সদ্য সংবাদ

 অমিতাভ নাতনি নভ্যার ভাইরাল ছবি ঘিরে জল্পনা  সারাদেশে শীত থাকবে মাসজুড়ে  ১২ মাসের বেতন দিতে না পারলে পরিষদ বাতিল: স্থানীয় সরকার মন্ত্রী  পঞ্চগড়ে গভীর রাতে শীতার্তদের পাশে জেলা প্রশাসক   কারাগারে মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক অনলাইন প্রশিক্ষণ শুরু  বাগলী স্থল শুল্ক ষ্টেশনে মানববন্ধন  আড়াইহাজারে সোয়া ৫টন অবৈধ পলিথিন সহ গ্রেফতার ২   ভারতে টিকা নেয়ার পর ৪৪৭ জনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া  সিদ্ধিরগঞ্জে ভাবীকে পিটিয়ে রক্তাক্ত যখম করলেন দেবর  সাংবাদিকদের কল্যাণে সরকার কাজ করে যাচ্ছে -পিআইবি মহাপরিচালক   ফাইজারের করোনা ভ্যাকসিন নেয়ার পর নরওয়ের ২৩ নাগরিকের মৃত্যু  সিরাজগঞ্জ বিএনপি বিজয়ী কাউন্সিলর প্রার্থী খুন   নির্বাচনে কে জিতবে, নির্ধারণ হয় প্রধানমন্ত্রীর বাসা থেকে   এ নির্বাচনকে অংশগ্রহণমূলক বলা যায় না : মাহবুব তালুকদার  রাজউকের প্রস্তাব বাস্তবসম্মত নয়, নাসিকের চিঠি   মঞ্জু হত্যা মামলা থেকে প্রয়াত রাষ্ট্রপতি এরশাদকে অব্যাহতি  নারায়ণগঞ্জ বধ্যভূমিতে ১৩৯ শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনে ডিসি  বাইডেনের শপথ গ্রহণে গাইবেন লেডি গাগা ও জেনিফার লোপেজ  পুতুলে ভরে অভিনব কায়দায় ইয়াবা বিক্রি  ঢাকা এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে দৃশ্যমান

চিরকুটে লেখা 'বিদায় বান্ধবীরা'

‌হলে ছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ,

 Mon, Nov 23, 2020 10:05 PM
 চিরকুটে লেখা 'বিদায় বান্ধবীরা'

দিনাজপুর প্রতিনিধি:: দিনাজপুর নার্সিং কলেজের হল থেকে এক শিক্ষার্থীর

 ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এসময় তার কক্ষ থেকে একটি চিরকুট পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে সহপাঠীরা। কলেজ কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, তিনি আত্মহত্যা করেছেন।

নিহতের নাম তিথি আকতার। তিনি ঠাকুরগাঁও জেলার সদর উপজেলার কুমার পাড়া গ্রামের আলমগীর ইসলামের মেয়ে। তিনি দিনাজপুর নার্সিং কলেজের মিডিওয়াইফারি প্রথম বর্ষের ছাত্রী ছিলেন।

সোমবার দুপুর ১২টার দিকে দিনাজপুর নাসিং কলেজ ক্যাস্পাসের নাসিং হলের তৃতীয় তলার ৩০৭ নম্বর কক্ষ থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

শিক্ষার্থীরা জানিয়েছে, নিহত তিথির কক্ষ থেকে বান্ধবীদের উদ্দেশে লেখা একটি চিরকুট পাওয়া গেছে। চিরকুটে লিখা ছিল, “আমাকে ক্ষমা করে দিও সবাই। কারও মনে যদি কষ্ট দিয়ে থাকি। বিদায় বান্ধবীরা। ইতি তোমাদের তিথি”। চিরকুটে তারিখ ২৩/১১/২০২০ ও সময় সকাল ৯ টা ২৫ মিনিট লিখা রয়েছে।

দিনাজপুর নাসিং কলেজের অধ্যক্ষ মাগদেলেনা সরেন জানান, সকালে তিথি ডাইনিং কক্ষে দেরিতে আসে। এ সময় তার বান্ধবীরা তাকে তাড়াতাড়ি নাস্তা করে পরীক্ষার কক্ষে আসার জন্য বলে চলে যায়। পরে সে নাস্তা শেষ করে রুমে চলে যায়। কিন্তু সকাল ৯ টায় পরীক্ষা শুরু হলেও সে অংশগ্রহণ করেনি। পরে তার কক্ষে গিয়ে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় দেহ ঝুলতে দেখা যায়। সঙ্গে সঙ্গে তাকে উদ্ধার করে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে যাওয়া হলে কর্মরত চিকিৎসক মৃত বলে ঘোষণা করেন।

অধ্যক্ষ মাগদেলেনা সরেন আরও জানান, তিথি আকতার দীর্ঘদিন ধরে মেয়েলি রোগে ভুগছিলেন। সে কারণেই হতাশা থেকে হয়তো এই পথ বেছে নিয়েছেন তিনি।

দিনাজপুর কোতয়ালী থানার ওসি (তদন্ত) আসাদুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন