সদ্য সংবাদ

 পরের বিশ্বকাপ আমার: নেইমার  জয়যাত্রার হেলেনা জাহাঙ্গীরের বাসায় র‌্যাবের অভিযান  প্রতি ১২ কেজি গ্যাস সিলিন্ডারের দাম ৯৯৩ টাকা  স্বল্প সুদে প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত প্রণোদনার ঋণ বিতরণ  সাঘাটায় শ্রমিকলীগের সাথে নবাগত ইউএনওর মতবিনিময়   ৪৫ বছর পর উপজেলা হল মধ্যনগর।  থাইল্যান্ডে বিমানবন্দরেই করোনা হাসপাতাল  পদ্মা সেতুর পিলারে ধাক্কা: তদন্তে এবার নৌ-মন্ত্রণালয়ের কমিটি  দেশ থেকে বাল্যবিবাহ দূরীকরণে বদ্ধপরিকর প্রধানমন্ত্রী   সান্ত্বনা জানাতে মেয়র আইভীর বাসায় মন্ত্রী গাজী  মাদকের বস্তি উচ্ছেদ, সওজের শতকোটি টাকার জমি উদ্ধার  করোনার টিকা নিলেন সাংবাদিক ও মানবিক যোদ্ধা মান্নান ভূঁইয়া   সিদ্ধিরগঞ্জ সানারপাড়ে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় আহত ১  ডিএমপির মিডিয়া শাখার নতুন মুখপাত্র ডিসি ফারুক হোসেন   সাত টাকায় চিকিৎসা দেবে গণস্বাস্থ্য: ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী   জিম্বাবুয়ের কাছে হারলো বাংলাদেশ   চট্টগ্রামে গৃহকর্মী নির্যাতনের অভিযোগে চিকিৎসক গ্রেপ্তার  স্বামীর অশ্লীল ভিডিও নিয়ে যা বললেন শিল্পা  ‘কঠোর লকডাউনে কারো পৌষ মাস কারো সর্বনাশ’   ভারতে সর্বোচ্চ নম্বর পেয়ে মুসলিম ছাত্রীর ইতিহাস

প্যারিসে হোটেলে ধর্ষণের শিকার হতে পারতেন কিম কারদেশিয়ান

 Tue, Mar 21, 2017 10:37 AM
প্যারিসে হোটেলে ধর্ষণের শিকার হতে পারতেন কিম কারদেশিয়ান

ডেস্ক রিপোর্ট :: গত বছর ৩ অক্টোবর ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসের একটি হোটেলে ছিনতাইকারীদের

হাতে বন্দি হয়েছিলেন রিয়েলিটি শো’র তারকা কিম কারদেশিয়ান। ওই রাতে ছিনতাইকারীরা তার কয়েক মিলিয়ন মূল্যের অলঙ্কার ও ইউরো ছিনিয়ে নেয়।

রোববার রাতে ‘কিপিং আপ উইথ কারদেশিয়ান’ অনুষ্ঠানে তিনি প্রথমবারের মতো বললেন, ওই রাতে তিনি ছিনতাইকারীদের হাতে ধর্ষণেরও শিকার হতে পারতেন। এমন কি খুনও হয়ে যেতে পারতেন।

অনুষ্ঠানে কারদেশিয়ান বললেন, ‘বন্দুকদারী দুজন প্রথমে টেপ দিয়ে আমার মুখ বন্ধ করে ফেলে। তারপর আমাকে বিছানায় ফেলে দেয়। আমার গাঁয়ে নিচের কোনো পোশাক ছিল না। তাদের একজন আমার উপরে চড়ে বলে, হ্যাঁ, এই হ”েছ সময় ৃ.’ কারদেশিয়ান কাঁদতে কাঁদতে বলেন, ‘আমি ধর্ষণের শিকার হওয়ার জন্য মানসিকভাবে একেবারে প্র¯‘তি নিয়ে ফেলেছিলাম। লোকটি আমার দুপা টেনে ধরেছিল। ’

কিš‘, তাদের একজন হঠাৎ আমার মাথায় বন্দুক চেপে ধরে। আমি ভাবছিলাম তারা আমাকে এক্ষুণি মেরে ফেলবে। আমি মনে মনে প্রার্থনা করছিলাম আমার মৃত্যুর পর যেন আমার মেয়েটার জীবন স্বাভাবিক থাকে।’

শেষ পর্যন্ত তারা আমাকে মারেনি, ধর্ষণও করেনি। হাত পা বেঁধে রেখে বাথরুমে নিয়ে ফেলে রাখে আর আমার বহুমূল্যের গয়না ও অর্থকড়ি নিয়ে পালিয়ে যায়।

তারপর অবশ্য এই ঘটনার জন্য ১৭ সন্দেহভাজনকে আটক করা হয়। তাদের ১০ জনের বিরুদ্ধে এখনো মামলা চলছে। সিএনএন,

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন