সদ্য সংবাদ

 নারায়ণগঞ্জে ত্রিমুখী ফ্লাইওভার নির্মাণের পরিকল্পনা-জেলা প্রশাসক   যা বললেন মেলানিয়া   শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার দাবি সংসদে   প্রেমিকের দেয়া ফ্ল্যাটে থাকছেন পপির, বিয়ের গুঞ্জন   শেষে হোয়াইট হাউস ছাড়লেন ট্রাম্প  “বঙ্গবন্ধু হিমালয় ওয়াচ টাওয়ার এন্ড কমপ্লেক্স” স্থাপনের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন  রাহুল স্মৃতি টি-২০ ক্রিকেট টুর্নামেন্টের উদ্বোধন  হরিণাকুন্ডু সড়ক দুর্ঘটনায় যুবক নিহত  ঝিনাইদহে অবৈধ ইটভাটায় অভিযান, ২৩ লাখ টাকা জরিমানা  নবীনগরে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে চাচা ভাতিজার মৃত্যু  তাহিরপুরে কিশোরকে হত্যাচেষ্টা  কালিয়াকৈরে গৃহহীন বিধবার জন্য দুইটি ঘর নির্মাণ করে দিলেন পল্লীবিদ্যুৎ  দেশে ফেরত পাঠানোর জন্য ৪২ হাজার রোহিঙ্গাকে শনাক্ত করল মিয়ানমার  মুক্তিযোদ্ধাদের নামে সড়ক ও সেতুর নামকরণ করা হবে   ঘুষ কেলেঙ্কারিতে স্যামসাং প্রধানের কারাদণ্ড  জমি দখল-জালিয়াতি প্রতিকারে নতুন আইন হচ্ছে   নারায়ণগঞ্জে হিরাঝিল, রাজধানী হোটেলসহ ৫ প্রতিষ্ঠানে অভিযান  বাইডেনের শপথ ঘিরে মুসলিমদের সতর্ক থাকার পরামর্শ  কাদের মির্জাকে পাবনা পাঠাতে বললেন নিক্সন চৌধুরী   ঐক্যের আহ্বান জানিয়ে সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষণ

বঙ্গবন্ধুর দুই কন্যার মানবিকতা

 Tue, Jul 28, 2020 10:40 PM
বঙ্গবন্ধুর দুই কন্যার মানবিকতা

এশিয়া খবর ডেস্ক:: সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার রামপাশা ইউনিয়নের চারটি গ্রাম-

 জামশেদপুর, ধলীপাড়া, মাখরগাঁও এবং আমতৈল মিলে বৃহত্তর আমতৈল গ্রাম নামে পরিচিত। আমতৈল গ্রামে প্রতিবন্ধিতার হার সিলেটের সামগ্রিক হারের তুলনায় দ্বিগুণেরও বেশি। মানবিক এ বিষয়টি বঙ্গবন্ধুর কনিষ্ঠ কন্যা শেখ রেহানা তার বড় বোন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টিতে আনেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিষয়টি তৎক্ষণাৎ আমলে নেন। তিনি রামপাশা ইউনিয়নের ৪৬১ জন প্রতিবন্ধীকে জনপ্রতি ২ হাজার ৫০০ টাকা এবং প্রতি পরিবারের জন্য একটি লুঙ্গি ও একটি শাড়ি বরাদ্দের জন্য ১৬ লাখ ১৩ হাজার ৫০০ টাকা প্রদান করেন।

মঙ্গলবার বিকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় সূত্রে এ সব তথ্য জানা গেছে। জানা গেছে, আমতৈল গ্রামের বর্তমান প্রতিবন্ধী শিশুদের সুস্থতা এবং ভবিষ্যতে সুস্থ প্রজন্ম নিশ্চিত করার নির্দেশনাও দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সেগুলো হল- ১. গ্রামের সব প্রতিবন্ধীর সমস্যা যথাযথভাবে চিহ্নিত করে বিশেষ প্রতিবন্ধী ভাতার আওতায় আনতে হবে।

২. সবাইকে স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও পরিবার পরিকল্পনা বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে বাড়ি বাড়ি গিয়ে কাউন্সেলিং করা।

৩. নিজ বাসস্থানসহ আশপাশের পরিবেশ পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধি করা।

৪. খাদ্যের সব পুষ্টিমান নিশ্চিত করতে ভিটামিন সাপ্লিমেন্টারি ওষুধ সরবরাহ এবং সুপেয় পানির সুব্যবস্থা করা।

৫. গ্রামে প্রয়োজনীয় মাটি ভরাট, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, ড্রেনেজ সিস্টেম চালু এবং অন্যান্য অবকাঠামোগত উন্নয়ন করতে হবে।

৬. প্রতিবন্ধীদের চাহিদা মোতাবেক বহুমাত্রিক শিক্ষা প্রদানের ব্যবস্থা করে প্রতিবন্ধী স্কুল স্থাপন ও প্রয়োজনীয় লোকবল নিয়োগ করা।

৭. চাহিদামাফিক প্রয়োজনীয় সহায়ক উপকরণ যেমন- হুইল চেয়ার, ট্রাইসাইকেল, হেয়ারিং ডিভাইস ও দৃষ্টি সহায়ক উপকরণ সরবরাহ করতে হবে।

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন