সদ্য সংবাদ

 কালকিনিতে ১৩১ বাড়িতে লাল নিশানা লাগিয়ে দিলো প্রশাসন  করোনার বিরুদ্ধে সাইফুল ইসলাম শান্তির অভিযান শুরু  রংপুরে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে মাস্ক বিতরণ  নরসিংদীতে হোম কোয়ারেন্টিনে ২০৫ প্রবাসী  কালকিনির বিভিন্ন হাট-বাজারে হাতধোয়ার জন্য বেসিন স্থাপন  পঞ্চগড়ে সাড়ে ৭শ’ পিস হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ  রংপুরে করোনা প্রতিরোধে মাস্ক বিতরণ  পার্বতীপুরে শুধুমাত্র পূজার মধ্যদিয়ে ঐতিহ্যবাহী ‘বাহা পরব’ উদযাপিত  রংপুরে এরশাদের জন্মদিন পালিত  বিএফআরআইতে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী এবং জাতীয় শিশু দিবস পালিত  করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে পঞ্চগড়ে জরুরি বৈঠক  আতঙ্কিত না হয়ে সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে : সাদ এরশাদ এমপি  কালকিনিতে দুই প্রবাসীকে আর্থিক জরিমানা  পঞ্চগড়ে সীমিত পরিসরে মুজিববর্ষ পালিত  রংপুরে ৮টি রাস্তা পাকাকরণ ও ড্রেন নির্মাণ কাজ শুরু  কালকিনিতে বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী পালিত  পঞ্চগড়ে মুজিব উতসব পালিত  কালিয়াকৈর প্রেসক্লাবে বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী পালিত  রংপুরে যথাযোগ্য মর্যাদায় বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী পালিত  পঞ্চগড়ে কীটনাশক মুক্ত সবজির চাষ!

রাজধানীতে অভিযান, ছিনতাইকারী চক্রের ৪২ সদস্য গ্রেপ্তার

 Sat, Feb 29, 2020 10:50 PM
রাজধানীতে অভিযান, ছিনতাইকারী চক্রের ৪২ সদস্য গ্রেপ্তার

এশিয়া খবর ডেস্ক:: রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ছিনতাইকারী সন্দেহে ৪২ সদস্যকে

গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। বেশ কয়েকটি চাঞ্চল্যকর ছিনতাই ও ছিনতাইকালে হত্যার মতো ঘটনায় তারা জড়িত থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

শনিবার সকালে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার মো. আবদুল বাতেন এ তথ্য জানান।

তিনি জানান, শুক্রবার দিনভর অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় তাদের কাছ থেকে ৭৪টি মোবাইল ফোন, একটি ট্যাব, একটি ল্যাপটপ জব্দ ও ছিনতাইয়ের কাজে ব্যবহৃত ১৩টি ছুরি ও ২টি চাপাতি উদ্ধার করা হয়।

ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার বলেন, গ্রেপ্তারকৃতরা ছিনতাইকারী ও সালাম পার্টির সক্রিয় সদস্য। এরা সাতরাস্তা, নাবিস্কো, মহাখালী, বনানী, গুলশান-১, গুলশান লিংক রোড, রামপুরা ব্রিজ, ধানমন্ডি, বংশাল, চকবাজার, কলাবাগান, গুলিস্তান, যাত্রাবাড়ী, সায়েদাবাদ, নিউমার্কেটসহ বিভিন্ন এলাকায় সরু সড়কে যাতায়াতকারী রিকশা বা হেঁটে যাতায়াত করা যাত্রীদের ছুরি দেখিয়ে সর্বস্ব ছিনতাই করত।

সাংবাদিক সম্মেলনে আরও বলা হয়, রাজধানীর বিভিন্ন সড়কে পর্যাপ্ত ল্যাম্পপোস্ট না থাকায় ও অধিকাংশ ল্যাম্পপোস্ট নষ্ট থাকায় গলিগুলো অন্ধকারাচ্ছন্ন থাকে। এতে ওই সব এলাকায় ছিনতাইকারীরা ছিনতাই করে সহজেই পার পেয়ে যায়। যেসব এলাকায় এমন অবস্থা, সেখানে পুলিশের দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তাদের নজর দেওয়া দরকার। নগরবাসীকেও ওই সব এলাকা দিয়ে চলাচলের সময় সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। ছিনতাইকারীরা সুযোগ পেলেই ছিনতাই করে। তাদের আইনের আওতায় এনে সাজার ব্যবস্থা না করা হলে অপরাধ কমানো সম্ভব হবে না।

বেশির ভাগ সময় গভীর রাত থেকে ভোর পর্যন্ত বাস-লঞ্চ টার্মিনাল এবং অন্ধকার গলিতে ছিনতাই হয়ে থাকে। ছিনতাইকারীরা তাদের সুবিধামতো কোনো স্থানে রিকশার যাত্রী অথবা পথচারীদের সালাম দেয় যেন তারা পরস্পর পরস্পরের পূর্ব পরিচিত। সালাম পেয়ে রিকশার যাত্রী-পথচারী থামলে তারা কাছে এসে চাকু দিয়ে আঘাত করার ভয় দেখিয়ে সর্বস্ব কেড়ে নেয়। বাস ও লঞ্চ টার্মিনালগুলোতে পেট্রল জোরদারসহ গোয়েন্দা নজরদারিও বাড়ানো হবে। ধরা হবে ছিনতাইকারীদের।

ডিবি কর্মকর্তা আরও বলেন, ছিনতাইকৃত মোবাইল যন্ত্রাংশের দোকান ও মোবাইল কেনা-বেচা করে এমন দোকানে বিক্রি করে। ধরা পড়া ঠেকাতে দোকানদার চোরাই মোবাইল কিনে বিক্রি না করে এর ক্ষুদ্র-যন্ত্রাংশ বিক্রি করে। এমনকি দোকানিরা মোবাইলের মাদারবোর্ড ও আইএমইআই নম্বর পাওয়া যাবে এমন পার্টস বিক্রি করে না। এসব মোবাইল ফোন মেরামত দোকানের তালিকা তৈরি করা হয়েছে। চোরাই মোবাইলের বিক্রি ও কেনার সঙ্গে কারা জড়িত তাদের আমরা চিহ্নিত করেছি। অচিরেই সেসব জায়গায় অভিযান চালানো হবে।

ছিনতাইয়ের ঘটনায় নগরবাসী মামলা করতে নিরুৎসাহিত হয়, এর পেছনে পুলিশের দায় আছে কিনা এমন প্রশ্নে আবদুল বাতেন বলেন, এটা দায়িত্বশীলতা। কোথাও কোনও অপরাধ হলে তা থানায় গিয়ে অভিযোগ দেওয়া। এছাড়া পুলিশের পক্ষে সম্ভব হয় না অপরাধ সম্পর্কে জানা কিংবা অপরাধীকে শনাক্ত করা।

এই গোয়েন্দা কর্মকর্তা বলেন, নগরবাসীকে বলতে চাই, আপনারা থানায় যাবেন, অভিযোগ দেবেন। থানা যদি মামলা বা অভিযোগ নিতে অপারগতা প্রকাশ করে তবে আমাদের ঊর্ধ্বতনদের জানাবেন। আমরা ব্যবস্থা নেব।

শুক্রবার ভোরে কমলাপুরে রেলওয়ে স্টেশনের কাছে ব্যাগ ছিনিয়ে নেওয়ার সময় রিকশা থেকে পড়ে তারানা বেগমের মৃত্যু বিষয়ে ডিবি কর্মকর্তা বলেন, আমরা বিষয়টি অনুসন্ধান করছি। এই ব্যাপারে মামলা হবে। যারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে তারা অবশ্যই আইনের আওতায় আসবে।

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন