সদ্য সংবাদ

 সুদে কারবারীর অত্যাচারে হরিণাকুন্ডুর পান ব্যবসায়ী দিশেহারা!   শ্যামনগর গ্রামে আসামীদের হুমকীতে মামলার বাদী গ্রাম ছাড়া!   পঞ্চগড় সীমান্তে ভারতীয় ২৮ টি গরু আট করেছে পুলিশ  সাঘাটায় সতীতলা গ্রামে সংঘর্ষের ঘটনায় আহত ব্যাক্তির মৃত্যু  সাঘাটায় বজ্রপাতে এক ব্যক্তির মৃত্যু  আড়াইহাজারে পানিতে ডুবে ২ শিশুর মৃত্যু   প্রেম নিয়ে যা বললেন জয়া আহসান  যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে লড়বেন র‌্যাপার কানি ওয়েস্ট   ফতুল্লা কাশিপুরে বাল্য বিবাহ বন্ধ  ৬২ হাজার গ্রাহক অতিরিক্ত বিদ্যুৎ বিলের শিকার, জড়িত ২৯০ কর্মকর্তা-কর্মচারী  সংসদ চললে আদালতও চলতে পারে   করোনা ভাইরাসে দুই হাজার ছাড়ালো মৃত্যু, আক্রান্ত এক লাখ ৬২ হাজার   সীমান্ত হত্যায় সরকার টু পর্যন্ত করে না: রিজভী  বিদেশফেরত সাজাপ্রাপ্ত ২১৯ জনকে কারাগারে প্রেরণ   নারায়ণগঞ্জে বেড়েছে হত্যাকান্ড, প্রশ্ন উঠেছে নিরাপত্তা নিয়ে   কণ্ঠশিল্পী আসিফের বিরুদ্ধে গায়িকা মুন্নির মামলা   বদলিতে তদবির কালচার চিরতরে বিদায় করতে চান আই‌জি‌পি   জমি ও ফ্লাটের নিবন্ধন ফি কমলো  আকাশ ডিটিএইচ সংযোগে এক হাজার টাকা মূল্যছাড়  তাপসীর পান্নুর বিরুদ্ধে দলবাজির অভিযোগ করলেন কঙ্গনা

নদী দখল: গুঁড়িয়ে দেওয়া হলো এমপি আসলামের স্থাপনা

 Tue, Mar 3, 2020 10:09 PM
 নদী দখল: গুঁড়িয়ে দেওয়া হলো এমপি আসলামের স্থাপনা

এশিয়া খবর ডেস্ক:: ঢাকার চারপাশের নদী দখল ও দূষণমুক্ত করতে বিশেষ অভিযান

অব্যাহত রেখেছে বিআইডব্লিউটিএ কর্তৃপক্ষ। তারই ধারাবাহিকতায় তুরাগ নদীর পর এবার বুড়িগঙ্গা নদীর দুই তীরের সব অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে অভিযান পরিচালনা করে বিআইডব্লিউটিএ।

মঙ্গলবার বসিলা ব্রিজের দক্ষিণ প্রান্ত কেরানীগঞ্জের চর ওয়াসপুরে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানে নেতৃত্ব দেন বিআইডব্লিউটিএর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হাবিবুর রহমান হাকিম। বিআইডব্লিউটিএর যুগ্ম পরিচালক একেএম আরিফ উদ্দিন এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

অভিযানে কেরানীগঞ্জের চর ওয়াশপুরে অবস্থিত ঢাকা-১৪ আসনের সরকার দলীয় সংসদ সদস্য আসলামুল হকের মালিকানাধীন মাইয়া পাওয়ার প্ল্যান্ট নামে একটি বিদ্যুৎকেন্দ্রের প্রায় আধা কিলোমিটার সীমানা প্রাচীর, তিনটি পাকাঘর ,১০টি অন্যান্য স্থাপনাসহ মোট ২৩টি স্থাপনা ভেঙে ফেলা হয়। মুক্ত করা হয় প্রায় ৩ একর জমি। উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয় সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত।

 খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসেন সংসদ সদস্য আসলামুল হক। তিনি উচ্ছেদ কার্যক্রমের বিরোধিতা করেন।

গণমাধ্যমকে তিনি জানান, বিদ্যুৎকেন্দ্রটি বিআইডব্লিউটিএর অনুমতি নিয়েই করা হয়েছে। এটি বৈধ জায়গা তার।

বিআইডব্লিউটিএর বিরুদ্ধে আদালতে যাবেন বলেন জানান তিনি।

বিআইডব্লিউটিএর যুগ্ম পরিচালক একেএম আরিফ উদ্দিন তার দাবির প্রেক্ষিতে বলেন, এটি নদীর জায়গা। এখানে বেশ কয়েকটি বিধান অমান্য করা হয়েছে। এখানে নদীর জায়গা বালি দিয়ে ভরাট করে আইন অমান্য করা হয়েছে। এখানে তারা শুধু পাওয়ার প্ল্যান্টের আবেদন করেছে। আবেদন আর অনুমতি এক জিনিস না।

একেএম  আরিফ উদ্দিন আরো বলেন, মহামান্য হাইকোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী জাতি ধর্ম, বর্ণ , ধনী, গরিব নির্বিশেষে বৈষম্যহীনভাবে সবাইকেই নদীর অবৈধ দখল থেকে উচ্ছেদ করা হবে।

গত বছরের ২৯ জানুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত ৬৮ কার্য দিবসে প্রায় ৭ হাজার স্থাপনা উচ্ছেদ করে ১৫০ একর নদীর জমি দখল মুক্ত করা হয়।

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন