সদ্য সংবাদ

 করোনার টিকার অনুমোদন চায় মডার্নাও  test news for news uploading   ‘কম খরচে যাতায়াতে দেশব্যাপী রেল নেটওয়ার্ক স্থাপন হবে  দুবাইয়ের ব্যবসায়ীর সঙ্গে বাগদান সারলেন বেনজিরের মেয়ে   বর্তমান সরকারের পতনের অবস্থা চলছে: ডা. জাফরুল্লাহ   বঙ্গবন্ধু রেলসেতুর ব্যয় হবে ১৭ হাজার কোটি টাকা  পঞ্চগড়ে কৃষকদের মাঝে সার-বীজ বিতরণ   নারায়ণগঞ্জ সদর থানার নতুন ওসি ধর্ষণ মামলায় অভিযুক্ত  ঝিনাইদহ আইনজীবী সমিতির নির্বাচন অনুষ্ঠিত  মোবারকগঞ্জ চিনিকল শ্রমিকদের মানববন্ধন  ডেপুটি স্পিকার অ্যাড.ফজলে রাব্বীকে গণসংবর্ধনা  যুক্তরাজ্যে নারীদের 'কুমারীত্ব পরীক্ষার'   পার্বত্য চট্টগ্রামের বছরে ৪শ’কোটি টাকার চাঁদাবাজি   না’গঞ্জে অবৈধ যানবাহনের দাপটে ঘটছে দুর্ঘটনা।   বাল্যবিয়ে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে এলাকাবাসীর ক্ষোভ   ‘প্রিয় বন্ধু’র মৃত্যুর দিনেই বিদায় নিলেন ম্যারাডোনা   নারীদের ‘জানোয়ারের’ সঙ্গে তুলনা করলেন ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী   কৌশানী মুখার্জির `ফিগার সিক্রেট’  বনানী কবরস্থানে শায়িত হলেন আলী যাকের  বিশ্বকে নেতৃত্ব দিতে এসেছে আমেরিকা: বাইডেন

লাদাখ থেকে কাশ্মীর পর্যন্ত ভারতের ১০০ কিলোমিটার টানেল

 Wed, Oct 21, 2020 9:05 PM
    লাদাখ থেকে কাশ্মীর পর্যন্ত ভারতের ১০০ কিলোমিটার টানেল

এশিয়া খবর ডেস্ক:: লাদাখ থেকে কাশ্মীর পর্যন্ত একশ’ কিলোমিটার

 দীর্ঘ টানেল তৈরি করছে ভারত।

লাদাখ ও কাশ্মীর পর্যন্ত সামরিক যান ও সাধারণ মানুষের চলাফেরার জন্য ১০টি টানেল নির্মাণ করা হচ্ছে। এগুলোর মোট দৈর্ঘ্য একশ’ কিলোমিটার।

সীমান্ত এলাকায় ভারতের দ্রুত অবকাঠামো উন্নয়নে চীনের বিরক্তির পরও এই টানেল নির্মাণে কোনো ধরনের ব্যত্যয় ঘটেনি বলে জানিয়েছেন ভারতের কর্মকর্তারা। এসব টানেলের কিছু সমুদ্রতট থেকে ১৭ হাজার ফিট উচ্চতায় তৈরি করা হচ্ছে।  খবর ইন্ডিয়া টুডের।

ভারত জম্মু ও কাশ্মীর রাজ্যকে ভেঙে তিনটি অঞ্চলে পরিণত করার পর সেখানে নানা উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডের উদ্যোগ নেয়।

এছাড়া চীনের সঙ্গে লাদাখ সীমান্তে বিরোধ ও সংঘর্ষে অন্তত ২০ ভারতীয় সামরিক বাহিনীর সদস্যের প্রাণহানির পর সীমান্ত এলাকায় উন্নয়ন কর্মকাণ্ড আরও গতিশীল হয়।

এরই অংশ হিসেবে নির্মাণ করা হচ্ছে একশ’ কিলোমিটার দীর্ঘ ১০টি টানেল। এতে করে দ্রুত সামরিক যোগাযোগ, যে কোনো লড়াইয়ের ক্ষেত্রে রসদ সরবরাহসহ সীমান্ত সমস্যায় সুবিধা পাওয়া যাবে।

এছাড়া অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড জোরদারের পাশাপাশি জরাজীর্ণ সীমান্ত অঞ্চলের মানুষের জীবনমানও এতে উন্নত হবে।

৩ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আতাল টানেল উদ্বোধন করেন। এতে করে হিমাচলপ্রদেশের মিনালি ও লাদাখের লেহ-এর মধ্যকার দূরত্ব কমে আসে।

একই পাহাড়ি অঞ্চলে ১২ মাস যোগাযোগের সুযোগও তৈরি হয়। আগে দুর্গম এলাকাগুলোতে মৌসুমি বিভিন্ন সমস্যার কারণে সব সময় যোগাযোগ অব্যাহত রাখা সম্ভব হতো না।

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন