সদ্য সংবাদ

 প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্টের অর্থ বণ্টনে অনিয়মের অভিযোগ   নাশকতায় জড়িত হেফাজত কর্মীর স্বীকারোক্তি  নারায়ণগঞ্জ ডিবি পুলিশের অভিযানে ৪ ভুয়া ডিবি গ্রেফতার  সিদ্ধিরগঞ্জের টাইগার ফারুক জেলে, আত্মগোপনে তার ৩ সন্ত্রাসী   ইমামের স্বীকারউক্তি নাশকতায় সাথে মামুনুল হক জড়িত- এসপি পিবিআই  নারায়ণগঞ্জ ডিবি পুলিশের অভিযানে সোর্স বিশু ও মিশু গ্রেফতার   মুনিয়ার মৃত্যু: দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা বসুন্ধরা গ্রুপের শাহ আলম পুত্র আনভীরের   বসুন্ধরার এমডি প্রেমিক আনভীরকে নিয়ে মুনিয়ার ডায়েরিতে কী আছে?  হেফাজতের ৩১৩ অর্থ যোগানদাতা চিহ্নিত: ডিবি কমিশনার  গুলশানের ফ্ল্যাট থেকে তরুণীর লাশ উদ্ধার, বসুন্ধরার এমডির বিরুদ্ধে মামলা  কওমি মাদ্রাসা রাজনীতিমুক্ত রাখতে ১৫ সদস্যের কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত   ডিএনডির সেনা প্রজেক্টের নির্মাণাধীন ঢালাই ধসে নিহত-১, আহত-৫  নারায়ণগঞ্জে গ্যাস বিস্ফোরণের ঘটনায় ৭ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন।  নারায়ণগঞ্জ এসপির বন্ধু পরিচয়ে সোর্স বাবু -বিশু ও মিশু চক্রের চাঁদাবাজি  ৩০০ পরিবারে মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করলেন নাঃগঞ্জের ডিসি  চিকিৎসকের আচরণের প্রতিবাদ করেছেন পুলিশ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশন  ডাক্তার -পুলিশের মাঠ পর্যায়ের বাস্তবতা  করোনা আক্রান্ত হয়ে না ফেরার দেশে চলে গেলেন অভিনেত্রী কবরী  আশা ও তামাশার লকডাউন  কত বছর করোনার সঙ্গে থাকতে হবে কেউ জানিনা- ডা ফাহিম

পাকিস্তানের মডেল কিন্দিল বেলুচ হত্যায় ফেঁসে যাচ্ছেন সেই মুফতি

 Sat, Oct 14, 2017 6:13 AM
পাকিস্তানের মডেল কিন্দিল বেলুচ হত্যায় ফেঁসে যাচ্ছেন সেই মুফতি

ডেস্ক রিপোর্ট : : পাকিস্তানের আলোচিত মডেল কিন্দিল বেলুচ হত্যায় এবার ফেঁসে যাচ্ছেন বিতর্কিত মুফতি আব্দুল কাভি।

 জুডিশিয়াল মেজিস্ট্রেট বৃহস্পতিবার মুফতী আব্দুল কাভীর বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে। তিনি পুলিশকে হত্যাকাণ্ড তদন্তে কোনো রকম সহযোগিতা করছেন না অভিযোগ এনে তাকে গ্রেফতারের নির্দেশ দেওয়া হয়।


মডেল কিন্দিল বেলুচকে গত বছরের ১৫ জুলাই রাতে হত্যা করা হয়। হত্যাকাণ্ডে অভিযুক্ত তার ভাই ওয়াসিম ও কাজিন হক নওয়াজ কারাগারে বন্দি রয়েছেন। মূলত মুফতি কাভির সঙ্গে বিবাদে জড়ানোর পরই কিন্দুল বেলুচকে হত্যা করা হয়। ওই মুফতীর বিরুদ্ধে কুপ্রস্তাবের অভিযোগ এনেছিল মডেল কিন্দুল বেলুচ। এ নিয়ে দু,জনের মাঝে বাক বিতণ্ডা চরমে পৌঁছলেই কিন্দিল বিলুচকে হত্যার ঘটনা ঘটে। তবে এ হত্যাকাণ্ডের সুস্পষ্টের কোনো প্রমাণ এখনো উদঘাটন করতে পারেনি আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। অশ্লীলতা প্রচারের অভিযোগে ওই মডেলের ওপর আগ থেকেই ক্ষিপ্ত ছিল তার ভাই ও পরিবারের অন্য সদস্যরা। মুফতির বিরুদ্ধে অভিযোগ আনলে সে সময় পাকিস্তানের মিডিয়াপাড়া সগরম হয়ে উঠে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে কিন্দিলকে তার ভাই হত্যা করতে পারেন বলেও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মনে করছেন।


এদিকে মুফতি আব্দুল কাভী জানান, তাকে জামিনযোগ্য গ্রেফতার করা হতে পারে। এ হত্যাকাণ্ড তদন্তে তিনি পুলিশকে সব রকম সহযোগিতার জন্য তৈরি রয়েছেন। পুলিশ চাইলেই যেকোনো সময়ে তার থেকে জবানবন্দি নিতে পারেন।


সূত্র : জিও উর্দু

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন