সদ্য সংবাদ

  সব দেশ যাতে একসঙ্গে করোনা ভ্যাকসিন পায় তা নিশ্চিত করুন   মাদক নেয়ার কথা অস্বীকার করলেন দীপিকা  বঞ্চিতদের ৪ অক্টোবর টোকেন দেবে সৌদি এয়ারলাইন্স   নিরাপদ পানি সরবরাহে বিশ্বব্যাংকের ২০০ মিলিয়ন ডলার অনুমোদন  ইসরাইল শান্তির শেষ সুযোগ ধ্বংস করে দিচ্ছে : মাহমুদ আব্বাস   এলাকায় অপরিচিত হওয়ায় যুবককে গাছে বেঁধে অমানবিক নির্যাতন  এমসি কলেজে তরুণীকে গণধর্ষণের ঘটনায় তদন্তে কমিটি, ২ গার্ড সাসপেন্ড   মা আমি চলে যাচ্ছি, মাফ করে দিও...  মাদকসেবী ২৬ পুলিশের চাকরিচ্যুতির প্রক্রিয়া শুরু   অন্য করো বর্ধিত সভা ডাকার বৈধ্যতা নেই : ড. কামাল  শরিক প্রকল্পের অগ্রগতি পর্যালোচনা বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত  মতির সম্পদ অনুসন্ধানে দুদক, রিফিউজিদের নামে বরাদ্দ জমি ৫০ কোটি টাকায় বিক্রি!   ১৫ বছর ধরে নিজের মেকআপ নিজেই করেন ক্যাটরিনা  টানা বৃষ্টিপাত নাকাল পঞ্চগড় পৌরবাসি  কক্সবাজারে এবার ১১৪১ পুলিশকে একযোগে বদলি  নারায়ণগঞ্জের তল্লায় গ্যাসের লাইনে ৮১৪ লিকেজ  ‘৪৭ মাসে আমি যা করেছি, বাইডেন ৪৭ বছরেও তা পারেননি’  অর্থনৈতিক কূটনীতি জোরদারে নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর  আল্লামা শফীর মৃত্যুতে বিচার বিভাগীয় তদন্ত দাবি  কক্সবাজারের ৩৪ জন পরিদর্শককে একযোগে বদলি

ব্রিটিশ রাজপরিবারে আবারও বিয়ে বিচ্ছেদ

 Tue, Feb 11, 2020 11:27 PM
ব্রিটিশ রাজপরিবারে আবারও বিয়ে বিচ্ছেদ

এশিয়া খবর ডেস্ক:: প্রিন্স হ্যারি-ম্যাগানের রাজপরিবার ছাড়ার পর এবার বিচ্ছেদের ঘটনায় আলোচনায় ব্রিটিশ রাজপ্রাসাদ।

বিবিসি জানায়, বিয়ে বিচ্ছেদের ঘোষণা দিয়েছেন রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের নাতি পিটার ফিলিপস ও তার স্ত্রী অটাম।

রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ-প্রিন্স ফিলিপ দম্পতির সবচেয়ে বড় নাতি পিটার ফিলিপস। প্রিন্সেস রয়্যাল অ্যানি এবং তার প্রথম স্বামী ক্যাপ্টেন মার্ক ফিলিপসের একমাত্র পুত্রসন্তান তিনি।

২০০৮ সালে কানাডার নাগরিক অটাম কেলিকে বিয়ে করেন ৪২ বছর বয়সী পিটার। এর মধ্যে তাদের ঘরে জন্ম নিয়েছে দুই মেয়ে সাভানাহ (৯) এবং ইসলা (৭)।

এক বিবৃতিতে ফিলিপস-অটাম দম্পতি তাদের বিয়ে বিচ্ছেদের ঘোষণা দেন। দুজনেই সন্তানদের দায়িত্ব ভাগাভাগি করে নেবেন বলে জানান।

এই ব্রিটিশ রাজদম্পতি জানান, তাদের চলমান বন্ধুত্বের স্বার্থে এবং সন্তানদের ভবিষ্যৎ চিন্তা করে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তারা।

গত বছরই রানি এবং রাজপরিবারের অন্যান্য সদস্যদের তাদের এই সিদ্ধান্তের কথা জানান ফিলিপস-অটাম।

বিবৃতিতে বলা হয়, দুই পরিবারই মর্মাহত হলেও তাদের সিদ্ধান্তের প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন তারা।

এর আগে ব্রিটিশ রাজপরিবারে সবচেয়ে আলোচিত বিয়ে বিচ্ছেদ ছিল প্রিন্স চার্লস এবং প্রিন্সেস ডায়ানার মধ্যকার। ১৯৯৬ সালে তাদের পনের বছরের দীর্ঘ দাম্পত্য জীবনের অবসান ঘটে। পরের বছরেই এক সড়ক দুর্ঘটনায় প্রেমিক দোদি আল ফায়েদসহ নিহত হন ডায়ানা।  

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন