সদ্য সংবাদ

 নারায়ণগঞ্জ ডিবির ক্যাশিয়ার আনোয়ার আতঙ্কে ব্যবসায়ীরা!   ১৮ বছর বিমানবন্দরে বসবাসকারী সেই ইরানির মৃত্যু   ইরানের সঙ্গে সম্পর্ক জোরদারে আগ্রহী পুতিন   কোনো বাধা বিএনপিকে ঠেকাতে পারবে না : রিজভী  পাকিস্তানকে হারিয়ে বিশ্বসেরার মুকুট ইংল্যান্ডের   ঢাকাতেই হবে হজযাত্রীদের ইমিগ্রেশন ও তল্লাশি- স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী   দুর্ভিক্ষ আসছে আতঙ্কে মানুষ  সাত পাকে বাঁধা পড়লেন 'আশিকি টু' ছবির সুরকার- গায়িকা  ডেঙ্গু: আরও ৭ মৃত্যু, হাসপাতালে ভর্তি ৮৭৫   ১০০ সেতু চালু হওয়ায় দেশের উন্নয়ন ত্বরান্বিত হবে: প্রধানমন্ত্রী   অধিকার আদায় না করে ঘরে ফিরে যাব না: ফখরুল  ড্রোন নিয়ে মিথ্যা বলছে ইরান: জেলেনস্কি   ৩০তম বিসিএসের সেই পুলিশ কর্মকর্তা চাকরিচ্যুত   ১০ ডিসেম্বরের সমাবেশে আমরাও থাকব: মান্না  কোনো সিমই বিক্রি করতে পারবে না গ্রামীণফোন   সাংবাদিকদের আয়কর মালিকপক্ষই দেবে: হাইকোর্ট   বিয়েতে দেনমোহর ১০১টি বই   অবাধ ও স্বচ্ছ নির্বাচনে সহযোগিতা করবে যুক্তরাষ্ট্র'   মানুষের ওপর আক্রমণ করলে রক্ষা নেই: প্রধানমন্ত্রী   কপ-২৭ সম্মেলন: ১০০ বিলিয়ন ডলার চায় বাংলাদেশ

১০ ডিসেম্বরের সমাবেশে আমরাও থাকব: মান্না

 Sun, Nov 6, 2022 9:11 PM
 ১০ ডিসেম্বরের সমাবেশে আমরাও থাকব: মান্না

ডেস্ক রিপোট:: আগামী ১০ ডিসেম্বর রাজধানী ঢাকায় বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশে

 অংশ নেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্না।

রবিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে নাগরিক ঐক্যের উদ্যোগে ‘যুগপৎ আন্দোলন ও রাষ্ট্রের গণতান্ত্রীক রূপান্তর’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় তিনি এ ঘোষণা দেন।

মান্না বলেন, ‘ঢাকায় একটা মহাসমাবেশ হবে যেটা এর আগে কখনো হয়নি। ১০ তারিখ যদি আমরা রাস্তায় নামতে পারি আমি মনে করি এই স্বৈরাচার সরকারের পতন হবে। পুরো পরিস্থিতিই বদলে গেছে। সারাদেশে যে সমাবেশ হয়েছে বাধা-বিপত্তি উপেক্ষা করে মানুষ সেগুলোতে অংশ নিচ্ছে। আমি একটা কথা বলতে চাই। বিএনপি এই সংকটে একা লড়বে না। আমরাও বিএনপির সঙ্গে আছি। এখন বাংলাদেশে আট কোটি মানুষ গরিব, চার কোটি বেকার। যার মধ্যে এক কোটি মানুষ শিক্ষিত বেকার। এই সরকারের অর্থনৈতিক সংকট এত তীব্র। এই সরকারের পতন হলে তারপর যেই সরকার আসবে তাকেও এই ক্রাইসিস মোকাবিলা করতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘যারা দেশের গণতন্ত্রকে হত্যা করেছে, তাদের আমরা বিচারে নিয়ে আসব কোনো দলের প্রতি, পরিবারের প্রতি ও ব্যক্তির প্রতি আমাদের হিসাব-নিকাশ নেই। কিন্তু একটা মানুষ তার নাম যত ব্যাপক, পরিচিতি যত ব্যপক, তিনি যদি এ দেশের দূরাবস্থার কারণ হন তাহলে নিশ্চয় তার বিচার করতে হবে। সেই বিচারের বিষয়ে আমরা আবার কোনো বাড়াবাড়ি করব না। বিচারের স্বাভাবিক পদ্ধতি যা হবে সে আলোকেই বিচার হবে।’

নাগরিক ঐক্যের সভাপতি আরো বলেন, ‘আগামীতে যে সময় আসছে সেই সময় কেমন হবে? ডিসেম্বরের ১০ তারিখ পর্যন্ত আসতে আসতে কী পরিস্থিতি দাঁড়াবে? গত শনিবার রাতে মির্জা ফখরুল গাড়িতে করে ঢাকায় এসেছেন। তাদের সহযোগী একজন নারী লঞ্চে করে রওয়ানা দিয়েছিলেন। তাকে রাস্তায় আটক করা হয়েছে। র‌্যাব তুলে নিয়ে গেছে। ডিসেম্বর আসতে আসতে সারাদেশে একটা সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম হবে। এ জন্য তাদের বিরুদ্ধে লড়তে ঢাকাবাসীকে তৈরি হতে হবে। সেই লড়াইয়ে গণতন্ত্র মঞ্চ ঘোষণা দিচ্ছে আমরা সেই লড়াইয়ের সঙ্গে থাকব।’

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। আরো উপস্থিত ছিলেন বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি, ভাসানী অনুসারী পরিষদের মহাসচিব রফিকুল ইসলাম বাবলু ও রাষ্ট্র সংস্কার আন্দোলনের হাসনাত কাইয়ুম প্রমুখ।

Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement
Advertisement

আরও দেখুন