সদ্য সংবাদ

 এসপি জানতেন ওসি প্রদীপের ‘জলসা ঘরে’ চলত ভ’য়ংকর সব অপরাধ!  এবার রাজশাহী রেঞ্জ এসপির বিরুদ্ধে ব্যবসায়ীর চাঁদাবাজির মামলা  আড়াইহাজারে মার্কেটের ছাদে যুবকের গলাকাটা লাশ  সুশাসনের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় টিআইবির নয় দফা  নির্বাচনে দলীয় টিকেট নিশ্চিত করেছেন ইলহান ওমর   ক্রসফায়ারের ভয় দেখিয়ে অর্থ আদায়, পাঁচ পুলিশের বিরুদ্ধে মামলা   ওসি শিশিরের অপকর্ম তদন্তে পুলিশ হেডকোয়াটার্সের টিম বরিশালে   বাড়ার পর এবার স্বর্ণের দাম কমল   সিফাতের ভাষ্য: বাংলাদেশ কাম ডাউন, কাম ডাউন, এরপর গুলি..   মেজর সিনহা হত্যা মামলা: ১৬ আগস্ট গণশুনানি করবে তদন্ত কমিটি   মেজর সিনহার হত্যাকাণ্ড নিয়ে যা বললেন এমপি হারুন  বর্ধিত বাসভাড়া বাতিলের দাবিতে সীতাকুণ্ডে যাত্রী কল্যাণ সমিতির সমাবেশ  শৈলকুপায় প্রেমের ফাঁদে ফেলে ৬ মামলার আসামী গ্রেফতার   ঝিনাইদহে মোট আক্রান্ত ১২১৩ ও মৃত্যু ৪০ জন  পঞ্চগড়ে শিক্ষক নিয়োগে হাতিয়ে নিয়েছে ৩০ লাখ টাকা   মেজর সিনহার খুনী পুলিশ পরিদর্শক লিয়াকতের বিরুদ্ধে যত অভিযোগ  নিজের জন্ম শহরে ৫০টি ভেন্টিলেটর দিলেন মেসি   পুলিশের সংস্কার প্রয়োজন- এসপি মোহাম্মদ জায়েদুল আলম   নায়িকার শরীর নিয়ে মন্তব্য করে বিপাকে পরিচালক  সরকার পদত্যাগের পরও যে কারণে বিক্ষোভে উত্তাল বৈরুত

নারায়ণগঞ্জে মদের বারের বিল্ডিং ভেঙে দিবো – মাও. আওয়াল

 Sat, Jul 11, 2020 10:46 PM
নারায়ণগঞ্জে মদের বারের বিল্ডিং ভেঙে দিবো – মাও. আওয়াল

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি:: হরের চাষাঢ়া বালুরমাঠ এলাকায় অবস্থিত প্যারাইজ ক্যাসেল ভবনের

 মদের বার নিয়ে শুক্রবার জুম্মার বয়ানে ডিআইটি মসজিদের খতিব ও হেফাজতে ইসলাম নারায়ণগঞ্জের সভাপতি মাওলানা আব্দুল আউয়াল বলেছেন, এবার আন্দোলনের মাধ্যমে মদের বারের সাথে ওই বিল্ডিংও ভেঙে দেয়া হবে। নারায়ণগঞ্জের এমপিসহ আমাদের বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে তারা মদের কার্যক্রম শুরু করেছে। এই মদের বার বন্ধ করুন নয় তো আমরা নারায়ণগঞ্জের জনগণদের নিয়ে আন্দোলনে করতে বাধ্য হবো।  তিনি আরও বলেন, শহরের একটা মদের আড্ডাখানা বিরুদ্ধে আন্দোলন করেছি। প্রশাসন কি মনে করেন? আমরা করোনার লকডাউনে সব ভুলে গেছি। নারায়ণগঞ্জের এই মদের আড্ডাখানা নিয়ে আমাদের আইওয়াশ করানো হয়েছে। নারায়ণগঞ্জের এমপিরা আমাদের আশস্ত করেছেন এই মদের বার এখানে চলবে না। কিন্তু এখন খবর নিয়ে দেখি করোনার লকডাউনে সবাই যখন ঘুমে সেই সুযোগে তারা ফেল মদ নিয়ে জেগে উঠেছে। মাওলানা আব্দুল আউয়াল বলেন, তারা রেস্টুরেন্টের নামে লোক দিয়ে পারসেলে মদ বিক্রি করছে। খবর পেয়েছি মদের বারের লোকজনরা ক্রেতা কে বলছে কখন কিভাবে কোথায় মদ দিবে তারা। মুসলমানদের সাথে তারা বার বার প্রতারণা করছে। তোমরা এতো বড় ব্যবসায়ী যে মদ দিয়ে নারায়ণগঞ্জ কে ডুবাতে চাও। আমরা এটা মানবো না কোন লকডাউন মানবো না। এই মদের বার উচ্ছেদ করতে আবারও মাঠে নেমে যাবো।  হেফাজতে ইসলামের সভাপতি আরও বলেন, এখানে অমুসলমানরা গিয়ে মদ খায়। এদের সাথে কিছু মুসলিম নামধারীরাও জড়িয়ে যায়। নারায়ণগঞ্জ শহর থেকে এই মদের বার সরাতে হবে। এই মদের বার কোন মসজিদের পাশে বা স্কুলের পাশে করতে পারবে না। সংশ্লিষ্টদের কাছে আমাদের এরকম দাবি ছিলো। কিন্তু তারা আইন নীতিমালা অমান্য করে শহরের মাঝখানে মদের কারখানা গড়ে তুলেছে। এটা নারায়ণঞ্জ থেকে অন্য জায়গায় নিতে হবে। আমরা পূর্বেই বলেছি মদের বার নিয়ে তোমরা যেখানে খুশি যাও কিন্তু নারায়ণগঞ্জ শহর থাকতে পারবে না। এই শহরের পরিবেশ নষ্ট করতে পারবে না। মুসলমান নাম দিয়ে মদের ব্যবসা করছে। মদের বার চালানোর চেষ্টা করছে। তোমরা মুসলমান নয় মুরতাব।  উল্লেখ্য, নারায়ণগঞ্জের প্যারাডাইস ক্যাবলসের মালিক মোবারক, মোশারফ, মজিবর ও মনির। তাদের কাছ থেকে প্রতি মাসে ৫ লাখ টাকা ভাড়ায় এবং ৪০ লাখ টাকা অগ্রিমে ১০ বছরের চুক্তিতে তিনটি ফ্লোর ভাড়া নিয়েছিলো রাশেদ খান। মদের বার উদ্ধোধনের সময় বারের সংশ্লিষ্ট গাজী মুক্তার দাবি করে ছিলেন এই বারের লাইসেন্সও আছে। তবে উদ্ধোধনের কিছুদিন পরই বার বন্ধ করে দেন মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর। এর আগে নারায়ণগঞ্জ জেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির একটি মাসিক সভায় চাষাড়ায় মদের বার প্রসঙ্গে প্রথম বক্তব্য রাখেন নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাব সভাপতি মাহবুবুর রহমান মাসুম। এরপরই এ বিষয়টি আলোচনায় আসে। পরে নাগরিক কমিটিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠন মদের বার বন্ধের দাবি জানান। নারাণগঞ্জের পুলিশ সুপার জায়েদুল আলম নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবে এসে বারের ব্যাপারে জোরালো পদক্ষেপ নেওয়ার বিষয়ে জানিয়েছিলেন

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন