সদ্য সংবাদ

 কালকিনিতে ১৩১ বাড়িতে লাল নিশানা লাগিয়ে দিলো প্রশাসন  করোনার বিরুদ্ধে সাইফুল ইসলাম শান্তির অভিযান শুরু  রংপুরে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে মাস্ক বিতরণ  নরসিংদীতে হোম কোয়ারেন্টিনে ২০৫ প্রবাসী  কালকিনির বিভিন্ন হাট-বাজারে হাতধোয়ার জন্য বেসিন স্থাপন  পঞ্চগড়ে সাড়ে ৭শ’ পিস হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ  রংপুরে করোনা প্রতিরোধে মাস্ক বিতরণ  পার্বতীপুরে শুধুমাত্র পূজার মধ্যদিয়ে ঐতিহ্যবাহী ‘বাহা পরব’ উদযাপিত  রংপুরে এরশাদের জন্মদিন পালিত  বিএফআরআইতে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী এবং জাতীয় শিশু দিবস পালিত  করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে পঞ্চগড়ে জরুরি বৈঠক  আতঙ্কিত না হয়ে সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে : সাদ এরশাদ এমপি  কালকিনিতে দুই প্রবাসীকে আর্থিক জরিমানা  পঞ্চগড়ে সীমিত পরিসরে মুজিববর্ষ পালিত  রংপুরে ৮টি রাস্তা পাকাকরণ ও ড্রেন নির্মাণ কাজ শুরু  কালকিনিতে বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী পালিত  পঞ্চগড়ে মুজিব উতসব পালিত  কালিয়াকৈর প্রেসক্লাবে বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী পালিত  রংপুরে যথাযোগ্য মর্যাদায় বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী পালিত  পঞ্চগড়ে কীটনাশক মুক্ত সবজির চাষ!

নদী দখল: গুঁড়িয়ে দেওয়া হলো এমপি আসলামের স্থাপনা

 Tue, Mar 3, 2020 10:09 PM
 নদী দখল: গুঁড়িয়ে দেওয়া হলো এমপি আসলামের স্থাপনা

এশিয়া খবর ডেস্ক:: ঢাকার চারপাশের নদী দখল ও দূষণমুক্ত করতে বিশেষ অভিযান

অব্যাহত রেখেছে বিআইডব্লিউটিএ কর্তৃপক্ষ। তারই ধারাবাহিকতায় তুরাগ নদীর পর এবার বুড়িগঙ্গা নদীর দুই তীরের সব অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে অভিযান পরিচালনা করে বিআইডব্লিউটিএ।

মঙ্গলবার বসিলা ব্রিজের দক্ষিণ প্রান্ত কেরানীগঞ্জের চর ওয়াসপুরে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানে নেতৃত্ব দেন বিআইডব্লিউটিএর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হাবিবুর রহমান হাকিম। বিআইডব্লিউটিএর যুগ্ম পরিচালক একেএম আরিফ উদ্দিন এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

অভিযানে কেরানীগঞ্জের চর ওয়াশপুরে অবস্থিত ঢাকা-১৪ আসনের সরকার দলীয় সংসদ সদস্য আসলামুল হকের মালিকানাধীন মাইয়া পাওয়ার প্ল্যান্ট নামে একটি বিদ্যুৎকেন্দ্রের প্রায় আধা কিলোমিটার সীমানা প্রাচীর, তিনটি পাকাঘর ,১০টি অন্যান্য স্থাপনাসহ মোট ২৩টি স্থাপনা ভেঙে ফেলা হয়। মুক্ত করা হয় প্রায় ৩ একর জমি। উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয় সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত।

 খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসেন সংসদ সদস্য আসলামুল হক। তিনি উচ্ছেদ কার্যক্রমের বিরোধিতা করেন।

গণমাধ্যমকে তিনি জানান, বিদ্যুৎকেন্দ্রটি বিআইডব্লিউটিএর অনুমতি নিয়েই করা হয়েছে। এটি বৈধ জায়গা তার।

বিআইডব্লিউটিএর বিরুদ্ধে আদালতে যাবেন বলেন জানান তিনি।

বিআইডব্লিউটিএর যুগ্ম পরিচালক একেএম আরিফ উদ্দিন তার দাবির প্রেক্ষিতে বলেন, এটি নদীর জায়গা। এখানে বেশ কয়েকটি বিধান অমান্য করা হয়েছে। এখানে নদীর জায়গা বালি দিয়ে ভরাট করে আইন অমান্য করা হয়েছে। এখানে তারা শুধু পাওয়ার প্ল্যান্টের আবেদন করেছে। আবেদন আর অনুমতি এক জিনিস না।

একেএম  আরিফ উদ্দিন আরো বলেন, মহামান্য হাইকোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী জাতি ধর্ম, বর্ণ , ধনী, গরিব নির্বিশেষে বৈষম্যহীনভাবে সবাইকেই নদীর অবৈধ দখল থেকে উচ্ছেদ করা হবে।

গত বছরের ২৯ জানুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত ৬৮ কার্য দিবসে প্রায় ৭ হাজার স্থাপনা উচ্ছেদ করে ১৫০ একর নদীর জমি দখল মুক্ত করা হয়।

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন