সদ্য সংবাদ

 সিদ্ধিরগঞ্জে ১৮ ফার্মেসিকে সাড়ে ৩ লাখ টাকা জরিমানা  মেহেদি অনুষ্ঠানের ছবি শেয়ার করলেন কাজল  ফ্রান্সে মুহাম্মদকে ব্যাঙ্গাত্ব করার প্রতিবাদে পঞ্চগড়ে বিক্ষোভ   ৩৫ টাকার আলু নিচ্ছে ৪৫   ইসরাইলি-যুক্তরাষ্ট্রের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে ফিলিস্তিনিকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে : হামাস  ১০ নভেম্বর থেকে ৬৪ জেলায় ই-পাসপোর্ট  চর এলাকার মানুষের উন্নয়নে বোর্ড করার দাবি -ডেপুটি স্পিকার  আড়াইহাজারে ইয়াবা সহ গ্রেফতার ২   ফ্রান্সে মহানবীকে ব্যঙ্গ করায় নবীনগরে বিক্ষোভ   চোর যখন সৎ!   ‘শহর ও গ্রামের ব্যবধান কমাতে সরকার কাজ করছে’   নারায়ণগঞ্জ সদর থানার সাবেক ওসি কামরুল কারাগারে  দুর্নীতি-জালিয়াতি: ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল জান্নাতুলকে দুদকে তলব   সড়কে মৃত্যুর ক্ষতিপূরণ ৫ লাখ টাকা  অভিনেত্রী মালভিকে কুপিয়েছেন প্রযোজক  কিশোরীকে গণধর্ষণের মামলায় ডিবির এএসআই গ্রেপ্তার  আওয়ামী লীগ চায় না ভোটাররা কেন্দ্রে আসুক : বিএনপি  সাকিবের নিষেধাজ্ঞায় কষ্ট পেয়েছিলাম  র‌্যাবের শীর্ষ কমান্ডারদের উপর নিষেধাজ্ঞা জারির জন্য যুক্তরাষ্ট্রের সিনেটরদের আহ্বান  সু চিকে রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে বলল যুক্তরাষ্ট্র

পিকে হালদার ১০ হাজার ২০০ কোটি টাকা সরিয়েছেন

 Sun, Sep 27, 2020 10:24 PM
পিকে হালদার ১০ হাজার ২০০ কোটি টাকা সরিয়েছেন

এশিয়া খবর ডেস্ক:: সাড়ে তিন হাজার কোটি নয় , প্রশান্ত কুমার হালদার (পিকে হালদার)

  সরিয়েছেন ১০ হাজার ২০০ কোটি টাকা। চারটি আর্থিক প্রতিষ্ঠান  থেকে অন্তত ১০ হাজার ২০০  কোটি টাকা  তিনি ও তার ঘনিষ্ঠরা সরিয়েছেন। এমন তথ্যই ওঠে এসেছে বাংলাদেশ ব্যাংকের ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের (বিএফআইইউ) এক  প্রতিবেদনে।   যে চারটি প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে টাকাগুলো সরিয়েছেন সেগুলো হচ্ছে, ইন্টারন্যাশনাল লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস লিমিটেড থেকে ২ হাজার ৫০০ কোটি টাকা, পিপলস লিজিং অ্যান্ড ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস লিমিটেড থেকে ৩ হাজার কোটি টাকা, ফাস ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড (এফএএস) থেকে ২ হাজার ২০০ কোটি টাকা এবং রিলায়েন্স ফাইন্যান্স লিমিটেড থেকে ২ হাজার ৫০০ কোটি টাকা সরানো হয়। জানা গেছে , কারসাজির মধ্যমে ঋণের নামে কাগুজে প্রতিষ্ঠানের বিপরীতে এসব অর্থ সরানো হয়। বিএফআইইউ এই প্রতিবেদনটি দুদক’কে পাঠিয়েছে।
সূত্র বলছে , প্রতিষ্ঠানগুলোর কয়েকজনসহ ২৫ থেকে ৩০ ব্যক্তির সহায়তায় এ অপকর্ম সংঘটিত হয়েছে। এদের মধ্যে ইতোমধ্যে ১৯ জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। এছাড়া এসব দুর্নীতির সঙ্গে  প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে জড়িত থাকার অভিযোগে পিকে হালদারসহ এ পর্যন্ত ৮৩ জনের ব্যাংক হিসাব জব্দ করা হয়েছে। তদন্ত কর্মকর্তারা জানান, পিকে হালদার ও তার সহযোগীদের মালিকানাধীন ৩০টি প্রতিষ্ঠান ব্যবহার করে এনবিএফআইয়ের কাছ থেকে ১০ হাজার ২০০ কোটি টাকা ঋণ নিয়ে আত্মসাৎ করে এবং এই অর্থ কানাডা, সিঙ্গাপুর ও ভারতে পাচার করে।
গত বছর দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) অবৈধ ক্যাসিনো মালিকদের সম্পদের তদন্ত শুরু করলে পিকে হালদারের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ উঠে আসে। চলতি বছর ৮ জানুয়ারি দুদক অজ্ঞাত সূত্র থেকে প্রায় ২৭৫ কোটি লাখ টাকার সম্পত্তি অর্জনের অভিযোগে তার বিরুদ্ধে মামলা করে। দুদক এবং বাংলাদেশ ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট (বিএফআইইউ) বিষয়টি খতিয়ে দেখছে।
আপনার মতামত দিন

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন