সদ্য সংবাদ

 সুদে কারবারীর অত্যাচারে হরিণাকুন্ডুর পান ব্যবসায়ী দিশেহারা!   শ্যামনগর গ্রামে আসামীদের হুমকীতে মামলার বাদী গ্রাম ছাড়া!   পঞ্চগড় সীমান্তে ভারতীয় ২৮ টি গরু আট করেছে পুলিশ  সাঘাটায় সতীতলা গ্রামে সংঘর্ষের ঘটনায় আহত ব্যাক্তির মৃত্যু  সাঘাটায় বজ্রপাতে এক ব্যক্তির মৃত্যু  আড়াইহাজারে পানিতে ডুবে ২ শিশুর মৃত্যু   প্রেম নিয়ে যা বললেন জয়া আহসান  যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে লড়বেন র‌্যাপার কানি ওয়েস্ট   ফতুল্লা কাশিপুরে বাল্য বিবাহ বন্ধ  ৬২ হাজার গ্রাহক অতিরিক্ত বিদ্যুৎ বিলের শিকার, জড়িত ২৯০ কর্মকর্তা-কর্মচারী  সংসদ চললে আদালতও চলতে পারে   করোনা ভাইরাসে দুই হাজার ছাড়ালো মৃত্যু, আক্রান্ত এক লাখ ৬২ হাজার   সীমান্ত হত্যায় সরকার টু পর্যন্ত করে না: রিজভী  বিদেশফেরত সাজাপ্রাপ্ত ২১৯ জনকে কারাগারে প্রেরণ   নারায়ণগঞ্জে বেড়েছে হত্যাকান্ড, প্রশ্ন উঠেছে নিরাপত্তা নিয়ে   কণ্ঠশিল্পী আসিফের বিরুদ্ধে গায়িকা মুন্নির মামলা   বদলিতে তদবির কালচার চিরতরে বিদায় করতে চান আই‌জি‌পি   জমি ও ফ্লাটের নিবন্ধন ফি কমলো  আকাশ ডিটিএইচ সংযোগে এক হাজার টাকা মূল্যছাড়  তাপসীর পান্নুর বিরুদ্ধে দলবাজির অভিযোগ করলেন কঙ্গনা

বাংলাদেশিদের বিদেশে যাওয়া-আসা বন্ধ রাখতে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর অনুরোধ

 Tue, Mar 3, 2020 9:17 PM
বাংলাদেশিদের বিদেশে যাওয়া-আসা বন্ধ রাখতে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর অনুরোধ

এশিয়া খবর ডেস্ক:: বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস আতংকের মধ্যে দেশ ও পরিবারের স্বার্থে

বাংলাদেশিদের আপাতত বিদেশে যাওয়া কিংবা বিদেশ থেকে দেশে ফেরা বন্ধ রাখার অনুরোধ জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

মঙ্গলবার সচিবালয়ে নিজ মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ অনুরোধ করেন তিনি।

প্রবাসী বাংলাদেশিদের দেশে না আসার অনুরোধ করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশি যারা বিদেশে চাকরি করেন, জরুরি প্রয়োজন না হলে দেশে না আসাই ভালো। কারণ আমরা চাই না বাংলাদেশ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হোক। নিশ্চয়ই প্রবাসী বাংলাদেশিরাও চান না তাদের মাধ্যমে দেশের মানুষ কিংবা পরিবারের কেউ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হোক।

বাংলাদেশে করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগী পাওয়া গেলে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই জানিয়ে দেশের সব জেলায় সিভিল সার্জনদের মাধ্যমে প্রতিটি হাসপাতালে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা রাখা হয়েছে বলে আশ্বস্ত করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

তিনি জানান, দেশের সব সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে আইসোলেশন ইউনিট প্রস্তুত রাখা হয়েছে। একই সঙ্গে চিকিৎসক ও নার্সদের প্রশিক্ষিত করা হয়েছে। করোনাভাইরাস শনাক্তে পর্যাপ্ত কিট রাখা হয়েছে। পাশাপাশি দেশের প্রতিটি জেলার ডিসি ও ইউএনওদের নেতৃত্বে করোনাভাইরাস মোকাবেলায় ১০ সদস্যবিশিষ্ট পৃথক দুইটি কমিটি করা হয়েছে।

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন