সদ্য সংবাদ

 অমিতাভ নাতনি নভ্যার ভাইরাল ছবি ঘিরে জল্পনা  সারাদেশে শীত থাকবে মাসজুড়ে  ১২ মাসের বেতন দিতে না পারলে পরিষদ বাতিল: স্থানীয় সরকার মন্ত্রী  পঞ্চগড়ে গভীর রাতে শীতার্তদের পাশে জেলা প্রশাসক   কারাগারে মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক অনলাইন প্রশিক্ষণ শুরু  বাগলী স্থল শুল্ক ষ্টেশনে মানববন্ধন  আড়াইহাজারে সোয়া ৫টন অবৈধ পলিথিন সহ গ্রেফতার ২   ভারতে টিকা নেয়ার পর ৪৪৭ জনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া  সিদ্ধিরগঞ্জে ভাবীকে পিটিয়ে রক্তাক্ত যখম করলেন দেবর  সাংবাদিকদের কল্যাণে সরকার কাজ করে যাচ্ছে -পিআইবি মহাপরিচালক   ফাইজারের করোনা ভ্যাকসিন নেয়ার পর নরওয়ের ২৩ নাগরিকের মৃত্যু  সিরাজগঞ্জ বিএনপি বিজয়ী কাউন্সিলর প্রার্থী খুন   নির্বাচনে কে জিতবে, নির্ধারণ হয় প্রধানমন্ত্রীর বাসা থেকে   এ নির্বাচনকে অংশগ্রহণমূলক বলা যায় না : মাহবুব তালুকদার  রাজউকের প্রস্তাব বাস্তবসম্মত নয়, নাসিকের চিঠি   মঞ্জু হত্যা মামলা থেকে প্রয়াত রাষ্ট্রপতি এরশাদকে অব্যাহতি  নারায়ণগঞ্জ বধ্যভূমিতে ১৩৯ শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনে ডিসি  বাইডেনের শপথ গ্রহণে গাইবেন লেডি গাগা ও জেনিফার লোপেজ  পুতুলে ভরে অভিনব কায়দায় ইয়াবা বিক্রি  ঢাকা এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে দৃশ্যমান

দিল্লির সরকার আলুর সরকার, এদের আর একটি ভোটও নয় : মমতা

 Mon, Nov 23, 2020 10:19 PM
 দিল্লির সরকার আলুর সরকার, এদের আর একটি ভোটও নয় : মমতা

এশিয়া খবর ডেস্ক:: ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপি

 নেতৃত্বাধীন কেন্দ্রীয় সরকারের সমালোচনা করে বলেছেন, দিল্লির সরকার আলুর সরকার, এদের আর একটি ভোটও নয়। তিনি সোমবার বাঁকুড়া জেলার খাতড়ায় বিভিন্ন প্রকল্পের উদ্বোধন, শিলান্যাস ও সরকারি পরিসেবা  প্রদান অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখার সময়ে ওই মন্তব্য করেন।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আজ বলেন, ‘আগে আলু, পটল, পেঁয়াজ, তেল ইত্যাদি নিত্য প্রয়োজনীয় আইনে রাজ্যের অধীনে ছিল। কিন্তু এখন  দিল্লির সরকার কী করেছে? আলুও নিয়ে নিয়েছে। আলু নিয়ে কী করবে জিজ্ঞেস করুন। দিল্লির সরকার আলুর সরকার। সব আলু নিয়ে চলে যাবে। আপনারা আলু সেদ্ধ ভাতও আর খেতে পারবেন না। এই আইন দিল্লি তৈরি করেছে। এদের আর একটি ভোটও নয়। এটা মাথায় রাখবেন।’

মমতা কেন্দ্রীয় সরকারের সমালোচনা করে আরো বলেন, ‘আমি কোথায় বাঁকুড়ায় পেঁয়াজ তৈরি করছি। আলু এ সময়ে কত কম দামে লোকে পায়। কিন্তু সব আলু নিয়ে পালিয়ে গেছে। কতগুলো কালোবাজারি, জোতদারদের স্বার্থে আইন তৈরি করে দিয়েছে। ওরা চাষিদের সব কেড়ে নেবে। দলিতদের সব কেড়ে নেবে। উপজাতিদের সব কেড়ে নেবে। সংখ্যালঘুদের সব কেড়ে নেবে। আর ক্ষমতায় এসেই বলবে জাতীয় নাগরিক পঞ্জি (এনআরসি) চাই। বাবার প্রমাণপত্র দাও, মায়ের প্রমাণপত্র দাও, ঠাকুমার প্রমাণপত্র দাও, ঠাকুরদাদার জন্মের প্রমাণপত্র দাও! তা নাহলে তুমি বাংলা  থেকে বেরিয়ে যাও। এই তো এদের কাজ। কাজেই মনে রাখবেন আলুও নিয়ে নিয়ে নিয়েছে, কৃষকদের ধানও নিয়ে নিয়েছে। কৃষক বিক্রি করবে ধান, কিন্তু কালোবাজারিরা লুটে নেবে। আলু লুটে নিয়েছে, পেঁয়াজ লুটে নিয়েছে। যদি ব্যবস্থা গ্রহণ না করা হয় তাহলে ২/৩ মাস বাদে দেখবেন  আলু, পেঁয়াজের দাম কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়! আমাদের (রাজ্যের) হাতে  এসব ছিল, আমরা দিতাম সস্তায়। কিন্তু এখন সব নিয়ে নিয়েছে দিল্লির সরকার।’

মমতা কেন্দ্রীয় সরকারকে তীব্র কটাক্ষ করে বলেন, ‘কী করবে, এত খেয়েও পেট ভরছে না! খেতে খেতে দানব-দৈত্য তৈরি হয়েছে ওরা! এত কিছুতেও পেট ভরছে না। এখন বলছে আলু চাই, পটল চাই, চাল চাই, পেঁয়াজ চাই।’

‘ওদের সব চাই। সব চাই করতে করতে মানুষের জন্য কিচ্ছু নাই। ওরা সারা বছর কিছুই দেবে না’ বলেও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মন্তব্য করেন। পার্সটুডে

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন