- এসপি  এমপি কামরুল ইসলামের ফোন রেকর্ড প্রকাশ: ডিশ ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার  করোনার টিকা বন্টনে ১৫৬ দেশের ‘ঐতিহাসিক চুক্তি’  নুরের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী  মিথ্যা মামলা রাজপথেই মোকাবিলা করব: ভিপি নুর   কম্বোডিয়ায় নারীর খোলামেলা পোশাক পরার ওপর নিষেধাজ্ঞা   রিমান্ড শেষে তিতাসের ৮ কর্মকর্তা-কর্মচারী জামিনে মুক্ত  স্বাস্থ্যের ২০ জনের সম্পদের হিসাব তলব   ট্রাম্পকে বিষ মেশানো চিঠি : এক নারী গ্রেফতার  বিক্ষোভ মিছিল থেকে ভিপি নুর আটক  আড়াইহাজারে ডাকাতদের অস্ত্রের আঘাতে মহিলাসহ আহত ৪

করোনাভাইরাসের তথ্য দেয়া সেই চীনা সাংবাদিক নিখোঁজ

 Mon, Feb 10, 2020 10:16 PM
করোনাভাইরাসের তথ্য দেয়া সেই চীনা সাংবাদিক নিখোঁজ

এশিয়া খবর ডেস্ক:: সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে চীনের করোনাভাইরাস

পরিস্থিতি নিয়ে বাইরের দুনিয়ায় খবর পাঠাতেন দুই সাংবাদিক।

যেখান থেকে ভাইরাসটির উৎপত্তি সেই উহান শহর থেকেই মোবাইল ফোনের মাধ্যমে নিয়মিত ভিডিও ছড়িয়ে দিতেন তারা।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানায়, এই দুই চীনা সিটিজেন জার্নালিস্ট বা নাগরিক সাংবাদিক হচ্ছেন চেন চিউশি এবং ফাং বিন। কিন্তু প্রথম জনের কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না।

চেন চিউশি’র সঙ্গে গত তিনদিন ধরে কোনো যোগাযোগ করা যায়নি। শুক্রবার সারাদিন নীরব থাকার পর সন্ধ্যায় একটিমাত্র ভিডিও পোস্ট করেন ফাং বিন।

তাকে এর আগে একটি হাসপাতালে করোনাভাইরাসে মৃত ব্যক্তিদের লাশের ভিডিও তোলার অপরাধে কিছুক্ষণের জন্য আটক করে কর্তৃপক্ষ।

সেই মুহূর্তেরও ভিডিও তোলেন ফাং বিন, যখন কিছু অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তি তার অ্যাপার্টমেন্টের দরজা ভেঙে তাকে কোয়ারান্টিনে রাখার উদ্দেশ্যে তুলে নিয়ে যায়। এই পদক্ষেপের বিরুদ্ধে অনলাইনে সোচ্চার হয়ে ওঠেছিলেন বিপুলসংখ্যক মানুষ।

ফাং বিন মুক্তি পেলেও খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না চেন চিউশির। তার বন্ধুরা চেনের টুইটার অ্যাকাউন্টে একটি মেসেজের মাধ্যমে জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা সাতটা থেকে যোগাযোগ-বিচ্ছিন্ন হয়ে রয়েছেন তিনি।

সংবাদ সংস্থা ব্লুমবার্গ চেনকে মেসেজ করে জানতে চায়, তিনি নিজের নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তিত কিনা। সেই মেসেজেরও কোনো উত্তর এখনো আসেনি।

চীনে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের ওপর একাধিক নিষেধাজ্ঞা থাকার দরুন মার্কিন সামাজিক মাধ্যমে প্রচারিত হচ্ছিল চেন এবং ফাংয়ের পোস্টগুলো।

এদিকে করোনাভাইরাসের খবর ছড়াতে শুরু করার পর থেকেই আরও সক্রিয় হয়ে উঠে চীনা কর্তৃপক্ষের ইন্টারনেট নজরদারি। চীনের জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম উইবো, উইচ্যাট, ডুয়েইনের বেশ কিছু অ্যাকাউন্ট অচল করে দেয়া হয়েছে।

এই ভাইরাস প্রথম শনাক্তকারী চিকিৎসকের মৃত্যুকে কেন্দ্র করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঝড় ওঠে। তখন বেশ কিছু পোস্ট এবং কমেন্ট মুছে ফেলে পরিস্থিতি শান্ত করারও চেষ্টা করে কর্তৃপক্ষ।

এমন পরিস্থিতিতে মার্কিন প্ল্যাটফর্ম টুইটারই হয়ে দাঁড়িয়েছে করোনাভাইরাসের প্রকোপ সম্পর্কে নির্ভরযোগ্য তথ্যের একমাত্র উৎস। চীনে অবশ্যই নিষিদ্ধ টুইটার, তবে ভার্চুয়াল প্রাইভেট নেটওয়ার্ক (ভিপিএন)-এর মাধ্যমে টুইটারে আসছেন অনেকেই।

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন