সদ্য সংবাদ

  কারাগারে হলমার্ক জিএমের নারীসঙ্গী, ডেপুটি জেলারসহ ৩ জন প্রত্যাহার   যে তারকাকে টুইটারে ফলো করেন বাইডেন  জ্যাক মার মিনিটের দাম ৫ হাজার ৮০০ কোটি ডলার!   সাকিব-তামিমে সিরিজ জয় টাইগারদের  রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রী প্রথম টিকা নিলে ভরসা পাবে জনগণ: রিজভী   বিশ্বের দূষিত শহরের তালিকায় শীর্ষে ঢাকা  রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন নিয়ে বাংলাদেশের চিঠির জবাব দিয়েছে মিয়ানমার  কারাগারে হলমার্ক হোতার নারীসঙ্গ, তদন্ত কমিটি গঠন  ‘কিলার‘ নাটক নির্মাণ করে প্রশংসিত আলিফ মাহমুদ  নারায়ণগঞ্জে কাজ করতে পেরে গর্বিত: ডিসি মোস্তাইন বিল্লাহ  সত্য কথা বলায় আমার বিরুদ্ধে মামলা : কাদের মির্জা   বিবাহ ও তালাক নিবন্ধন হবে অনলাইনে   পিকে হালদারের দুই সহযোগী ৩ দিনের রিমান্ডে   কূটনৈতিক এলাকা হতে পারে পূর্বাচলে : পররাষ্ট্রমন্ত্রী  শ্রদ্ধা ভালোবাসায় বিদায় প্রখ্যাত দ্বীনে আলেম মাওলানা জমির হোসাইকে   পঞ্চগড়ে মোবাইল ফোনের টাওয়ারের দাবিতে মানব্বন্ধন  আড়াইহাজারে জাহিন স্পিনিং মিলে অগ্নিকান্ড ১০কোটি টাকার মাল ভষ্মিভূত  নারায়ণগঞ্জে ত্রিমুখী ফ্লাইওভার নির্মাণের পরিকল্পনা-জেলা প্রশাসক   যা বললেন মেলানিয়া   শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার দাবি সংসদে

দর্জি প্রডিউসার বললেন, ‘কম্প্রোমাইজ’ করতে রাজি কি না…

 Sat, Jun 27, 2020 11:45 PM
দর্জি প্রডিউসার বললেন, ‘কম্প্রোমাইজ’ করতে রাজি কি না…

বিনোদন ডেস্ক:: ভারতীয় চলচ্চিত্র জগত তো বটেই এর বাইরেও নতুন করে

  সম্প্রতি আলোচনায় এসেছে ‘নেপোটিজম’ শব্দটি। কথা বলছেন অনেকেই। সেই ধারাবাহিকতায় এবার বিষয়টি উঠে এসেছে ভারতীয় বাংলা চলচ্চিত্র অভিনেত্রী ও টেলিভিশনের পরিচিত মুখ দেবলীনা দত্তের এক লেখায়।


অভিনয়ের শুরুর দিকে কীভাবে তিনি একজন প্রযোজকের মাধ্যমে অনৈতিক প্রস্তাব পেয়েছিলেন শনিবার দেবনীলা সে প্রসঙ্গ তুলে ধরেছেন দৈনিক আনন্দবাজার পত্রিকায়।

তিনি লিখেছেন, বাধ্য হলাম কলম ধরতে। ইন্ডাস্ট্রিতে ২২ বছরের অভিজ্ঞতা। আজও মুখ বন্ধ করে থাকলে নিজেকে অপরাধী মনে হবে।

’ইদানি শুনতে পাচ্ছি, আমাদের ইন্ডাস্ট্রিতে নাকি ‘ফেভারিটিজম’ আছে, ‘নেপোটিজম’ বা স্বজনপোষণ নেই। এটা মিথ্যে কথা! ডাহা মিথ্যে বলছে লোকজন। শুধু স্বজনপোষণ নয়, এই ইন্ডাস্ট্রিতে মাফিয়ার আধিপত্য কিছু কম দেখলাম না।’

দেবলীনা লিখেছেন, আমার ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে একটু ফিরে যাই। আজ থেকে ২২ বছর আগে আমার দ্বিতীয় ধারাবাহিককে কাজ করার সুযোগ পেয়েছিলাম। আমাকে বলা হল, প্রযোজক দেখা করতে চেয়েছেন। তখন মা আমার সঙ্গে যেত, মা স্ক্রিপ্ট লিখত। কিছু ক্ষণ প্রযোজকের অফিসে অপেক্ষার পরে উনি বলে পাঠালেন, আমার সঙ্গে উনি একা কথা বলবেন।

তিনি লিখেছেন, গেলাম। ওমা! গিয়ে দেখি ওর টেবিলে ঠিক ওর মুখের সামনে একটা সিসিটিভি রাখা! আজ থেকে ২২ বছর আগে! আমি বুঝলাম, যত ক্ষণ আমরা বসেছিলাম সিসিটিভি দিয়ে উনি আমাকে আর মাকে দেখছিলেন। যাই হোক, এখনকার পরিচালক বা প্রযোজকদের মতো কোনও রাখঢাক না করেই উনি আমায় জিজ্ঞেস করলেন, এই ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করতে এসেছি আমি, ‘কম্প্রোমাইজ’ করতে রাজি কি না! চমকাতে দেখি, উনি আমাকে আরও সুন্দর করে বুঝিয়ে দিলেন, প্রযোজকের সঙ্গে অভিনেত্রীর বোঝাপড়া, সখ্য না থাকলে ভাল কাজ হয় না। প্রযোজককেও আলাদা সময় দিতে হবে, তবেই পারস্পরিক সমঝোতা তৈরি হবে।


ভারতীয় এই অভিনেত্রী লিখেছেন, প্রযোজক বললেন, আমার চরিত্র, সংলাপ সব নিয়ে উনি কথা বলবেন। এমনকি, আমার জামাকাপড়ের মাপও উনি নেবেন! এটা শোনার পর আমি এক কথায় না বলে দিই ওর মুখের ওপর। তাতে উনি আমায় চ্যালেঞ্জ করেন, আমি নাকি ইন্ডাস্ট্রিতে এই মনোভাব নিয়ে টিকে থাকতে পারব না। শুনেছি, সব নায়িকার সঙ্গেই উনি এই ব্যবহার করতেন। ‘দর্জি প্রডিউসার’ নামে উনি বিখ্যাত ছিলেন। ছিলেন এই কারণে লিখলাম, আজ আর ওকে কেউ চেনে না।

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন