সদ্য সংবাদ

 ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়ে সরকার বড় দুর্নীতি করেছে : মির্জা ফখরুল   নিঃশর্ত ক্ষমা চাইলেন কুষ্টিয়ার সেই এসপি তানভীর   নারায়ণগঞ্জে মৃত ৬ মুক্তিযোদ্ধা লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন জেলা প্রশাসক বরাবর  উত্তরবঙ্গ এখন দ্বিতীয় চা অঞ্চল হিসেবে পরিনত  করোনা থেকে রক্ষায় আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করার আহ্বান-ডেপুটি স্পিকারের   বাংলাদেশে টিকার দাম কত হবে, জানালেন পাপন   কারাগারে হলমার্ক জিএমের নারীসঙ্গী, ডেপুটি জেলারসহ ৩ জন প্রত্যাহার   যে তারকাকে টুইটারে ফলো করেন বাইডেন  জ্যাক মার মিনিটের দাম ৫ হাজার ৮০০ কোটি ডলার!   সাকিব-তামিমে সিরিজ জয় টাইগারদের  রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রী প্রথম টিকা নিলে ভরসা পাবে জনগণ: রিজভী   বিশ্বের দূষিত শহরের তালিকায় শীর্ষে ঢাকা  রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন নিয়ে বাংলাদেশের চিঠির জবাব দিয়েছে মিয়ানমার  কারাগারে হলমার্ক হোতার নারীসঙ্গ, তদন্ত কমিটি গঠন  ‘কিলার‘ নাটক নির্মাণ করে প্রশংসিত আলিফ মাহমুদ  নারায়ণগঞ্জে কাজ করতে পেরে গর্বিত: ডিসি মোস্তাইন বিল্লাহ  সত্য কথা বলায় আমার বিরুদ্ধে মামলা : কাদের মির্জা   বিবাহ ও তালাক নিবন্ধন হবে অনলাইনে   পিকে হালদারের দুই সহযোগী ৩ দিনের রিমান্ডে   কূটনৈতিক এলাকা হতে পারে পূর্বাচলে : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

বর্তমান সরকারের পতনের অবস্থা চলছে: ডা. জাফরুল্লাহ

 Sat, Nov 28, 2020 10:08 PM
 বর্তমান সরকারের পতনের অবস্থা চলছে: ডা. জাফরুল্লাহ

এশিয়া খবর ডেস্ক:: গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী

 বলেছেন, বর্তমান সরকারের পতনের অবস্থা চলছে।

তিনি বলেন, এখন একটু জোরে ধাক্কা দিলেই কিনারায় পড়ে যাবে। সরকার দেউলিয়া হয়ে গেছে। দেউলিয়া কীভাবে, তা পত্রপত্রিকায় দেখা যাচ্ছে।

রাজধানীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শনিবার বিকেলে এক সমাবেশে জাফরুল্লাহ চৌধুরী এসব বলেন। মাওলানা ভাসানীর ৪৪তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে এই যৌথ সমাবেশের আয়োজন করে রাষ্ট্রচিন্তা, ভাসানী অনুসারী পরিষদ, ছাত্র যুব ও শ্রমিক অধিকার পরিষদ ও গণসংহতি আন্দোলন।

সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘এই সরকার যাদের নিয়ে চালায়, তারা হাজার কোটি টাকা লুট করছে। সরকারের মন্ত্রীরাই বলছে, সরকারের আমলারা লুট করছে। আমলারা তো লুট করবেই। যারা রাতের আঁধারে জনগণের ভোট লুট করে এই সরকারকে বসিয়েছে, তারা তো লুট করবেই।’

এককেন্দ্রিক সরকার কখনো মানুষের মুক্তি আনতে পারে না উল্লেখ করে জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ঢাকার সরকারের পতন ঘটিয়ে বহুকেন্দ্রিক সরকার করতে হবে। এককেন্দ্রিক সরকার কখনো মানুষের মুক্তি আনতে পারবে না। এর জন্য সংগ্রাম অব্যাহত রাখতে হবে। মাওলানা ভাসানীর বাণী, ‘যত দিন না পর্যন্ত সবার মুখে খাবার না আসবে, তত দিন আমরা থামব না। সবার মুখে খাবার দিয়েই আমরা থামব।’ এই অবস্থা পরিবর্তনের জন্য একত্র হতে হবে।

গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বকারী জোনায়েদ সাকি বলেন, এই সরকার দেশের, জনগণের ভবিষ্যতকে বিপদে ফেলছে। এ থেকে রক্ষা পেতে হলে রাজনৈতিক ক্ষমতার পরিবর্তন দরকার। জনগণ যেন কথা বলতে না পারে, এ জন্য তাদের পেটোয়া বাহিনী দিয়ে ত্রাস সৃষ্টি করে। পুলিশ–প্রশাসনকে নিজেদের মতো করে ব্যবহার করে। এর কারণ এই সরকার জনগণকে ভয় পায়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সাবেক সহসভাপতি (ভিপি) নুরুল হক নুর বলেন, এই সরকার মুখে অসাম্প্রদায়িক চেতনার কথা বললেও তারাই সাম্প্রদায়িকতার বিষবাষ্প ছড়াচ্ছে। সরকার ক্ষমতায় থাকার জন্য দেশে বিভাজিত রাজনীতি করছে। দেশকে একটি সাম্প্রদায়িকতার সংকটের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। যাকে–তাকে জামায়াত–শিবির বলে ট্যাগ দিচ্ছে।

নুর বলেন, এই সরকারের প্রতি জনগণের আস্থা নেই। মাওলানা ভাসানী বলেছেন, ‘পিন্ডির জিঞ্জির ছিন্ন করেছি, দিল্লির দাসত্ব করার জন্য নয়।’ কিন্তু এই সরকার দিল্লির দাসত্ব করেই ক্ষমতায় টিকে আছে।

সমাবেশে ঘোষণাপত্র পাঠ করেন ভাসানী অনুসারী পরিষদের মহাসচিব রাশিদুল ইসলাম।

আরো বক্তব্য দেন রাষ্ট্রচিন্তার সদস্য দিদারুল ইসলাম ভূঁইয়া, বাংলাদেশ গার্মেন্ট শ্রমিক সংহতির সভাপ্রধান তাসলিমা আক্তার, ছাত্র অধিকার পরিষদের আহ্বায়ক রাশেদ খান, শ্রমিক অধিকার পরিষদের আহ্বায়ক আবদুর রহমান প্রমুখ।

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন