সদ্য সংবাদ

 করোনার টিকা নিলেন সাংবাদিক ও মানবিক যোদ্ধা মান্নান ভূঁইয়া   সিদ্ধিরগঞ্জ সানারপাড়ে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় আহত ১  ডিএমপির মিডিয়া শাখার নতুন মুখপাত্র ডিসি ফারুক হোসেন   সাত টাকায় চিকিৎসা দেবে গণস্বাস্থ্য: ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী   জিম্বাবুয়ের কাছে হারলো বাংলাদেশ   চট্টগ্রামে গৃহকর্মী নির্যাতনের অভিযোগে চিকিৎসক গ্রেপ্তার  স্বামীর অশ্লীল ভিডিও নিয়ে যা বললেন শিল্পা  ‘কঠোর লকডাউনে কারো পৌষ মাস কারো সর্বনাশ’   ভারতে সর্বোচ্চ নম্বর পেয়ে মুসলিম ছাত্রীর ইতিহাস   না.গঞ্জে কঠোর বিধি-নিষেধ বাস্তবায়নে মাঠে প্রশাসন  অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার কোভিড টিকা নিলে আজীবন সুরক্ষা!  বিক্রি করতে না পেরে চামড়ায় সয়লাব রাস্তা, উৎকট গন্ধ  নতুনধারার মাস্ক ও স্যানিটাইজার কেন্দ্র উদ্বোধন   সাংবাদিক রিজভী আহমেদের উপর সন্ত্রাসী হামলা!   জাহেদী ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে গরীব ও দুস্থদের মাঝে মাংস ও টাকা বিতরণ  সাগরে লঘুচাপ, সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত  পদ্মা সেতুর পিলারে ধাক্কা, ফেরির মাস্টার বরখাস্ত  যুবলীগ নেতা আকবর আলীর ঈদ শুভেচ্ছা  মুসলিম রীতিতে বিয়ে করে বিপদে ভারতীয় ক্রিকেটার   চীন থেকে রাতে আসছে আরও ২০ লাখ সিনোফার্মের টিকা

৫০ হাজার টাকা ও মোবাইল ফেরত দিয়েছেন সেই এসআই

 Fri, Nov 20, 2020 10:32 PM
 ৫০ হাজার টাকা ও মোবাইল ফেরত দিয়েছেন সেই এসআই

কক্সবাজার প্রতিনিধি:: কক্সবাজারের দ্বীপ উপজেলা কুতুবদিয়ায় এক মামলায়

 আসামিপক্ষের অভিভাবক থেকে ৬৫ হাজার টাকা ও আত্মীয়ের মোবাইল নিয়ে নেন এক এসআই। এ ঘটনায় সংবাদ প্রকাশের পর ৫০ হাজার টাকা ও মোবাইল ফোন ফেরত দিয়েছেন এসআই  আবদুল্লাহ আল  ফারুক।

স্থানীয় ইউপি সদস্য জিয়াউর রহমানের মধ্যস্থতায় ওই টাকা ও মোবাইল ফোন ফেরত দেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।

জানা যায়, গত ১৩ অক্টোবর দ্বীপ উপজেলা কুতুবদিয়ার বড়ঘোপ ইউনিয়নের মগডেইল এলাকায় এক স্কুলছাত্রীকে যৌনপীড়নের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ছাত্রীর পিতা মাস্টার জাহাঙ্গীর আলম বাদী হয়ে কুতুবদিয়া থানায় নারী ও শিশু নির্যাতনের ১০/৩০ ধারায় একটি মামলা করেন। মামলায় আসামি করা হয় একই এলাকার নাছির উদ্দিনের ছেলে স্কুল ও কলেজ পড়ুয়া দুই সহোদর শহীদুল ইসলাম, মো. শরীফ ও তাদের বন্ধু নুরুন্নবীকে।

এ মামলা রেকর্ডের পর থেকেই আসামিদের গ্রেফতার না করা, ধারা কমিয়ে দেয়া ও এক ভাইকে বাদ দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে চার দফায় ৬৫ হাজার টাকা আদায় করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই আবদুল্লাহ আল ফারুক।

তারপরও টাকার জন্য পিছু ছাড়ছে না আসামির পিতা নাছির উদ্দিনের- এমন অভিযোগ বিবাদীর পিতার। পরে বিষয়টি নিয়ে যুগান্তরে সংবাদ প্রকাশিত হওয়ার পর এসআই  ফারুক ৫০ হাজার টাকা এবং আত্মীয়ের মোবাইল ফোনটি ফেরত দিয়েছেন বলে জানান ভুক্তভোগী নাছির উদ্দিন।

তিনি জানান, মামলা রেকর্ডের পর চার দফায় মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ৬৫ হাজার টাকা নেয়। পরে আরও টাকার জন্য চাপ দিলে সাংবাদিকদের আশ্রয় নেয়া হয়। পরে সাংবাদিক বিষয়টি নিয়ে ওই এসআইয়ের সঙ্গে কথা বলার পর তিনি নিজেই ৫০ হাজার টাকা ও মোবাইল ফোন ফেরত দেন।

তবে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই  আবদুল্লাহ আল  ফারুক বলেন, আসামির পিতার কাছ থেকে তৃতীয় একটি পক্ষ টাকাগুলো নিয়েছিল। পরে আমি (এসআই) নিজেই ৫০ হাজার টাকা উদ্ধার করে দিয়েছি। পাশাপাশি মোবাইল ফোনটিও মালিকের কাছে ফেরত দিয়েছেন বলে যুগান্তরকে জানান আবদুল্লাহ আল ফারুক।

কুতুবদিয়া থানার ওসি মো. জালাল উদ্দিন বলেন, মামলার আসামির পিতা নাছির উদ্দিন ১৯ নভেম্বর রাতে আরও  কয়েকজন লোক নিয়ে থানায় এসেছিলেন। তারা তাদের টাকা বুঝে পেয়েছেন বলে জানান। তবে বিষয়টি নিয়ে আর ঘাটাঘাটি না করার জন্য প্রতিবেদককে অনুরোধ করেন তিনি।

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন