সদ্য সংবাদ

 গোদাগাড়ীতে জোর করে জমি দখলের অভিযোগ  সাংবাদিকদের ঐক্য ধরে রাখতে হবে: আবুল বাশার মজুমদার   ডিইউজের সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলামের উপর হামলার নিন্দা  আইডিইবির বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ, নতুন নির্বাচন ঘোষণার দাবি  বাজেট প্রত্যাখ্যান করে বাসদের মানববন্ধন ও মিছিল  পঞ্চগড়ে সড়ক দূর্ঘটনা সহ পৃথক ঘটনায় নিহত-৩  যুগের চিন্তার বাবলার চাঁদা চাওয়ার রেকর্ড আমার কাছে আছে- আব্দুল হাই  সীতাকুণ্ডে আহত- নিহতদের জন্য জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা’র দোয়া মাহফিল  গোদাগাড়ীতে সরকারি পুকুর ভরাট করে ধান চাষ  আন্তঃজেলা গাড়ি চোর চক্রের ৬ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পিবিআই।  ২২ দিনেও পুলিশের অগ্রগতি নেই চারঘাটের চিকিৎসক মান্নান খুনের ঘটনায়।  প্রয়াত সাংবাদিকদের রুহের মাগফেরাত কামনায় দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত  শাহরাস্তিতে মসজিদ কমিটির আধিপত্য নিয়ে সংঘর্ষে ইউপি মেম্বার লাঞ্চিত।  মাদরাসার ছাত্রকে অপহরণের রহস্য ফাঁস, গ্রেপ্তার ১  ঝিনাইদহে নিম্নমানের ইট দিয়ে সড়ক সংস্কার, পালিয়ে গেলেন প্রকৌশলী  গাইবান্ধা এলজিইডির আওতায় ৯টি ব্রীজের নির্মাণ কাজ চলছে  বন্দরে খেলাফত মজলিসের ঈদ সামগ্রী বিতরণ   অভিনয়ে পা রাখলেন পান্ডের ছেলে প্রতীক  থাইল্যান্ডে মাসব্যাপি ইফতার আয়োজন করেছেন প্রবাসীরা।  তনু পান্ডের পরিচালনায় নতুন প্রযোজক রবি

ভারতে সর্বোচ্চ নম্বর পেয়ে মুসলিম ছাত্রীর ইতিহাস

 Fri, Jul 23, 2021 9:04 PM
 ভারতে সর্বোচ্চ নম্বর পেয়ে মুসলিম ছাত্রীর ইতিহাস

এশিয়া খবর ডেস্ক::: ভারতে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় পুরো পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে সর্বোচ্চ

 নম্বর পেয়েছেন রুমানা সুলতানা ইসলাম নামের এক মুসলিম শিক্ষার্থী। গতকাল বৃহস্পতিবার (২২ জুলাই) ফল ঘোষণার পর থেকেই যা নিয়ে সর্বত্র শুরু হয়েছে আলোচনা ও বিতর্ক। খোদ রুমানার আপত্তি তার পরিচয়ের আগে মুসলিম শব্দটি কেনো বারবার ব্যবহার করা হচ্ছে।

আজ শুক্রবার আনন্দবাজার পত্রিকা অনলাইনকে রুমানা সুলতানা বলেন, তার নামের আগে মুসলিম না বললেই ভালো হয়। কেবল ছাত্রী বললে বেশি ভালো হয় এবং এটা নিয়ে কোনো বিতর্কের সৃষ্টি না হলে আরও ভালো।


এর আগে বৃহস্পতিবার ফলাফল ঘোষণা করার সময় পশ্চিমবঙ্গের উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের প্রধান মহুয়া দাস বলেছিলেন, সর্বোচ্চ নম্বরের ভিত্তিতে একটা ইতিহাস হয়েছে এবং তা বলতে ইচ্ছে করছে। যিনি সর্বোচ্চ নম্বর পেয়েছেন তিনি মুর্শিদাবাদ জেলা থেকে এক মুসলিম কন্যা। এককভাবে সে সর্বোচ্চ ৪৯৯ নম্বর অর্জন করেছেন।


তবে তিনি নাম উল্লেখ করেননি। বলেছেন, অনলাইনে গিয়ে দেখতে। মূলত এরপর থেকেই বিতর্ক শুরু। অনেকের বক্তব্য, একজন মুসলিম মেয়ে এত ভালো ফল করায় তা অবশ্যই বলা উচিত। কারণ, রাজ্যে এখনো মুসলিম মেয়ে ও নারীদের অনেক বাধা পার হতে হয়।



আবার অনেকের বক্তব্য, কেনো ভালো ফলাফলের ক্ষেত্রে জাত বা ধর্ম উল্লেখ করতে হবে। কারণ, এর মধ্য দিয়ে সংশ্লিষ্ট শিক্ষার্থীকে বিড়ম্বনায় পড়তে হয়।

রুমানার বাবা রবিউল আলম পেশায় স্কুলশিক্ষক এবং মা সুলতানা পারভিন শিক্ষিকা। তবে তারা বিতর্কের বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন