সদ্য সংবাদ

  করোনা পরীক্ষার সিরিয়াল পেলেন দেড় মাস পর!  গণপরিবহনের ভাড়া বৃদ্ধির সুপারিশ অগ্রহণযোগ্য : ক্যাব  কোয়ারেনটাইনে নায়িকা রাধিকা   করোনা: সরকারি প্রতিষ্ঠানের জন্য ১ সরকারি প্রতিষ্ঠানের জ৮ স্বাস্থ্যবিধি নির্দেশনা   করোনা আক্রান্ত ৩০ ভাগ রোগীর চিকিৎসা দিতে পারছে না সরকার: রিজভী  করোনা মোকাবেলায়: বাংলাদেশকে ৭৩২ মিলিয়ন ডলার দিচ্ছে আইএমএফ   ৬১ লাশ দাফনের পর করোনায় আক্রান্ত নারায়ণগঞ্জের ‘বীর’ কাউন্সিলর খোরশেদ  ইসরাইলি বাহিনীর হাতে আটক আল-আকসা মসজিদের গ্র্যান্ড ইমাম   দেশের এই ক্রান্তিকালে স্বেচ্ছাচারিতা গভীর উদ্বেগজনক: টিআইবি   সিদ্ধিরগঞ্জের বোমা ও ইয়াবাসহ নাদিরা গ্রেপ্তার   পঞ্চগড়ের দুগ্ধ খামারিদের করুণ দশা   ঝিনাইদহ করোনা উপসর্গ নিয়ে ঢাকা ফেরত যুবকের মৃত্যু!   ৩১ মে ফেসবুক লাইভে এসএসসির ফল জানাবেন শিক্ষামন্ত্রী  বাস চলাচলে সরকারের ১২ শর্ত   লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশি হত্যার বিচার চায় বাংলাদেশ   পঞ্চগড়ে করোনায় আক্রান্তদের মধ্যে ১০ জন সুস্থ হয়েছেন   ঝিনাইদহে ঘুর্ণিঝড় আম্পানে ২ লাখ ২৭ হাজার চাষী ক্ষতিগ্রস্থ!  শৈলকুপায় লিচু বাগান রক্ষায় কারেন্ট জালের ফাঁদ   করোনা: দেশে ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের নতুন রেকর্ড ২৫২৩ জন , মৃত্যু ২৩   সিদ্ধিরগঞ্জ রসুলবাগে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে ৩ জনের মৃত্যু, আহত ৫

হজ পালন করানো দোহারের সেই ভণ্ডপীরের সাজা

 Thu, Feb 20, 2020 9:42 PM
 হজ পালন করানো দোহারের সেই ভণ্ডপীরের সাজা

এশিয়া খবর ডেস্ক:: ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত ও প্রতারণার মামলায় দোহারের কথিত

  ভণ্ডপীর মো. মতিউর রহমানসহ নয়জনকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার ঢাকার ভারপ্রাপ্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এ এফ এম মারুফ চৌধুরী এ রায় ঘোষণা করেন।

সাজাপ্রাপ্ত অপর আসামিরা হলেন- সেন্টু পীর, শুকুর, লিয়াকত, কাজল, জিন্টু, আলমাছ, জুলহাস ও আরিফুল ইসলাম বিদ্যুৎ।

সংশ্লিষ্ট আদালতের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর আনোয়ারুল কবীর বাবুল জানান, মতিউর রহমানকে পৃথক দুই ধারায় তিন বছর এবং অপর আসামিদের এক বছর করে কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। মামলায় জিন্টু ও আরিফুল ইসলাম পলাতক রয়েছেন। রায়ে তাদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে। এ ছাড়া রায় ঘোষণার সময় বাকি সাত আসামি আদালতে হাজির ছিলেন। রায় ঘোষণার পর তাদের সাজা পরোয়ানা দিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

আদালত সূত্র জানায়, ২০১৬ সালের ৯ অক্টোবর ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত ও প্রতারণার অভিযোগে মতিউর রহমানসহ নয়জনের বিরুদ্ধে দোহার থানায় মামলাটি করা হয়। সংশ্লিষ্ট থানার তৎকালীন এসআই মো. তছলিম উদ্দিন বাদী হয়ে মামলাটি করেন।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, ২০১৬ সালের ৮ অক্টোবর একটি বেসরকারি টেলিভিশনের সংবাদে বলা হয়, দোহার থানাধীন লটাখোলা সাকিনে জনৈক ভণ্ডপীর মতিউর রহমান তার সঙ্গীসহ প্রতারণার মাধ্যমে মুসলিম নারী ও পুরুষদের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করেছে। সংবাদ পেয়ে মামলার বাদী (পুলিশ কর্মকর্তা) ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখতে পান, আসামিরা এলাকার সহজ-সরল নারী ও পুরুষদের কাছ থেকে প্রতারণার মাধ্যমে সাড়ে ৭০০ করে টাকা নিয়ে পবিত্র হজের মতো প্রতীকী অবস্থার সৃষ্টি করে হজ পালন করাচ্ছে। ভণ্ডপীর মতিউর রহমান তার সহযোগীদের নিয়ে ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের মনে মিথ্যা ভ্রান্ত ধারণা দিয়ে মগজ ধোলাইয়ের মাধ্যমে মুরিদ তৈরি করেছে।

এ ছাড়া নারীদের দিয়ে অসামাজিক কার্যকলাপ করাচ্ছে। তদন্ত শেষে ২০১৭ সালের ৩০ জুন একই থানার পুলিশ পরিদর্শক সিরাজুল ইসলাম শেখ আসামিদের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট (অভিযোগপত্র) দাখিল করেন। পরের বছরের ৩ এপ্রিল আদালত আসামিদের বিরুদ্ধে চার্জ (অভিযোগ) গঠন করেন। মামলায় মোট ১৬ জন সাক্ষীর মধ্যে ১১ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়েছে।

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন