সদ্য সংবাদ

 ১৭টি দেশের ভাষায় গাইলেন একুশের গান  কচুরিপানা খাবার উপযোগী কি না পরীক্ষা নিরীক্ষা চলছে: বাণিজ্যমন্ত্রী  মুজিববর্ষ: বাজারে আসছে স্বর্ণ ও রৌপ্য মুদ্রা, সঙ্গে ২০০ টাকার নোট  প্রেমের ফাঁদে ফেলে বিয়ে, মন্টি সহ আটক চারজন   দুবাই থেকে ঢাকায় এসে গ্রেফতার শাকিল  বান্দরবানে ব্রাশফায়ারে আওয়ামী লীগ নেতা নিহত  করোনা মোকাবিলা আদৌ সম্ভব না: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা   নেতৃত্ব ছেড়ে দিন: বিএনপিকে কর্নেল অলি  নিখোঁজের দেড় বছর পর বাসায় ফিরলেন সাবেক র‌্যাব অধিনায়ক  নাইজার-ফ্রান্স যৌথ সামরিক অভিযানে নিহত ১২০  কালিয়াকৈরে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও লটারী ড্র অনুষ্ঠিত  রংপুরে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত  ‘দৈনিক খবর’ এর ৪৩তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী রোববার  পুলিশের অতিরিক্ত ডিআইজির মেয়েকে পরীক্ষা হলে সুবিধা: কেন্দ্র সচিবকে অব্যাহতি  ১০০০ কোটি টাকা দেবে গ্রামীণফোন   চাষাঢ়ায় আটদিন ধরে নিখোঁজ পরিবারের ৪ সদস্য !  অন্য ভাষা প্রয়োজন তবে মাতৃভাষাকে বাদ দিয়ে নয়: প্রধানমন্ত্রী   পঞ্চগড়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন  ৮ বছর পর কন্যা সন্তানের মা হলেন শিল্পা শেঠি  আশুলিয়ায় ৫ম বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠান

করোনাভাইরাসের তথ্য দেয়া সেই চীনা সাংবাদিক নিখোঁজ

 Mon, Feb 10, 2020 10:16 PM
করোনাভাইরাসের তথ্য দেয়া সেই চীনা সাংবাদিক নিখোঁজ

এশিয়া খবর ডেস্ক:: সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে চীনের করোনাভাইরাস

পরিস্থিতি নিয়ে বাইরের দুনিয়ায় খবর পাঠাতেন দুই সাংবাদিক।

যেখান থেকে ভাইরাসটির উৎপত্তি সেই উহান শহর থেকেই মোবাইল ফোনের মাধ্যমে নিয়মিত ভিডিও ছড়িয়ে দিতেন তারা।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানায়, এই দুই চীনা সিটিজেন জার্নালিস্ট বা নাগরিক সাংবাদিক হচ্ছেন চেন চিউশি এবং ফাং বিন। কিন্তু প্রথম জনের কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না।

চেন চিউশি’র সঙ্গে গত তিনদিন ধরে কোনো যোগাযোগ করা যায়নি। শুক্রবার সারাদিন নীরব থাকার পর সন্ধ্যায় একটিমাত্র ভিডিও পোস্ট করেন ফাং বিন।

তাকে এর আগে একটি হাসপাতালে করোনাভাইরাসে মৃত ব্যক্তিদের লাশের ভিডিও তোলার অপরাধে কিছুক্ষণের জন্য আটক করে কর্তৃপক্ষ।

সেই মুহূর্তেরও ভিডিও তোলেন ফাং বিন, যখন কিছু অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তি তার অ্যাপার্টমেন্টের দরজা ভেঙে তাকে কোয়ারান্টিনে রাখার উদ্দেশ্যে তুলে নিয়ে যায়। এই পদক্ষেপের বিরুদ্ধে অনলাইনে সোচ্চার হয়ে ওঠেছিলেন বিপুলসংখ্যক মানুষ।

ফাং বিন মুক্তি পেলেও খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না চেন চিউশির। তার বন্ধুরা চেনের টুইটার অ্যাকাউন্টে একটি মেসেজের মাধ্যমে জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা সাতটা থেকে যোগাযোগ-বিচ্ছিন্ন হয়ে রয়েছেন তিনি।

সংবাদ সংস্থা ব্লুমবার্গ চেনকে মেসেজ করে জানতে চায়, তিনি নিজের নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তিত কিনা। সেই মেসেজেরও কোনো উত্তর এখনো আসেনি।

চীনে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের ওপর একাধিক নিষেধাজ্ঞা থাকার দরুন মার্কিন সামাজিক মাধ্যমে প্রচারিত হচ্ছিল চেন এবং ফাংয়ের পোস্টগুলো।

এদিকে করোনাভাইরাসের খবর ছড়াতে শুরু করার পর থেকেই আরও সক্রিয় হয়ে উঠে চীনা কর্তৃপক্ষের ইন্টারনেট নজরদারি। চীনের জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম উইবো, উইচ্যাট, ডুয়েইনের বেশ কিছু অ্যাকাউন্ট অচল করে দেয়া হয়েছে।

এই ভাইরাস প্রথম শনাক্তকারী চিকিৎসকের মৃত্যুকে কেন্দ্র করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঝড় ওঠে। তখন বেশ কিছু পোস্ট এবং কমেন্ট মুছে ফেলে পরিস্থিতি শান্ত করারও চেষ্টা করে কর্তৃপক্ষ।

এমন পরিস্থিতিতে মার্কিন প্ল্যাটফর্ম টুইটারই হয়ে দাঁড়িয়েছে করোনাভাইরাসের প্রকোপ সম্পর্কে নির্ভরযোগ্য তথ্যের একমাত্র উৎস। চীনে অবশ্যই নিষিদ্ধ টুইটার, তবে ভার্চুয়াল প্রাইভেট নেটওয়ার্ক (ভিপিএন)-এর মাধ্যমে টুইটারে আসছেন অনেকেই।

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন